film izle
esans aroma Umraniye evden eve nakliyat gebze evden eve nakliyat Entrumpelung wien Installateur Notdienst Wien
১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০

গৃহবধূ ধর্ষণের ঘটনায় এসআই খায়রুলের সম্পৃক্ততা নেই : পিবিআই

গৃহবধূ ধর্ষণের ঘটনায় এসআই খায়রুলের সম্পৃক্ততা নেই : পিবিআই - ছবি: সংগৃহীত

যশোরের শার্শায় আলোচিত গৃহবধূ ধর্ষণের ঘটনায় প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ কর্মকর্তা খায়রুলের সম্পৃক্ততার প্রমাণ পায়নি পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই)। মঙ্গলবার দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে পিবিআইয়ের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এমকেএইচ জাহাঙ্গীর হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, বাদীর দায়েরকৃত অভিযোগে গ্রেফফতারকৃত তিনজন আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আসামিদের আদালতে সোপর্দ করা হয়। তাদের মধ্যে একজন আসামি আদালতে স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করে। এছাড়া আটককৃত তিনজনের ডিএনএ পরীক্ষা সম্পন্ন করা হয়।

জবানবন্দি পর্যালোচনায় দেখা যায়, স্বীকারোক্তি প্রদানকারী আসামি বাদীর পূর্ব পরিচিত এবং পারিবারিকভাবে তাদের মধ্যে সম্পর্ক ছিল। তাদের মধ্যে একাধিবার মিলন হয়েছে। আর এ ঘটনার সাথে গোড়পাড়া ক্যাম্পের সাব ইন্সপেক্টর খায়রুল আলমের জড়িত থাকার বিষয়টি প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হয়নি।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ২ সেপ্টেম্বর গভীর রাতে শার্শা উপজেলার লক্ষণপুর এলাকায় ওই গৃহবধূর বাড়িতে এসআই খায়রুল, সোর্স কামরুলসহ চারজন যান। তারা ৫০ হাজার টাকা দাবি করে না পেয়ে ক্ষিপ্ত হয়ে এসআই খায়রুল ও কামরুল তাকে ধর্ষণ করেন বলে ওই গৃহবধূ অভিযোগ করেন। পরে ৩ সেপ্টেম্বর সকালে ওই গৃহবধূ যশোর জেনারেল হাসপাতালে ডাক্তারি পরীক্ষা করাতে এলে বিষয়টি ছড়িয়ে পড়েয়। ওই দিন রাতেই শার্শা থানায় একটি মামলা করেন ওই গৃহবধু।

এ ঘটনা তদন্তে পুলিশ প্রশাসনের পক্ষে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। পরে পুলিশ হেড কোয়াটারের আদেশে মামলাটি পিবিআইতে হস্তান্তর করে।


আরো সংবাদ