১৭ নভেম্বর ২০১৯

ইউপি চেয়ারম্যানকে যুবলীগ নেতার মারপিট

বগুড়ার গাবতলী উপজেলা সমন্বয় কমিটির বৈঠকে যুবলীগ নেতার মারপিটের শিকার হয়েছেন এক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান।

প্রত্যক্ষদর্শী নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন জানান, বৃহস্পতিবার দুপুরে ইউপি চেয়ারম্যান অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক নশিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম মিন্টু সমন্বয় কমিটির সভায় যোগ দেয়ার জন্য গাবতলীর ইউএনও অফিসের দোতলায় যাচ্ছিলেন।

এ সময় ইউএনও অফিসের দোতলায় পৌঁছামাত্র উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক পৌর কাউন্সিলর শাজাহান আলী চেয়ারম্যান মিন্টুর পথরোধ করেন। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে যুবলীগ নেতা শাজাহান আলী ইউপি চেয়ারম্যান মিন্টুর পাঞ্জাবীর কাপড় চেপে ধরে টানা-হেঁচড়া শুরু করেন।

এরপর কিলঘুষি মারতে মারতে দেয়ালের সঙ্গে ধাক্কা দেন। এতে মিন্টু চেয়ারম্যানের চোখের চশমা ভেঙে পড়ে যায় এবং আহত হন। সঙ্গে সঙ্গে উপস্থিত লোকজন ঘটনাস্থলে ছুটে এসে যুবলীগের ওই নেতাকে থামিয়ে দেন। বিষয়টি নিয়ে মুহুর্তের মধ্যে গাবতলীতে হৈ চৈ পড়ে যায়।

ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম মিন্টু স্থানীয় সাংবাদিকদের জানান, তিনি বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় গাবতলী উপজেলা পরিষদের ইছামতি হলরুমে উপজেলা মাসিক সমন্বয় সভায় যোগ দেয়ার জন্য দোতলায় উঠছিলাম। এ সময় উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শাজাহান আলী আমার পথরোধ করে কোন কারণ ছাড়াই মারপিট শুরু করে। শাজাহান আলীর সুপারিশকৃত এক ভাতা কার্ড নিয়ম অনুযায়ী দিতে না পারার কারণেই এই ঘটনাটি ঘটিয়েছে বলে আমার ধারণা ।

গাবতলীর ইউপি চেয়ারম্যান অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি লতিফুল বারী মিন্টু ও মহিষাবান ইউপি চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, মিন্টু চেয়ারম্যানকে মারধর করা আর আমাদের সব চেয়ারম্যানকে মারপিট করা একই কথা। আমরা এ ঘটনার বিচার চাই।

গাবতলীর ইউএনও রওনক জাহান বলেন, ভূক্তভোগী ইউপি চেয়ারম্যান বিষয়টি সমন্বয় সভায় জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে থানার ওসি সেলিম হোসেনের সঙ্গে কথা বললে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, বিষয়টি শুনেছি। তবে কোন লিখিত অভিযোগ পাইনি।


আরো সংবাদ