১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯

বাল্য বিয়ের দায়ে বরসহ বরযাত্রীদের জেল-জরিমানা

বগুড়ার শিবগঞ্জে বাল্যবিয়ের দায়ে ৭ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পরে তাদেরকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে হাজির করে বিভিন্ন দণ্ডে জেল-জরিমানা করা হয়।

শনিবার দুপুরে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন শিবগঞ্জ থানার ওসি তদন্ত মো. ছানোয়ার হোসেন।

জানা গেছে, উপজেলার মোকামতলা ইউনিয়নের শংকরপুর গ্রামের  মজনু মিয়ার ছেলের সাথে ধাওয়াগীর গ্রামে চান মিয়ার ৫ শ্রেণিতে পড়ুয়া ১৩ বছর বয়সী মেয়ের বিয়ের আয়োজন করা হয়েছিল এমন গোপন সংবাদ পেয়ে শুক্রবার রাতে শিবগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে যান। সেখানে পুলিশ অভিযান চালালে মেয়ে আত্মগোপনে চলে যায়। এ সময় পুলিশ বর মিলন (২৩), মেয়ের বাবা চান মিয়া, ধাওয়াগীর মসজিদের ইমাম ও ইসলামী ফাউন্ডেশনের গনশিক্ষার শিক্ষক মাওলানা মোঃ আব্দুল আজিজ, রায়নগর ইউনিয়নের কাজী শাহানুর আলম (৩৩) ছাড়াও তিনজন বর যাত্রী মো. হাফিজার রহমান(২৯), ইমরান হোসেন(২০) ও বুলবুল ইসলাম(২১) কে গ্রেফতার করে।

গ্রেফতারের পর শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট মো. আলমগীর কবিরের  ভ্রাম্যমাণ আদালতে হাজির করা হলে, তিনি সাক্ষী প্রমাণের ভিত্তিতে কাজী শাহানুর আলম (৩৩) কে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা, ইমাম মো. আব্দুল আজিজের ৩ মাস, বর মিলনের ১ মাস, কনের বাবা ও বরযাত্রীদের প্রত্যেকের ৫ হাজার টাকা করে জরিমানা ও সাজা প্রদান করেন।

উল্লেখ্য, গত ১৩ আগস্ট শিবগঞ্জ থানা প্রাঙ্গণে উপজেলার সকল জনপ্রতিনিধিদের নিয়ে বাল্যবিয়ে বিরোধী সমাবেশের আয়োজন করা হয়। বাল্য বিয়ের দিক থেকে বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলা ২য় স্থানে রয়েছে বলে জানান বগুড়ার পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভুঞা বিপিএম।

তিনি বলেন, বাল্য বিয়ে প্রতিরোধ করার উদ্দেশ্যেই জন প্রতিনিধিদের নিয়ে সমাবেশ করা হয়।


আরো সংবাদ