১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯

বগুড়ায় দুদকের মামলায় সাবেক মন্ত্রী লতিফ সিদ্দিকী কারাগারে

লতিফ সিদ্দিকী - ফাইল ছবি

বগুড়ার আদালতে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) মামলায় হাজিরা দিতে এসে জামিন নামঞ্জুর হওয়ায় কারাগারে যেতে হয়েছে সাবেক বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল লতিফ সিদ্দিকীকে।

আজ বৃহস্পতিবার দিনের প্রথম ভাগে তিনি বগুড়া জেলা জজ ও সিনিয়র স্পেশাল জজ আদালতের বিচারক নরেশ চন্দ্র সরকারের আদালতে হাজির হন। তার পক্ষে বগুড়া বারের সিনিয়র আইনজীবী অ্যাডভোকেট আল মাহমুদ, অ্যাডভোকেট নরেশ মুখার্জ্জী, অ্যাডভোকেট হেলালুর রহমান জামিনের জন্য আবেদন জানালে বিচারক সরাসরি তা নাকচ করে দেন। জামিন নামঞ্জুর হওয়ার পর তাকে সরাসরি বগুড়া জেল হাজতে পাঠিয়ে দেয়া হয়।

বগুড়া দুদকের পিপি আবুল কালাম আজাদ মামলার বিবরণ দিয়ে জানান, বগুড়ার আদমদীঘী উপজেলার দারিয়াপুর এলাকায় বিজেসির নিয়ন্ত্রণাধীন একটি ক্রয়কেন্দ্রসহ ২ একর ৩৮ শতক জমি ক্ষমতার অপব্যবহার ও দুর্নীতির আশ্রয় নিয়ে তৎকালীন পাটমন্ত্রী আব্দুল লতিফ সিদ্দিকী বিনা টেন্ডারে তার পূর্বপরিচিত বগুড়ার জাহানারা রশিদকে লিজ দেন। উল্লেখিত ক্রয়কেন্দ্রসহ জমির লিজ প্রদানকালীন সময়ের বাজার মূল্য সরকারি অ্যাসেসমেন্ট অনুযায়ী ৬৪ লাখ ৬৩ হাজার ৭শ’ ৯৫ টাকা হলেও তিনি ৪০ লাখ ৬৯ হাজার টাকায় লিজপত্র লিখে দেন। এর ফলে সরকারের রাজস্ব ক্ষতি হয়েছে ২৩ লাখ ৪০ হাজার টাকা।

তৎকালীন পাটমন্ত্রীর এই দুর্নীতি ও ক্ষমতার অপব্যবহারের সংবাদ মিডিয়ায় আসার পর দুদক বিষয়টির অনুসন্ধান শুরু করে। অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পাওয়ার পর দুদকের বগুড়া জেলা সমন্বিত কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক (এডি) আমিনুল ইসলাম ২০১৭ সালের ১০ অক্টোবর আদমদীঘী থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলাটির তদন্ত প্রক্রিয়া শেষ করে এ বছরের ১৮ ফেব্রুয়ারি তিনি সংশ্লিষ্ট আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। উল্লেখিত মামলায় জামিনের জন্য বৃহস্পতিবার আদালতে হাজিরা দিতে আসেন লতিফ সিদ্দিকী।


আরো সংবাদ