২৬ জুন ২০১৯

সোশ্যাল ব্যাংকের ৬ কোটি টাকা আত্মসাতের মামলায় বগুড়ার ঠিকাদার খোকন গ্রেফতার

-

সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংকের ৬ কোটি টাকা আত্মসাতের মামলায় গ্রেফতার হয়েছেন বগুড়া শহরের মাকছুদুল আলম খোকন নামের এক ঠিকাদার। জালিয়াতি করে সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড (এসআইবিএল) বগুড়া শাখার টাকা আত্মসাতের মামলায় তিনি চার্জশিটভুক্ত আসামী। গ্রেফতারকৃত খোকন শহরের বাদুরতলা এলাকার মৃত শাহ আলমের ছেলে এবং মাশফা এন্টারপ্রাইজের স্বত্ত্বাধিকারী, পানি উন্নয়ন বোর্ডের ঠিকাদার ও জেলা যুবলীগের সাবেক নেতা।
শুক্রবার রাতে শহরের নামাজগড় এলাকার প্রত্যাশা হাউজিং এর বাসা থেকে তাকে সদর থানা পুলিশ গ্রেফতার করে। তাকে ওই মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে শনিবার দুপরে আদালতে পাঠায় পুলিশ। আদালত তার জামিন আবেদন না মন্জুর করে কারাগারে পাঠিয়েছেন। অপর আসামী তৎকালীন ম্যানেজার রফিকুল ইসলাম ও ব্যবসায়ী আব্দুল মান্নান আকন্দ সম্প্রতি কারাভোগের পর জামিন পেয়েছেন।
দুর্নীতি দমন কমিশন (দূদক) সূত্রে জানা গেছে, সোশ্যাল ইসলামি ব্যাংক বগুড়া শাখার তৎকালীন ব্যবস্থাপক রফিকুল ইসলামের সাথে যোগসাজসে ৫ জন ব্যবসায়ী জাল কাগজপত্রের মাধ্যমে ৩১ কোটি টাকা লোন নিয়ে আত্মসাত করেন। এ ঘটনাটি দুর্নীতি দমন কমিশন প্রাথমিক তদন্ত শেষে সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক বগুড়া শাখার তৎকালীন ম্যানেজার রফিকুল ইসলামসহ ৭ জনের নামে ২০১১ সালের ৩০ নভেম্বর বগুড়া সদর থানায় মামলা দায়ের করেন। এরপর তা তদন্ত শেষে আদালতে চার্জশিট দাখিল করা হয়।
মামলার অভিযোগে উল্লেখ করা হয় অভিযুক্ত আসামীরা পরস্পর যোগসাজসে প্রতারণা ও জালিয়াতি করে ভুয়া হিসাব সৃষ্টি করে ব্যাংকের টাকা আত্মসাত করেছে। মামলার তদন্ত শেষে দুর্নীতি দমন কমিশন সমন্বিত জেলা কার্যালয় বগুড়ার তৎকালীন উপ-পরিচালক গ্রেফতারকৃত খোকন সহ ৯ জনকে অভিযুক্ত করে ২০১৭ সালের ৯ আগস্ট আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। তদন্ত কর্মকর্তা চার্জশিটে উল্লেখ করেন যে, আসামীরা দুনীতির মাধ্যমে ব্যাংক থেকে ৩১ কোটি ১৮ লাখ ৪৯ হাজার টাকা আত্মসাত করেছেন। এরপর আদালত গ্রেফতারী পরোয়ানা জারী করেন। ঐ মামলার পলাতক আসামী ছিলেন মাকছুদুল আলম খোকন।
বগুড়া সদর থানার ওসি এসএম বদিউজ্জামান জানান, শুক্রবার রাত ১০ টায় শহরের নামাজগড় এলাকার প্রত্যাশা হাউজিং এর বাসা থেকে মাকছুদুল আলম খোকনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনি দুদকের মামলার চার্যশিটভুক্ত আসামী। তার বিরুদ্ধে প্রায় ৬ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ রয়েছে। ঐ মামলায় আদালত থেকে তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরওয়ানা ছিল। তাকে শনিবার জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।


আরো সংবাদ