২০ মে ২০১৯

ছেলে মামুনকে বাঁচাতে সাহায্য চেয়েছেন মা ফরিদা

ছেলে মামুনকে বাঁচাতে সাহায্য চেয়েছেন মা ফরিদা - ছবি : সংগ্রহ

সিরাজগঞ্জের মোছা: ফরিদা ইয়াসমিন, (গ্রাম+ডাকঘর- মেঘাই, উপজেলা-কাজিপুর) জীবন সংগ্রামে একজন সাহসী যোদ্ধা। তার একমাত্র সন্তানটি শারীরিক ও বুদ্ধি প্রতিবন্ধী নাম তার আব্দুল্লাহ আল মামুন। এই অসুস্থ ছেলেটির বয়স ২৩ বছর। সে হাঁটতে পারে না, বসতে পারে না, দু-হাত দিয়ে কোনো কিছু ধরতে পারে না, এমনকি স্বাভাবিক খাবার খেতে পারে না, খেলতে পারে না। পুরো শরীরই তার অচল ও বিকলাঙ্গ। মস্তিষ্ক কাজ করে না বলে সে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী। কিন্তু দেখতে শিশুর মতো। কারণ অপুষ্টির কারণে তার শারীরিক বৃদ্ধি থেমে গেছে অনেক আগেই। এই ছেলেটির চিকিৎসা করতে যেয়ে জমিজমা, টাকা-পয়সা এমনকি ভিটা বাড়িটুকু বিক্রি করে আজ এই অসহায় মা বড়ই নিঃস্ব। পরিবারটি আজ দরিদ্রের চরম সীমায় পৌঁছে গেছে।

ছেলেটির শরীর শুকিয়ে এমন হয়েছে যে, ছেলেটির হাড়- মাংস এক হয়ে গেছে। কঙ্কাল সার অসুস্থ দেহ নিয়ে পড়ে আছে বিছানায়। এই ছেলেটির যে বয়সে দুরন্ত বালক হয়ে পথঘাট ঘুরে বেড়ানোর কথা, সারা বেলা দস্যুপনায় মেতে ওঠার কত, মা মা ডাকে তার মাকে অস্থির করে রাখার কথা, তার মায়ের চিবুক আদরের চুমুতে ভরিয়ে দিয়ে মায়ের মাতৃত্বকে পরিপূর্ণ করার কথা। সেই ছেলেটি এখন অসহায় অবস্থায় শুয়ে ফ্যাল ফ্যাল করে তাকিয়ে থাকে চার দিকে।

দু’চোখে ফুটে ওঠেছে তার বেঁচে থাকার আর্তি। শারীরিক নানা জটিলতায় ছেলেটিকে কুঁড়ে কুঁড়ে খাচ্ছে। ২৩টি বছর বিছানায় শুয়ে শুয়ে তার পৃথিবী সীমাবদ্ধ হয়ে গেছে ছোট্ট একটি ঘরে। ছেলেটির মায়ের সুখ-স্বাচ্ছন্দ্য হারিয়ে গেছে এই অসুস্থ ছেলেটির জন্য। ছেলেটি পায়ুপথের গঠনগত অস্বাভাবিকত্বের কারণে পায়ুপথের ওয়াল ঝুলে পায়খানা চলাচলের পথে বাধা সৃষ্টি করে। ওর একটি অপারেশন করতে হবে। অপারেশনটি ব্যয়বহুল। ফরিদার পক্ষে এই ব্যয় নির্বাহ করা সম্ভব নয় বিধায়, সমাজের সহৃদয় মানষের প্রতি সাহায্যের অনুরোধ করেছেন।

সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা-মোছা: ফরিদা ইয়াসমিন, সঞ্চয়ী হিসাব নং-২১৪৬৭, ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড, সিরাজগঞ্জ শাখা, সিরাজগঞ্জ। বিস্তারিত তথ্যের জন্য মোবাইল ০১৭২০-৪৫৭৩১৮ (বিকাশ), নগদ একাউন্ট ০১৮৪৫-৩৬৬১৪৫।


আরো সংবাদ