১৪ নভেম্বর ২০১৮

বগুড়ায় স্বেচ্ছাসেবকলীগ কর্মী শাকিল হত্যা : ২০ যুবলীগ নেতাকর্মীর নামে মামলা

-

পুলিশের তালিকা ভুক্ত সন্ত্রাসী ও আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগ কর্মী শাকিল ওরফে পা কাটা শাকিলকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় তার স্ত্রী ফাল্গুনী ইয়াসমিন বাদী হয়ে ২০ যুবলীগ নেতাকর্মীকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন। শনিবার রাত ১২টার দিকে নিহত শাকিলের স্ত্রীর এ মামলা দায়ের করেন।

মামলায় শহর যুবলীগের ৪নং ওয়ার্ড কমিটির সাধারণ সম্পাদক ফিরোজকে প্রধান আসামি করা হয়েছে। মামলার অন্যান্য আসামিরাও যুবলীগের নেতাকর্মী বলে বগুড়া সদর থানা পুলিশ জানিয়েছে। তবে কেউ গ্রেফতার হয়নি।

বগুড়া সদর থানার ওসি এএসএম বদিউজ্জামান জানান, পুলিশ হেফাজতে থাকা নিহত শাকিলের বন্ধু স্বেচ্ছাসেবকলীগ কর্মী মিশুকে প্রত্যক্ষদর্শী হিসেবে আদালতে জবানবন্দী রেকর্ড করে ছেড়ে দেয়া হবে।

বগুড়া সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তী জানান, হত্যাকান্ডের সাথে জড়িতদের সকলেই সনাক্ত হয়েছে। ঘটনার পরই তারা আত্মগোপন করেছে। তবে বিভিন্ন কৌশল এবং প্রযুক্তি ব্যবহার করে আসামিদের গ্রেফতারের কাজ চলছে।

উল্লেখ্য, শুক্রবার রাতে সন্ত্রাসী শাকিল তার জন্মদিন উপলক্ষে বন্ধুদের নিয়ে মদ পান করার উদ্দেশ্যে শহরের চকসুত্রাপুর সুইপার পট্টিতে যায়। সেখানে যুবলীগ নেতা ফিরোজের নামে বরাদ্দকৃত মদে ভাগ বসিয়ে তা কেড়ে নেয়াকে কেন্দ্র করে ফিরোজের সহযোগিরা শাকিলকে কুপিয়ে জখম করে এবং তার সহযোগী বিশালকে ছুরিকাঘাত করে। হাসপাতালে নেয়ার পর শাকিল মারা যায়। বিশাল এখনো বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।


আরো সংবাদ