২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮
বগুড়া-৪ আসন

প্রচারণায় বিএনপির ৬ প্রার্থী আ’লীগের ৪ জন প্রস্তুতি জামায়াতেও

নির্বাচন
প্রচারণায় বিএনপির ৬ প্রার্থী আ’লীগের ৪ জন প্রস্তুতি জামায়াতেও - ছবি : নয়া দিগন্ত

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে বগুড়া-৪ (নন্দীগ্রাম-কাহালু) আসন বিভিন্ন দলীয় প্রার্থীর প্রচারইায় মুখরিত হয়ে উঠেছে। এ আসনে দলীয় মনোনয়ন নিয়ে জাসদ বা জাপাকে ছাড় দিতে রাজি নয় আওয়ামী লীগ। এ দিকে জামায়াতে ইসলামীকেও ছাড় দিতে চায়ছে না বিএনপি।

এই আসনে দশম সংসদ নির্বাচনে বিএনপি নির্বাচন বর্জন করায় জাতীয় পার্টির প্রার্থী হাজী নূরুল আমিন বাচ্চুর সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে জাসদ প্রার্থী এ কে এম রেজাউল করিম তানসেন নির্বাচিত হন। কিন্তু আগামী নির্বাচনে কোনো মতেই জাসদ বা জাপাকে ছাড় দিতে রাজি নয় আওয়ামী লীগ।

এ ছাড়া বিশ দলীয় জোটের অন্যতম শরিক জামায়াতে ইসলামীও নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছে।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ মমতাজ উদ্দিন এবার এ আসনে প্রার্থী হওয়ার ঘোষণা দিয়ে মাঠে নেমেছেন। এ দিকে হাতছাড়া হওয়া আসনটি ঘিরে বিএনপি নিয়েছে নানামুখী পরিকল্পনা। এবার এ আসনে নতুন মুখ দিয়ে চমক দেখাতে পারে দলটি। তবে জামায়াতের প্রার্থীকেও বিবেচনা করে পরিকল্পনা করতে হচ্ছে অন্য প্রার্থীদের।

জানা গেছে, নন্দীগ্রাম উপজেলার ৫ ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভা এবং কাহালু উপজেলার ৯ ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভা নিয়ে গঠিত ৩৯ বগুড়া-৪ আসন। ২০১৩ ও ২০১৫ সালে সরকারবিরোধী আন্দোলনের সময় জামায়াতে ইসলামীর বিভিন্ন কর্মসূচির কারণে এই নন্দীগ্রাম উপজেলা বারবার আলোচনায় এসেছে। এ আসনে ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ৮ হাজার ৬৪৪ জন। এ আসনে নারী ভোটার বেশি। তাদের সংখ্যা ১ লাখ ৫৬ হাজার ১৬৯ জন। আর পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৫২ হাজার ৪৭৫ জন। এরমধ্যে নন্দীগ্রাম উপজেলার ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ৩৯ হাজার ৪১০ জন ও কাহালু উপজেলার ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ৬৯ হাজার ২৩৪ জন।

একাদশ সংসদ নির্বাচন ঘিরে এরই মধ্যে ভোটারদের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য বিভিন্ন স্থানে দলীয়প্রধানের ছবির পাশাপাশি বিভিন্ন দলের প্রার্থীরা নিজের ছবিসংবলিত পোস্টার ও ফেস্টুন লাগিয়েছেন। এ ছাড়া বিভিন্ন দলের একাধিক নেতা নির্বাচনে লড়ার ইচ্ছা প্রকাশ করে নানা কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করছেন। বর্তমানে আওয়ামী লীগ-বিএনপির প্রায় একডজন নেতা ভোটের মাঠে রয়েছেন।

সূত্র জানায়, ২০০৮ সালের নির্বাচনে এ আসনে চারদলীয় জোটের প্রার্থী হিসেবে বিএনপি নেতা ইঞ্জিনিয়ার জেড আই এম মোস্তফা আলী মুকুল ধানের শীষ প্রতীকে ১ লাখ ৩১ হাজার ৪১৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মহাজোটের প্রার্থী জাসদ নেতা এ কে এম রেজাউল করিম তানসেন নৌকা প্রতীকে ৭৫ হাজার ৯৯১ ভোট পান। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মহাজোটের শরিক জাপা প্রার্থীর সঙ্গে জেলা জাসদের সভাপতি এ কে এম রেজাউল করিম তানসেন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে বিজয়ী হন।

২০১৪ সালের নির্বাচনে জাসদ এই আসনটি পেয়ে যায়। এরই মধ্যে জেলা জাসদের সভাপতি রেজাউল করিম তানসেন কেন্দ্রীয় জাসদ সভাপতি তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনুকে এনে কাহালুর শেখাহারে জনসভা করেছেন। সংসদ সদস্য রেজাউল করিম তানসেন আশা করছেন, বর্তমান সংসদ সদস্য হিসেবে তিনিই আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ১৪ দলীয় জোটের মনোনয়ন পাবেন।

এ দিকে ক্ষমতাসীন দলের হয়ে এবার ভোটের মাঠ কাঁপাচ্ছেন বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ মমতাজ উদ্দিন। ঝিমিয়ে পড়া আওয়ামী লীগের ত্যাগী নেতাকর্মীদের সক্রিয় করতে কাহালু-নন্দীগ্রাম উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে জনসভা করছেন। স্থানীয় দায়িত্বশীল নেতাকর্মীদের পাশাপাশি অভিমানী ত্যাগী নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময়ও করছেন মমতাজ উদ্দিন। তিনি জয়ের আশায় আটঘাট বেঁধে বগুড়া-৪ আসনে প্রার্থী হওয়ার আগ্রহ নিয়ে দিনরাত কাজ করে চলেছেন।

তিনি ছাড়াও এ আসনে মনোনয়ন পেতে- নন্দীগ্রাম উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. ইউনুস আলী মণ্ডল, কাহালু উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক কামাল উদ্দিন কবিরাজ, বগুড়া জজ আদালতের সাবেক পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) হেলালুর রহমান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের সাবেক নেতা আলহাজ অধ্যাপক আহছানুল হক মাঠে রয়েছেন।

আসনটিতে বিএনপির অবস্থান আগে থেকেই খুবই শক্তিশালী। সংসদের বাইরে থাকা দলটির মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে রয়েছেন সাবেক সংসদ সদস্য জেড আই এম মোস্তফা আলী মুকুল, জেলা বিএনপির সহসভাপতি অ্যাডভোকেট রাফি পান্না, জেলা বিএনপির সদস্য ও জিয়া শিশু-কিশোর সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির সহসভাপতি আলহাজ মোশারফ হোসেন, সংস্কারপন্থী সাবেক সংসদ সদস্য ডা: জিয়াউল হক মোল্লা, জেলা বিএনপির ধর্মবিষয়ক সম্পাদক মাওলানা ফজলে রাব্বী তোহা, সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সাবেক ছাত্রনেতা অ্যাড. গোলাম আকতার জাকির।

এ আসন বিএনপিদলীয় সাবেক সংসদ সদস্য মোস্তফা আলী মুকুল মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে গণসংযোগ করছেন। তবে দলটির সম্ভাব্য প্রার্থী মোশারফ হোসেনের বেশ গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে নেতাকর্মীদের মধ্যে। তার দাবি কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের সবুজ সঙ্কেত পেয়ে এলাকায় বেশি সময় দিচ্ছেন তিনি। প্রতিটি সভা-সমাবেশ ও সামাজিক অনুষ্ঠানে দেখা মিলছে তার। ধানের শীষ প্রতীকের প্রচারে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও তিনি অন্য সবার চেয়ে এগিয়ে।

ডা: জিয়াউল হক মোল্লা বিএনপির বড় একটি অংশের কাছে এখনো জনপ্রিয়। তবে নেতাকর্মীরা জানান, এ নেতাকে দলীয় কর্মসূচিতে দেখা যায় না। গণসংযোগেও নেই তিনি। আগামী নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন চাইবেন বলে শোনা যাচ্ছে। পাশাপাশি অ্যাডভোকেট রাফি পান্নার সঙ্গেও রয়েছে বিএনপির আরেকটি অংশ। তারও বেশ গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে নেতাকর্মীদের মধ্যে। তিনি বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ করে চলেছেন।

নির্বাচন কমিশনের নিবন্ধন বাতিল হলেও বিএনপির নেতৃত্বাধীন জোটের অন্যতম শরিক জামাত স্বতন্ত্রভাবে নির্বাচনের পরিকল্পনা নিয়েছে। এলাকায় দলটির প্রভাব ও পকেট ভোট রয়েছে। এসব বিষয় মাথায় রেখেই কাহালু উপজেলা পরিষদের তিনবারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান ও জেলা জামায়াতের নায়েবে আমির তায়েব আলীর পক্ষে দলের নেতাকর্মীরা নির্বাচনী মাঠ গোছানোর চেষ্টা করছেন।

নন্দীগ্রাম-কাহালু আসনে বিএনপির শক্ত অবস্থান থাকলেও দলীয় কোন্দল আছে। জামায়াতের একটি সূত্র জানিয়েছে, এ আসনে তারা প্রার্থী ঘোষণা করেছে। নির্বাচনেও প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে সরগরম প্রস্তুতি জেলা জামায়াতের পক্ষ থেকে নেয়া হচ্ছে।

জাপা থেকে মনোনয়ন পেতে মাঠে নানাভাবে উপস্থিতি জানান দিচ্ছেন গত নির্বাচনে দলটির প্রার্থী উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি হাজী নূরুল আমীন বাচ্চু, যুবসংহতির বগুড়া জেলা কমিটির সভাপতি শাহীন মোস্তফা কামাল ফারুক। জাতীয় পার্টির নেতারা বলছেন, আওয়ামী লীগ ও বিএনপির প্রতি মানুষ অতিষ্ঠ। এ কারণে আগামী নির্বাচনে ভোটাররা জাতীয় পার্টির প্রার্থীকেই বেছে নেবেন।


আরো সংবাদ

জোড়া আঘাতে বিপদে বাংলাদেশ সাবেক বিচারপতির দায়িত্বশীলতা নিয়ে প্রশ্ন ওবায়দুল কাদেরের প্রেমের ফাঁদ : অতঃপর বিবস্ত্র করে টাকা আদায় জুডিশিয়াল ক্যু করতে ব্যর্থ হয়ে নতুন ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে : আইনমন্ত্রী অটোরিকশায় তার ছিঁড়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে নিহত ৪ সঠিক কথা বলায় বিচারপতি সিনহাকে দেশত্যাগে বাধ্য করেছে সরকার : সুপ্রিম কোর্ট বার ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ : স্পিননির্ভর ভারত নিউ ইয়র্কে সুষমা-কোরেশি বৈঠক খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতে বিচার মৌলিক অধিকারের পরিপন্থী : ফখরুল জাতিসঙ্ঘ অধিবেশনে যোগ দিতে নিউ ইয়র্ক যাত্রার প্রধানমন্ত্রীর ভিক্টোরিয়া হ্রদে ফেরি ডুবিতে কমপক্ষে ৪৪ জনের মৃত্যু

সকল