১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ঠাকুরগাঁও সীমান্তে এক বাংলাদেশীকে ধরে নিয়ে গেছে বিএসএফ

-

ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার রত্নাই সীমান্তের ওপারের ভারতীয় উত্তর দিনাজপুর জেলার ইসলামপুর থানার সোনামতি ক্যাম্পের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ সদস্যরা ভোর রাতে বাংলাদেশী গরু ব্যবসায়ী জারমান আলীকে (৪০) ধরে নিয়ে গেছে।
এলাকাবাসী ও বিজিবি সূত্রে জানা গেছে, বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ফতেপুর করুয়া গ্রামের কাজিম উদ্দীনর ছেলে জারমান আলীসহ কয়েকজন ব্যবসায়ী মিলে শনিবার ভোর রাতে রত্নাই সীমান্তের ৩৮২/৪ এস পিলারের নিকট গরু কিনতে গেলে ওই সময় ভারতীয় উত্তর দিনাজপুরের ইসলামপুর থানার সোনমতি ক্যাম্পের বিএসএফ সদস্যদের নজরে পড়লে এসময় কয়েক রাউন্ড গুলি বর্ষণ করার পর তাকে ধাওয়া করে আটক করে শারীরিক নির্যাতন চালিয়ে তাদের ক্যাম্পে নিয়ে যায়। পরে সকাল হলে বিজিবি ক্যাম্পের পক্ষ থেকে বাংলাদেশীকে ফেরৎ চেয়ে ভারতীয় সোনামতি ক্যাম্পে বিএসএফকে পত্র প্রদানের মাধমে তীব্র প্রতিবাদ জানানো হলে বিকালে সীমান্তের জিরো পয়েন্টে ১ ঘন্টা ব্যাপী উভয় দেশের কোম্পানী কমান্ডার পর্যায়ে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।
বৈঠকে বিএসএফ’র পক্ষ থেকে আটককৃত ব্যবসায়ী জারমানকে ফেরতের ব্যাপারে কোন সদত্তোর পাওয়া যায়নি।
এ ব্যাপারে ৫০ বিজিবির ভারপ্রাপ্ত পরিচালক মো: জাহাঙ্গীর আলম “নয়া দিগন্তকে” জানান, জারমান আলীকে ভারত অভ্যন্তরে বিএসএফ হাতে ধরা পড়ে। তাকে ফেরত চেয়ে বিএসএফ’র নিকট পত্র প্রদানের মাধ্যমে তীব্র প্রতিবাদ জানানো হলে উভয় দেশের কোম্পানী কমান্ডার পর্যায়ে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে আটককৃত বাংলাদেশী ব্যবসায়ীকে ভারতীয় থানা পুলিশের নিকট সোপর্দ করেছে বলে বিএসএফ জানিয়েছে।


আরো সংবাদ