১৩ নভেম্বর ২০১৮

নির্বাচনের মাঠ ফাঁকা করতে মিথ্যা মামলা দিয়ে গ্রেফতার ও হয়রানী করা হচ্ছে : ভিপি সাইফুল

-

বগুড়ায় বিএনপির ও এর অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে পুলিশের গ্রেফতার ও হয়রানীর প্রতিবাদ জানিয়ে তা অবিলম্বে বন্ধের দাবী করেছে জেলা বিএনপি। বৃহস্পতিবার শহরের নবাববাড়ি সড়কের দলীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে দলের জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও বগুড়া জেলা সভাপতি ভিপি সাইফুল ইসলাম এ দাবী জানান।
তিনি অভিযোগ করেন ,গত এক সপ্তাহে বগুড়া সদরসহ জেলার বিভিন্ন উপজেলায় পুলিশ কোন কারন ছাড়াই বিএনপি নেতাকর্মীদের নামে মিথ্যা অভিযোগে মামলা দিয়ে হয়রানী করছে। ইতোমধ্যে সদর উপজেলা, দুপচাচিয়া, সোনাতলা, শাজাহানপুর , আদমদিঘি উপজেলায় নাশকতার পরিকল্পনা ও সন্ত্রাস দমন আইনে কয়েকটি মামলা করে বেশ কয়েজনকে গ্রেফতার করেছে।
গভীর রাতে পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা প্রত্যন্ত গ্রামে টহল বৃদ্ধি করে ভীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে। তারা নেতাকর্মীদের বাড়ী বাড়ী তল্লাশী করছে এবং এসময় পরিবারের সদস্যদের হযরানী করছে। একারনে তারা রাতে বাড়ীতে থাকতে পারছে না। সর্বশেষ ডিবি পুলিশের পরিচয়ে বুধবার রাতে সোনাতলা বন্দরের নিজ বাড়ী থেকে সোনাতলা উপজেলা যুবদলের সাধারন সম্পাদক মোস্তাক আহম্মেদ লিটনকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।
দপচাঁচিয়া উপজেলা থেকে পুলিশ ৩ নেতা কর্মী হুমায়ুন কবির, হুমায়ুন ও শামছুর রহমানকে গ্রেফতার করেছে। এসব এলাকায় পুলিশের তল্লাশি অভিযানের মুখে বিএনপির নেতাকর্মীরা এখন বাড়ি ছাড়া। প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর অনুষ্ঠানে যোগদিতে আসার সময় আওয়ামীলীগের সন্ত্রাসী কর্তৃক শহরের সাতমাথায় তিন যুবদলকে নেতাকে ছুরিকাঘাত করা হয়েছে। এ ঘটনায় উল্টো বিএনপির বিুরদ্ধে মামলা করা হয়েছে। শাজাহানপুর উপজেলায় বিএনপির ৬০জন নেতা কর্মীর নামে মামলা করা হয়েছে ।
গত কয়েক দিন ধরে গ্রেফতারের তালিকায় দলের নেতাকর্মীদের সংখ্যা বাড়ছেই। তিনি অভিযোগ করেন, জাতীয় নির্বাচনের আগে এসব পুলিশি হয়রানীর মাধ্যমে সরকার বিএনপি নেতাকর্মীদের মাঠ ছাড়া করতে চাচ্ছে। আর এই সুযোগে ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারীর মত ভোটারবিহীন নির্বাচনে আবারো ক্ষমতায় বসতে চায়। তিনি পুলিশকে জনগণের সেবক হিসেবে কাজ করার পাশাপাশি রাজনৈতিক এজেন্ডা বাস্তবায়ন না করার আহবান জানান। সংবাদ সম্মেলনে জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক জয়নাল আবেদিন চাঁন, মুক্তিযোদ্ধা মোঃ শোকরানা, আলী আজগর তালুকদার হেনা, লাভলী রহমান, রেজাউল করিম বাদশা, ফজলুল বারি তালুকদার বেলাল, সাবেক এমপি অ্যাডভোকেট একেএম হাফিজুর রহমান, মাহবুবর রহমান বকুল, ডাঃ শাহ মোঃ শাহজাহান আলী,আব্দুর রাফি পান্না, এমআর ইসলাম স্বাধীন, অ্যাডভোকেট নাজমুল হুদা পপন, পরিমল চন্দ্র দাস, শহিদুন্নবী ছালাম, শেখ তাহা উদ্দিন নাহিন, শাহ মোঃ মেহেদী হাসান হিমু, আব্দুল ওয়াদুদ, রুস্তম আলী, রফিকুল ইসলাম, আব্দুল মোমিন মোশারফ হোসেন স্বপন, লিটন শেখ বাঘা প্রমুখ।


আরো সংবাদ

১০ বিশিষ্ট ব্যক্তিকে নির্বাচনে সম্পৃক্ত করতে চান ড. কামাল আস্থা রাখুন, হিন্দু সম্প্রদায়কে ফখরুল ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন আগের চেয়ে বেশি দমনমূলক : অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল আ’লীগের মনোনয়ন বোর্ডের সদস্য হলেন ফারুক খান ও আব্দুর রাজ্জাক সহকর্মীর আঘাতে প্লাস্টিক ফ্যাক্টরির কর্মচারী নিহত শিক্ষাক্ষেত্রে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে হবে : শিক্ষামন্ত্রী সাংবাদিক শিমুল হত্যা মামলায় মেয়র মিরুর জামিন স্থগিত শিশুশ্রম নির্মূলের ল্যমাত্রা অর্জনে দেশ যথেষ্ট পিছিয়ে নির্বাচনী তফসিল পুনর্নির্ধারণ জাপা ইতিবাচকভাবেই দেখছে : জি এম কাদের ৩২ আসনে প্রার্থী চূড়ান্ত করেছে খেলাফত আন্দোলন অভিভাবক ঐক্য ফোরাম চেয়ারম্যানের মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি

সকল