১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯

হুয়াওয়ে ভারতে নিষিদ্ধ হবে কি

-

যুক্তরাষ্ট্রের চাপে ভারত হুয়াওয়ের ব্যবসায় বিধিনিষেধ আরোপ করার পরিকল্পনা চলছে। কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই ভারতে নতুন প্রজন্মের সেলুলার নেটওয়ার্ক প্রযুক্তি ফাইভজির পরীক্ষামূলক সেবা চালু করার কথা রয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে ভারত হুয়াওয়ের ব্যবসা বন্ধ করলে পাল্টা ব্যবস্থা নেবে চীন। লিখেছেন আহমেদ ইফতেখার

সম্প্রতি চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বেইজিংয়ে ভারতীয় রাষ্ট্রদূতকে ডেকে বলেছে, যুক্তরাষ্ট্রের চাপে ভারত হুয়াওয়ের ব্যবসায় বিধিনিষেধ আরোপ করলে চীনে ব্যবসা করছে এমন ভারতীয় কোম্পানির অসুবিধা হবে। অবাক করার বিষয় হলো কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই ভারতে নতুন প্রজন্মের সেলুলার নেটওয়ার্ক প্রযুক্তি ফাইভজির পরীক্ষামূলক সেবা চালু করার কথা রয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে ভারত হুয়াওয়ের ব্যবসা বন্ধ করলে পাল্টা ব্যবস্থা নেয়ার হুমকি দিয়েছে চীন।
ভারতের টেলিযোগাযোগমন্ত্রী রবি শঙ্কর প্রসাদ বলেছেন, এখানে ফাইভজি নেটওয়ার্ক স্থাপন ও পরিচালনায় চীনা কোনো কোম্পানি থাকবে কি না সে ব্যাপারে এখনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি। গত ১০ জুলাই বেইজিংয়ে ভারতীয় রাষ্ট্রদূতকে তলব করেছিল চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। ফাইভজি নেটওয়ার্ক অবকাঠামো নির্মাণে হুয়াওয়েকে বয়কট করতে যুক্তরাষ্ট্র বিশ্বব্যাপী যে প্রচারণা চালাচ্ছে, সে ব্যাপারে বেইজিংয়ের উদ্বেগের কথা ভারতকে জানানো হয়েছে। রাষ্ট্রদূতের ওই বৈঠকের রেকর্ড থেকে জানা যায়, বৈঠককালে চীনা কর্মকর্তারা বলেছেন, ওয়াশিংটনের চাপের মুখে ভারত যদি হুয়াওয়েকে বয়কট করে, তাহলে চীনে যেসব ভারতীয় প্রতিষ্ঠান ব্যবসা করছে, তাদের বিরুদ্ধেও ‘পাল্টা অবরোধ’ আরোপ করা হবে।
এ ব্যাপারে চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সাথে যোগাযোগ করলে কর্মকর্তারা জানান, তারা আশা করছেন, ফাইভজি অবকাঠামো নির্মাণের কোম্পানি বাছাইয়ের ক্ষেত্রে ভারত স্বাধীনভাবে সিদ্ধান্ত নেবে। মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হুয়া চুয়িং এক বিবৃতিতে বলেন, হুয়াওয়ে দীর্ঘদিন ধরেই ভারতে ব্যবসা করছে। ভারতের সমাজ ও অর্থনীতিতে তাদের অবদান রয়েছে, এটা সবাই জানে। ভারতের ফাইভজি অবকাঠামো নির্মাণে চীনা প্রতিষ্ঠানের অংশগ্রহণের ইস্যুতে আমরা আশা করি, পারস্পরিক লাভের কথা চিন্তা করেই ভারত স্বাধীন ও নিরপেক্ষভাবে সিদ্ধান্ত নেবে।
এ দিকে চীনের বাজারে ভারতীয় কোম্পানির উপস্থিতি অন্য বৃহৎ অর্থনীতির দেশগুলোর তুলনায় নগণ্য। ইফোসিস, টিসিএস, ড. রেড্ডিস ল্যাবরেটরি, রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ ও মাহিন্দ্রার মতো কয়েকটি কোম্পানি উৎপাদন, আর্থিক সেবা, স্বাস্থ্যসেবা ও আউটসোর্সিংয়ের ব্যবসা করছে। তবে হুয়াওয়েকে কেন্দ্র করে চীন-ভারতের মধ্যে কিছু বিষয়ে চলমান বিরোধ নতুন করে বিস্তৃত ও গভীর রূপ নিতে পারে। যেখানে দুটি দেশই বিশেষ করে সীমানা বিরোধ নিয়ে দীর্ঘদিনের উত্তেজনা প্রশমনের চেষ্টা করে যাচ্ছে। এর মধ্যে অক্টোবরেই হিন্দুদের পবিত্র শহর বারানসীতে চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংকে অভ্যর্থনা জানাবেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সে বৈঠকে দুই দেশের বাণিজ্য নিয়ে বিস্তারিত আলাপ হওয়ার কথা রয়েছে।
চীনের সাথে ৫ হাজার ৩০০ কোটি ডলারের বাণিজ্য ঘাটতি নিয়ে বেশ অস্বস্তিতে আছে ভারত। বারানসীর বৈঠকে এটিও গুরুত্ব পাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এখানে মোদি সরকারের কিছু রাজনৈতিক চ্যালেঞ্জও মোকাবেলা করতে হবে। মোদির বিজেপি ঘনিষ্ঠ হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলো চীনকে চরম মাত্রায় অবিশ্বাস করে। তারা অর্থনীতিতে স্বনির্ভরতার কথা বলে এবং সাম্প্রতিক সময়ে হুয়াওয়ের সমালোচক হিসেবেও আবির্ভূত হয়েছে। ভারতের রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের (আরএসএস) অর্থবিষয়ক প্রধান অশ্বিনী মহারাজন এক চিঠিতে ভারতে হুয়াওয়ের কার্যক্রম নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তিনি লিখেছেন, হুয়াওয়ে গোপন তথ্য চুরি করে দেশে পাঠানোর পাশাপাশি প্রয়োজনের সময় দূরবর্তী স্থান থেকেই ভারতে তাদের সেবা বন্ধ করে দিতে সক্ষম।
ভারতের টেলিযোগাযোগমন্ত্রী রবি শঙ্কর প্রসাদ পার্লামেন্টে বলেছেন, পরীক্ষামূলকভাবে ফাইভজি সেবা চালু করতে হুয়াওয়েসহ ছয়টি কোম্পানির প্রস্তাব পাওয়া গেছে। যদিও কোম্পানিগুলোর নাম বলেননি মন্ত্রী।
টেলিযোগাযোগ অবকাঠামো সরঞ্জামের বাজারে শীর্ষ প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ে। বর্তমানে চীন-মার্কিন বাণিজ্যযুদ্ধে ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসনের প্রধান লক্ষ্যে পরিণত হয়েছে এ প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান। নিরাপত্তা ঝুঁঁকির কথা বলে গত মে মাসে কোম্পানিটিকে কালো তালিকাভুক্ত করেছে মার্কিন বাণিজ্য দফতর। মিত্রদেশগুলোকেও একই ধরনের সিদ্ধান্ত নিতে চাপ দিচ্ছে ট্রাম্প প্রশাসন।

আসছে হংমেং চালিত স্মার্টফোন
নিজস্ব অপারেটিং সিস্টেম হংমেংয়ের পরীক্ষা-নিরীক্ষা শুরু করেছে হুয়াওয়ে টেকনোলজিস। চীনের রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত গণমাধ্যম গ্লোবাল টাইমস জানিয়েছে, হুয়াওয়ের একটি স্মার্টফোনে হংমেংয়ের কার্যকারিতা যাচাই করা হচ্ছে। চলতি বছরই এ অপারেটিং সিস্টেমচালিত ফোন বাজারে আসতে পারে।
চীন-মার্কিন বাণিজ্যযুদ্ধের অন্যতম লক্ষ্যে পরিণত হয়েছে হুয়াওয়ে। এখন তাদের হংমেং অপারেটিং সিস্টেমচালিত ফোন যদি সত্যি সত্যি বাজারে আসে এবং উল্লেখযোগ্য অবস্থান তৈরি করে নিতে পারে, তাহলে সেটি হবে হুয়াওয়ের জন্য একটি বড় অগ্রগতি। যেখানে দ্বিতীয় বৃহত্তম এ স্মার্টফোন নির্মাতাকে গুগলের অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারে বাধা দেয়ার হুমকি দিয়েছে ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসন।
হংমেং চালিত প্রথম স্মার্টফোনটির দাম হতে পারে ২৮৮ ডলার। অর্থাৎ, লো-এন্ডের স্মার্টফোন বাজার দিয়ে শুরু করতে যাচ্ছে হুয়াওয়ে। এর আগে হুয়াওয়ের একাধিক নির্বাহী জানিয়েছিলেন, হংমেং অপারেটিং সিস্টেমটি মূলত ইন্টারনেট অব থিংস (আইওটি) ডিভাইসের জন্য তৈরি করা হয়েছে। গত মাসে কোম্পানির পক্ষ থেকে জানানো হয়, হুয়াওয়ের বড় পণ্যের মধ্যে আসন্ন অনার ব্র্যান্ডের স্মার্ট টিভিতেই প্রথম এ অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করা হবে। তা ছাড়া শুরু থেকেই বিভিন্ন স্মার্টফোন কোম্পানির নির্বাহীরা হংমেংকে স্মার্টফোন পরিচালনার অযোগ্য বলে বর্ণনা করেছেন।
গত সপ্তাহে একটি অনুষ্ঠানে হুয়াওয়ের চেয়ারম্যান লিয়াং হুয়া বলেন, মোবাইল ডিভাইসের জন্য তারা গুগলের অ্যান্ড্রয়েডকেই প্রাধান্য দেবেন। হংমেং মূলত কোম্পানির সুদূরপ্রসারী পরিকল্পনার অংশ।
মার্কিন নিষেধাজ্ঞার পরও চলতি বছরের প্রথমার্ধে হুয়াওয়ের রাজস্ব ২৩ শতাংশ বেড়েছে। মূলত অভ্যন্তরীণ বাজারে বিক্রি বেড়ে যাওয়ার কারণেই এমনটি হয়েছে। যেখানে বিশ্বব্যাপীই স্মার্টফোনের বাজার সঙ্কুচিত হচ্ছে, সেখানে জুনে সমাপ্ত প্রান্তিকে চীনে হুয়াওয়ে ফোনের সরবরাহ গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ৩১ শতাংশ বেড়েছে। অ্যান্ড্রয়েডের বিকল্প হিসেবে ফুশিয়া নামে একটি ওএস নিয়ে কাজ করছে গুগল। হুয়াওয়ের হংমেংকে এ ফুশিয়া অপারেটিং সিস্টেমের সাথে তুলনা করা হচ্ছে।

 


আরো সংবাদ

আয়কর আপিল ট্রাইব্যুনালে জেলা জজ নিয়োগ দেয়া হবে : আইনমন্ত্রী ডিআইজি প্রিজনস পার্থ গোপালের জামিন নাকচ খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে মৎস্যজীবী দলের মানববন্ধন দুর্নীতিগ্রস্ত ব্যাংক কর্মকর্তাদের তালিকা পাঠানোর নির্দেশ অধিক সার ব্যবহার পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর : কৃষি মন্ত্রী যথাযথ সেবা পেলে মানুষ কর দিতে উৎসাহিত হবে : এলজিআরডি মন্ত্রী নিরাপদ অভিবাসনের লক্ষ্য পূরণই আমাদের অঙ্গীকার প্রতিবন্ধীদের অধিকার সুরক্ষা আইন ২০১৩ বাস্তবায়নের আবেদন সাইটসের্ভাসের ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে আ’লীগের মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটির সম্মেলন করার নির্দেশ হাসপাতালে নবজাতক কন্যা ফেলে বাবা-মা উধাও ঢাবিতে ‘ইয়ুথ ইমপ্যাক্ট : আনলিশিং দ্য পাওয়ার অব ইয়ুথ’ শীর্ষক সেমিনার শুরু

সকল