২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮

স্ম র ণ : কবি রজনীকান্ত সেন

-

রজনীকান্ত সেন ছিলেন প্রখ্যাত কবি, গীতিকার ও সঙ্গীতশিল্পী। ১৮৬৫ সালের ২৬ জুলাই তৎকালীন পাবনা জেলার ভাঙ্গাবাড়ি গ্রামে তার জন্ম। বাবা গুরুপ্রসাদ সেন ছিলেন সঙ্গীতজ্ঞ। রজনীকান্ত কুচবিহার জেনকিন্স স্কুল থেকে এন্ট্রান্স, রাজশাহী কলেজ থেকে এফএ এবং কলকাতা সিটি কলেজ থেকে বিএ ও বিএল ডিগ্রি লাভ করেন। এরপরই তিনি রাজশাহী কোর্টে ওকালতি শুরু করেন। কিছু দিন তিনি নাটোর ও নওগাঁয় অস্থায়ী মুনসেফও ছিলেন। রজনীকান্ত শৈশব থেকেই বাবার কাছে সঙ্গীত শেখেন এবং মাত্র ১৫ বছর বয়সে সঙ্গীত রচনা করে কবিত্বশক্তির পরিচয় দেন। রাজশাহীতে ঐতিহাসিক অক্ষয়কুমার মৈত্রের বাড়িতে তিনি স্বরচিত গান পরিবেশন করতেন। সেখানকার ‘উৎসাহ’ নামে মাসিক পত্রিকায় তার রচনা প্রকাশিত হতো। তিনি ‘কান্তকবি’ নামে খ্যাত ছিলেন। তার রচিত গ্রন্থগুলো হলো : বাণী (১৯০২), কল্যাণী (১৯০৫), অমৃত (১৯১০), অভয়া (১৯১০), আনন্দময়ী (১৯১০), বিশ্রাম (১৯১০), সদ্ভাবকুসুম (১৯১৩), শেষদান (১৯১৬), পথচিন্তামণি এবং অভয় বিহার। ১৯১০ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর তার মৃত্যু হয় মাত্র ৪৫ বছর বয়সে। রজনীকান্তের গান ‘কান্তগীতি’ নামে পরিচিত। আধুনিক বাংলা গানের ইতিহাসে পঞ্চ গীতিকবির অন্যতম ছিলেন রজনীকান্ত। রবীন্দ্রপ্রভাবে প্রভাবিত হয়েও তিনি যে গানগুলো রচনা করেছেন তা স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্যে উজ্জ্বল।
রজনীকান্তের গানের মুখ্য বিষয় স্রষ্টার প্রতি ভক্তি। সরল সৌকর্যপূর্ণ শব্দের বুননে এই গানগুলো হৃদয় মথিত করা উপাদানে সমৃদ্ধ। তার প্রার্থনামূলক একটি বিখ্যাত গান : ‘তুমি, নির্মল কর, মঙ্গল করে মলিন মর্ম মুছায়ে ॥’ এতে মানুষের প্রাত্যহিক জীবনের ভুলভ্রান্তি, শোকতাপ এবং পাপ মোচনের আকুতি প্রকাশিত হয়েছে। তার আরো কয়েকটি জনপ্রিয় গান হলো : ‘আমি তো তোমারে চাহিনি জীবনে’, ‘কেন বঞ্চিত তব চরণে’, ‘আমায় সকল রকমে কাঙ্গাল করেছ’, ‘কবে তৃষিত এ মরু ছাড়িয়া যাইব’ প্রভৃতি। তার অনেক গানে দেশাত্মবোধ ও হাস্যরসের উপস্থিতিও লক্ষণীয়। রজনীকান্ত হাস্যরসাত্মক গান রচনায় উদ্বুদ্ধ হন দ্বিজেন্দ্রলাল রায়ের প্রভাবে। তার রচিত প্রেম ও প্রকৃতিবিষয়ক গানের সংখ্যাও কম নয়। রজনীকান্তের গান বাংলার মৌলিক সাঙ্গীতিক উপাদানে সমৃদ্ধ। তার গানে সহজ ভাবপূর্ণ কথার সাথে সুরের আবেদন শ্রোতাকে আকর্ষণ করে। পশ্চিমবঙ্গের প্রচারমাধ্যমগুলোতে তার গান নিয়মিত গীত হচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গীত বিভাগের পাঠ্যসূচিতেও কান্তগীতি অন্তর্ভুক্ত হয়েছে।

 


আরো সংবাদ

সকল