২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮

দৃষ্টিপাত : রাজধানীর সড়কে অবৈধ দখলদার

-

দীর্ঘ দিন ধরে রাজধানীর মিরপুর এক নম্বরের মূল সড়কের ওপরে কাঁচাবাজার, তদুপরি হকারদের দৌরাত্ম্য। সনি সিনেমা হলের পশ্চিম পাশ থেকে শুরু করে হজরত শাহ আলী বাগদাদী রহ:-এর মাজার পর্যন্ত সড়কের দুই পাশ অবৈধ বাজারে পরিণত হয়েছে। মুক্তিযোদ্ধা মার্কেট থেকে হজরত শাহ আলী রহ: গার্লস কলেজ পর্যন্ত সড়কের উত্তর পাশে কাঁচাবাজার আর দক্ষিণ পাশে হকারদের দোকান। মাঝেমধ্যে দেখা যায়, পুলিশ ও ম্যাজিস্ট্রেট মিলে দোকানপাট উচ্ছেদ করে দেয়। দুই দিন না যেতেই আবার বাজার বহাল তবিয়তে প্রতিষ্ঠা লাভ করে! গার্লস কলেজের গেট থেকে ১০ গজ পূর্বে বিদ্যুতের ট্রান্সমিটার। এখান থেকে অবৈধ সংযোগ দিয়ে হকাররা বিদ্যুৎ ব্যবহার করে চলছে। জানা গেছে, লাইনম্যানকে মাসোহারা দিয়ে এ কাজ বহাল রয়েছে। দোকানদারেরা প্রতিদিন বিদ্যুৎ বিল দিয়ে দেন ‘আদায়কারীর’ কাছে। কিন্তু তা সরকার কতটুকু পায়? মুক্তিযোদ্ধা মার্কেট থেকে উত্তর দিকে গুদারাঘাট পর্যন্ত মূল সড়কের দুই ধারে রিকশা-ভ্যানের অবৈধ গ্যারেজ। এলাকার মানুষের প্রশ্ন, দেশে কি কোনো সরকার আছে? যানবাহন চলাচলের রাস্তার অর্ধেকের বেশি দীর্ঘ দিন ধরে অবৈধ দখলদারদের বাজার, সেই সাথে ফুটপাথও অবৈধ দখলদাররা গ্রাস করে নিয়েছে। কর্তৃপক্ষের চোখে কি জনগণের দুর্ভোগের চিত্র কখনো চোখে পড়ে না?
অবৈধ বাজার যান চলাচলে বাধার সৃষ্টি করছে, পথচারীদের চলতে হচ্ছে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে, বিদ্যুৎ চুরি হচ্ছে চোখের সম্মুখে, সেখানে পুলিশ ও এমপিরা কেন স্থায়ীভাবে অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ করতে পারছেন না? সরকারের ক্ষমতার চেয়ে অবাধে দখলদারদের ক্ষমতা কি বেশি? প্রধানমন্ত্রী ইচ্ছে করলে গোয়েন্দাদের মাধ্যমে তথ্যটি সংগ্রহ করে ব্যবস্থা নিলে সাধারণ মানুষ উপকৃত হবে।
আবু তালেব মিয়া
কবি ও সমাজ সংস্কারক, ফরিদপুর


আরো সংবাদ