১৭ নভেম্বর ২০১৯

মন্ত্রী হলে কি মেনন এমন কথা বলতেন : কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের - ইউএনবি

মন্ত্রিত্ব পেলে মেনন নির্বাচন নিয়ে এমন কথা বলতেন কিনা বলে প্রশ্ন তুলেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। ‘একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জনগণ ভোট দিতে পারেনি’ আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ১৪ দলীয় জোটের শরিক ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেননের এমন বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় এই প্রশ্ন করেন তিনি।

মেননের এই বক্তব্যের বিষয়ে ১৪ দলের সমন্বয়কের কাছে জানতে চাওয়া হবে বলেও জানান ওবায়দুল কাদের।

রোববার সচিবালয়ে সমসাময়িক ইস্যুতে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোটের ব্যানারে অংশ নিয়ে নৌকা প্রতীকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন রাশেদ খান মেনন। তবে টানা তিনবার ক্ষমতায় থাকা মহাজোট সরকারের আগের আমলে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন এবং সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব সামলানো মেনন এবার কোনো মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পাননি।

গতকাল শনিবার বরিশালে ওয়াকার্স পার্টির জেলা সম্মেলনে ১৪ দলীয় জোটের অন্যতম নেতা রাশেদ খান মেনন বলেন, ‘আমি সাক্ষ্য দিচ্ছি গত নির্বাচনে জনগণ ভোট দিতে পারেনি।’

তিনি দাবি করেন, জনগণ এখন নির্বাচনে স্বাধীনভাবে ভোট দিতে পারে না।

মেননের এমন বক্তব্যের বিষয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী কাদের বলেন, ‘তিনি সিনিয়র নেতা। সবিনয়ে বলতে চাই, মন্ত্রী হলে তিনি কি এ কথা বলতেন?’

তিনি আরো বলেন, ‘সরকার বা দলের পক্ষ থেকে এ বিষয় নিয়ে মেননের সাথে আলাপ হয়নি। তিনি যা বলেছেন সেটি ‘মিস কোডেড’ হয়েছে কিনা সেটিও জানার বিষয়। তিনি যদি বলেই থাকেন তাহলে আমার প্রশ্ন হচ্ছে এতোদিন পড়ে, এই সময়ে কেন?’

মেননের বক্তব্যের বিষয়ে দলের পক্ষে জানতে চাওয়া হবে কি না- প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘১৪ দলের সমন্বয়ক নাসিম সাহেবের কাছে আমরা এ বিষয়ে জানতে চাইব। বিষয়টি নিয়ে দলীয়ভাবে আলাপ করব।’

আরেক প্রশ্নের জবাবে সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘মেনন তো মতিঝিলের ক্লাবের সভাপতি ছিলেন। তাকে জিজ্ঞাসা করলে ভাল হয়, যখন ক্যাসিনো বিরোধী অভিযান চলছে তখন কেন তিনি এমন মন্তব্য করলেন? নির্বাচনের পর কেন এসব বললেন না?’

কাদের সতর্ক করে বলেন, ক্যাসিনো কাণ্ডসহ কোনো অপরাধে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। অনেকের বিষয়ে খোঁজ নেয়া হচ্ছে, ব্যাংক অ্যাকাউন্ট জব্দ করা হয়েছে, বিদেশ যাওয়ায় নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে।

যু্বলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী আজকে গণভবনে দাওয়াত পেয়েছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর ইচ্ছার বাইরে গণভবনে কাউকে ডাকা হবে না। আমি বিষয়টি জানি না, যুবলীগ বলতে পারবে।’

যুবলীগের বয়সসীমা নির্ধারণের বিষয়ে কাদের বলেন, ‘যুবলীগের কোন বিষয়ে সংশোধন আসবে কিনা সেটা তাদের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী সিদ্ধান্ত হবে। আজকের বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী হয়তো দিক-নির্দেশনা দেবেন।

- ইউএনবি


আরো সংবাদ