২৩ নভেম্বর ২০১৯

আবরার নয়, হত্যা করা হয়েছে বাংলাদেশকে : রব

আবরার নয়, হত্যা করা হয়েছে বাংলাদেশকে : রব - ছবি : নয়া দিগন্ত

বুয়েটের মেধাবী ছাত্র আবরার ফাহাদ কে হত্যা করা হয়নি, বাংলাদেশকে হত্যা করা হয়েছে বলে মন্তব্য করে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নেতা, জেএসডি সভাপতি আসম আবদুর রব। তিনি বলেন, আবরারকে কেন হত্যা করা হয়েছে সেটি জানতে হবে। আবরার বাংলাদেশের স্বার্থ বিকিয়ে দিয়ে বিদেশের কাছে দেশের সম্পদ পানি, গ্যাস, সীমান্ত এগুলো বিলিয়ে দেয়ার জন্য যে চুক্তি হয়েছে সেগুলোর বিরুদ্ধে একটা পোস্ট দিয়েছে ফেসবুকে। আমরা শুধু আবরারের হত্যার বিচার চাইলে হবে না, তাকে কেন হত্যা করা হয়েছে সেটি জানতে হবে। এর মাধ্যমে একজন মানুষ হত্যা করা হয়নি পুরো জাতিকে হত্যা করা হয়েছে, পুরো দেশকে হত্যা করা হয়েছে। আমাদের উদ্দেশ্য কে ধ্বংস করা হয়েছে।

শুক্রবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের জহুর হোসেন হলে মুক্তিজোট আয়োজিত আলোচনাসভায় তিনি এসব কথ বলেন।

‘নির্বাচন কেন্দ্রীক সংকট সমাধানে জাতীয় ঐক্যের প্রয়োজন ও প্রাসঙ্গীকতা’ শীর্ষক এ আলোচনাসভায় সভাপতিত্ব করেন মুক্তিজোটের জাতীয় সমন্বয়ক এ আর শিকদার। প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আহবায়ক ড. কামাল হোসেন। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন জেএসডির সহসভাপতি তানিয়া রব, মুক্তিজোটের জাতীয় স্টিয়ারিং কমিটির প্রধান মো. সিরাজুল ইসলাম প্রমুখ।

রব বলেন, দেশে আইনের শাসন নেই। কোনো সরকার নেই। প্রশ্ন হতে পারে- সরকার নেই তাহলে দেশে চলছে কিভাবে। জবাব হচ্ছে- আমাদের নির্বাচন কমিশন তো নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করেছিল ৩০ ডিসেম্বর। কিন্তু সেদিন তো ভোট হয় নি। ভোট হয়েছে ২৯ ডিসেম্বর রাতে। তাহলে এটা কোন সরকার। এটা কার সরকার, জনগনের নির্বাচিত সরকার ? এটা কোন সরকারই না। এটা হলো ডাকাতের সরকার।

তিনি বলেন, দেশে উন্নয়নের গণতন্ত্রও শুনতে হচ্ছে। অথচ আজ পর্যন্ত এ নামে কোনো গণন্ত্রের নাম কোথাও শুনিনি। এখন উন্নয়নের জুয়াতন্ত্র চলছে। উন্নয়নের সন্ত্রাসতন্ত্র চলছে। রাষ্ট্রের সব প্রতিষ্ঠান আজ ধ্বংস। এই স্বৈরাচারী সরকার এক ব্যাক্তির ইচ্ছায় যা খুশি তাই করছে। এটা চলতে পারে না।

যুবলীগের সম্রাট কাকে কাকে ক্যাসিনোর টাকার ভাগ দিয়েছে তা মানুষ শুনতে চায় মন্তব্য করে এই ঐক্যফ্রন্ট নেতা বলেন, কেন তাকে গ্রেফতার করতে দেরি হলো? বাজারে অনেক গুজব আছে। অকে মন্ত্রী, শত শত এমপির নাম আছে। আপনারা দেশের মানুষকে সন্দেহের মধ্যে থাকতে দিবেন না, জিনিসটা পরিস্কার করেন। সম্রাট বলুক কাদের কাদের সে টাকা দিয়েছে। এটা আমরা জানতে চাই।

এসময় গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক ড. রেজা কিবরিয়া বলেন, বর্তমান সরকার মানুষের কাছে ঘৃনিত একটি সরকার। সবাই বলতে পারেন তাহলে তাদের বিরুদ্ধে মানুষ কেন রাস্তায় নামছেন না। গাদ্দাফি ও সাদ্দাম হোসেনের সময় মানুষ কতবার নেমেছে খোঁজ করেন। বাংলাদেশের সরকারও একটা অত্যাচারিত সরকার। তারা যে রাজনৈতিক সহিংসতা নিয়ে এসেছে তা ভাঙতে কষ্ট হবে, কিন্তু ভাঙা যাবে।

তিনি বলেন, দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেত্রী খালেদা জিয়াকে আজ কারাবন্দি রাখা হয়েছে সম্পূর্ণ অন্যায়ভাবে। তাকে নি:শর্ত মুক্তির দাবি জানাচ্ছি। একই সঙ্গে এটাও বলছি, আবরারের বাবা তার ছেলে হত্যার বিচার পাবে কিনা জানি না। কিন্তু আওয়ামী লীগের ১১ বছরে আমি আমার বাবার হত্যার বিচার পাইনি।

তিনি আরও বলেন, ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে আমরা গণস্বাক্ষর কর্মসূচি ঘোষণা করবো। যার নাম দেয়া হবে ‘রক্তের অক্ষরে শপথের স্বাক্ষর’। একদিন এদেশে গণতন্ত্র ফেরত আসবে- এই ওয়াদা আমি করছি।


আরো সংবাদ

আজানের মধুর আওয়াজ শুনতে ভিড় অমুসলিমদের (২৫৪৮৩)ধর্মঘট প্রত্যাহার : কী কী দাবি মেনে নিয়েছে সরকার (২০৯৩৪)মানবতাকে জয়ী করেছে পাকিস্তান : রাবিনা ট্যান্ডন (১৯৪৬৭)কম্বোডিয়ায় কাশ্মির ইস্যুতে বক্তব্য, প্রতিবাদ করায় ঘাড় ধাক্কা দিয়ে বের করা হলো বিজেপি নেতাকে (১৯১৮৮)ব্যাংকে ফোন দিয়ে তদবির করে ‘ছাত্রলীগ সভাপতি’ আটক (৯৮৭১)আবারো রুশ-চীনা অস্ত্র কিনবে ইরান, আশঙ্কা যুক্তরাষ্ট্রের (৯৭৬৩)৪ ভারতীয়কে জাতিসঙ্ঘের সন্ত্রাসী তালিকাভূক্ত করবে পাকিস্তান (৯৫৮৪)৩৫ বর্গ কিলোমিটার এলাকা নিয়ে নেপাল-ভারত তুমুল বিরোধ (৯৩৪৩)গৃহশিক্ষক বিয়েতে বাধা দেয়ায় ছাত্রীর আত্মহত্যা (৯০৫০)ইলিয়াস কাঞ্চনকে যে কারণে সহ্য করতে পারেন না বাস-ট্রাক শ্রমিকরা (৯০১৬)