১৯ নভেম্বর ২০১৯

হামলার পরদিন আবারো মধুর ক্যান্টিনে ছাত্রদল

হামলার পরদিন আবারো মধুর ক্যান্টিনে ছাত্রদল - নয়া দিগন্ত

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগের হামলার শিকার হওয়ার পরদিন মঙ্গলবার আবারো মধুর ক্যান্টিনে জড়ো হয়েছেন ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা। কয়েকদিন আগে শেষ হওয়া ছাত্রদলের কাউন্সিলে জয়ী এবং পরাজিত নেতারাও তাদের নেতাকর্মীসহ এসময় উপস্থিত ছিলেন।

মঙ্গলবার ঢাবি ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল শেষে মধুর ক্যান্টিনে গিয়ে তারা অবস্থান নেন। এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি চত্বরে জড়ো হন ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা। পরে সেখান থেকে সকাল ১১টার দিকে বিক্ষোভ মিছিল বের করে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে মধুর ক্যান্টিনে গিয়ে শেষ হয়।

ছাত্রদলের সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন এবং সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামলসহ কাউন্সিলের প্রার্থী কাজী রওনকুল ইসলাম শ্রাবণ, হাফিজুর রহমান হাফিজ, আমিনুর রহমান আমিন, মো: মামুন খান, সাইফ মাহমুদ জুয়েল, কারীমুল হাই নাইমসহ সংগঠনটির কয়েক’শ নেতাকর্মী মিছিলে অংশ নেন।

মধুর ক্যান্টিনে মিলিত হওয়ার পর সেখান থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রাব্বানীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন ছাত্রদলের নেতারা। এসময় সোমবার তাদের উপর ছাত্রলীগের হামলার বিষয়ে আলোচনা করেন বলে ছাত্রদলের অন্যান্য নেতারা জানিয়েছেন। একই সময় তারা ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার দাবি করেন।

সদ্য সমাপ্ত কাউন্সিলে ছাত্রদলের সভাপতি পদপ্রার্থী ছিলেন কাজী রওনকুল ইলাম শ্রাবণ। মাত্র ৮ ভোটের ব্যবধানে সভাপতি পদে ফজলুর রহমান খোকনের কাছে পরজিত হন তিনি। মঙ্গলবার ছাত্রদলের অন্যান্য নেতাকর্মীদের সাথে কাজী রওনকুল ইলাম শ্রাবণও মধুর ক্যান্টিনে উপস্থিত ছিলেন। তিনি বলেন, কাউন্সিলরদের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করে আমি ক্যাম্পাসে এসেছি। সবাই ঐক্যবদ্ধভাবে আমরা সংগঠনকে এগিয়ে নিতে চাই। নতুন কমিটি আমাদেরকে যথাযথ সম্মান করবেন বলে আশা করি।

ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের উপর সোমবার ছাত্রলীগের হামলার বিষয়ে কাজী রওনকুল ইলাম শ্রাবণ বলেন, ছাত্রলীগের মধ্যে অভ্যন্তরীণ দ্বন্দের বিষয়টি এখন স্পষ্ট। এটিকে ঢেকে দেয়ার জন্যই ছাত্রলীগ এই হামলা করেছে।


আরো সংবাদ