২০ অক্টোবর ২০১৯

দূর্নীতির বিরোধী অভিযানকে সর্বাত্মক সহযোগিতা দেবে জাপা : কাদের

দূর্নীতির বিরোধী অভিযানকে সর্বাত্মক সহযোগিতা দেবে জাপা : কাদের - ছবি : সংগৃহীত

সারাদেশে চলমান ক্যাসিনো বিরোধী অভিযানকে স্বাগত জানিয়ে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান, বিরোধী দলীয় উপনেতা জিএম কাদের এমপি বলেছেন, দুর্নীতির বিরুদ্ধে সরকারের এ অভিযানকে আমরা সমর্থন করি। এ অভিযানে জাতীয় পার্টি সর্বাত্মক সহযোগিতা দেবে।

রোববার জাতীয় পার্টির বনানীর কার্যালয়ের মিলনায়তনে খুলনা বিভাগীয় সাংগঠনিক টিমের সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি দলের এ সমর্থনের কথা জানান। জাতীয় পার্টির খুলনা বিভাগীয় সাংগঠনিক টিমের আহ্বায়ক ও জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য সাহিদুর রহমান টেপার সভাপতিত্বে এবং টীমের সদস্য সচিব ও প্রেসিডিয়াম সদস্য সুনীল শুভ রায়ের পরিচালনায় সভায় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ দিদার বখ্ত, যুগ্ম মহাসচিব শফিকুল ইসলাম মধু, সাংগঠনিক সম্পাদক শরিফুল ইসলাম সরু, শেখ মাতলুব হোসেন লিয়ন, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক এবিএম লিয়াকত হোসেন চাকলাদার, সাতক্ষিরা জেলার সভাপতি আজহার উদ্দিন, নড়াইল জেলার সভাপতি এ্যাড. ফায়েকুজ্জামান ফিরোজ, ঝিনাইদহ জেলা সভাপতি সাবেক এমপি নুরদ্দিন, বাগেরহাট জেলা সভাপতি হাবিবুর রহমান, কুষ্টিয়া জেলা সভাপতি নাফিস আহমেদ খান টিপু, সাধারণ সম্পাদক শাহারিয়ার জামিল জুয়েল, মেহেরপুর জেলা সাধারণ সম্পাদক সাইফুল সেলিম, খুলনা মহানগর সভাপতি শওকত প্রমুখ নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।

জিএম কাদের বলেন, আওয়ামী লীগের সঙ্গে আমাদের নির্বাচনকালীন একটি সমঝোতা হয়েছিল। সমঝোতায় দুর্নীতি, অন্যায়, অনিয়মের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতিতে দেশ পরিচালনা করা হবে। ইতোমধ্যেই প্রধানমন্ত্রী তার নিজ দলের অন্যায়, অনিয়ম ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করেছে। বিরোধী দল হিসেবে জাতীয় পার্টি এই অভিযানের সর্বাত্মক সমর্থন করে এবং স্বাগত জানায়। তিনি বলেন, সঠিক ও অত্যন্ত শক্তিশালী নেতৃত্বে শেখ হাসিনা দেশের সবচেয়ে বড় সমস্যা দুর্নীতি ও অনিয়মের সমস্যা দূর করবেন। আমরা ওনাকে কথা দিতে চাই, জাতীয় পার্টির তরফ থেকে তার এ প্রচেষ্টায় সব সময় তার পাশে থাকবে। তাকে সর্বাত্মক সহযোগিতা করবে। আমরা যখন যেভাবে পারি, যেভাবে ওনারা চাইবেন, সেভাবে এ কর্মকান্ডকে সাফল্যমন্ডিত করার জন্য আমরা সহযোগিতা করব। কলাবাগান ক্লাবে ক্যাসিনো পরিচালনায় জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য ও জাপার মহানগর উত্তরের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম সেন্টুর নাম উঠে এসেছে- এ বিষয়ে জানতে চাইলে জি এম কাদের বলেন, এ বিষয়ে পরে কথা বলব।

জাপা চেয়ারম্যান বলেন, আগামী ২৮ ডিসেম্বর ঢাকায় জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হবে। তার আগে বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় জাতীয় পার্টির কমিটিগুলোকে ঢেলে সাজাতে হবে। তবে তৃণমূলে দলের অবস্থা যে শোচনীয়,তা এ সভায় স্বীকার করে জি এম কাদের বলেন, অনেক জায়গায় আমাদের পূর্ণাঙ্গ কমিটির মেয়াদ ফুরিয়েছে। প্রায় জায়গায় সমস্যা আছে, বিশৃঙ্খলা আছে। কাউন্সিলের আগে এসব গুছিয়ে নিতে না পারলে সংগঠনকে সার্বিকভাবে শক্তিশালী করতে পারব না আমরা। দলের কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্ত যারা মেনে নেবে না, তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, দলে যারা দ্বন্ধে জড়িয়েছেন, শৃঙ্খলা ও ঐক্যের স্বার্থে তাদের মীমাংসা করতে বলব। তবে যুক্তি তর্কের পরেও যারা একমত হবেন না, তাদের বিষয়ে আমি কঠিন হব। জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কাউন্সিলে দলটির গঠনতন্ত্র সংশোধনের আভাস দিয়ে জি এম কাদের বলেন, আমরা নতুন ধারায় অগ্রসর হতে যাচ্ছি। সামনের দিকে গঠনতন্ত্র সংস্কার ও সংশোধন করতে হলে, যা করতে হবে, তা করব।

বিরোধী দলীয় উপনেতা বলেন, সত্যিকারভাবে জনগণের প্রত্যাশা পূরণ করতে হলে এমন কাজ করতে হবে, যে কাজে জনগণ আমাদের উপর আস্থা রাখবে ও বিশ্বাস করবে। সাংগঠনিক কর্মকান্ড শক্তিশালী, সুসংগঠিত, শৃঙ্খলিত ও একত্রিতভাবে কাজ করলে মানুষের আস্থা অর্জনে আমরা সক্ষম হবো এবং জাতীয় রাজনীতিতে শূন্যতা ও অস্থিরতা পূরণ করা সম্ভব হবে।

নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে জি.এম কাদের বলেন, আমাদের প্রিয় নেতা পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের অসমাপ্তকাজ আমরা শেষ করবো। সেই লক্ষ্যে বিভাগীয় সাংগঠনিক টিম গঠন করা হয়েছে এবং প্রতিটি জেলায় সমস্যার সমাধান করার জন্য, আলাপ-আলোচনার ভিত্তিতে জেলা কমিটিকে শক্তিশালী ও সুসংগঠিত করে নতুন করে কাউন্সিলের মাধ্যমে কমিটি করা হবে।


আরো সংবাদ




portugal golden visa
paykwik