১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ডেঙ্গু মোকাবেলায় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কাউন্সিল গঠনের দাবি ইনুর

ডেঙ্গু মোকাবেলায় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কাউন্সিল গঠনের দাবি ইনুর - নয়া দিগন্ত

ডেঙ্গু মোকাবেলায় জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কাউন্সিল গঠনের দাবি জানিয়েছেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল- জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু। তিনি বলেন, ডেঙ্গু মোকাবেলায় এই জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কাউন্সিল গঠন করা সময়ের দাবি। বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ পার্টির কার্যালয়ের কর্নেল তাহের মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলন করে ইনু তিনি এ দাবি জানান।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য উপস্থাপন করেন দলের সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার। সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন দলের সভাপতি ও সাবেক তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু।

কেন ডেঙ্গুকে জাতীয় বিপদ, দুর্যোগ হিসাবে চিহ্নিত করে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কাউন্সিল গঠনের প্রস্তাব করছেন- সাংবাদিকদের এ প্রশ্নের জবাবে ইনু বলেন, যেহেতু ডেঙ্গুর ব্যাপকতা বেড়েছে, ডেঙ্গু ঢাকার বাইরেও ছড়িয়ে পড়েছে, যেহেতু ডেঙ্গুর প্রকোপ প্রলম্বিত হবার আশংকা দেখা দিয়েছে, যেহেতু আগাম সতর্কতার পরও ডেঙ্গু মোকাবেলার প্রস্তুতি ও সক্ষমতায় ঘাটতি রয়েছে তাই শুধুমাত্র ঢাকার দুইটি সিটি কর্পোরেশন ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের উপরে দায়িত্ব ছেড়ে না দিয়ে জাতীয় ভিত্তিতে সমন্বিতভাবে ডেঙ্গু মোকাবেলায় এই জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কাউন্সিল গঠন করা এখন সময়ের দাবি।

আরেক প্রশ্নের উত্তরে ইনু বলেন, ডেঙ্গু পরিস্থিতি মোকাবেলায় এখন পর্যন্ত যতটুকু হয়েছে তা যথেষ্ট নয়, সমন্বিতও নয়। ইনু আরো বলেন, ঢাকা দুই মেয়রকে পদত্যাগ করানোর চাইতেও এখন জরুরি গাফিলতি ব্যর্থতা ঝেড়ে ফেলে কাজ করা।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মীর হোসাইন আখাতর, সহ-সভাপতি ফজলুর রহমান বাবুল, স্থায়ী কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট হাবিবুর রহমান শওকত, নুরুল আকতার, সহ-সভাপতি সফি উদ্দিন মোল্লা, শহীদুল ইসলাম, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শওকত রায়হান, নইমুল আহসান জুয়েল এবং সহ-দফতর সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন প্রমূখ।

লিখিত বক্তব্যে শিরীন আখতার বলেন, ঢাকা ও ঢাকার বাইরে প্রায় সব জেলায় ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা দিনেদিনে বৃদ্ধি পাচ্ছে। ঢাকা ও ঢাকার বাইরের জেলাগুলোতে ডেঙ্গুতে মানুষের দুঃখজনক মৃত্যুর ঘটনা ঘটছে। খোদ রাজধানীতেই ডেঙ্গুর চিকিৎসা সেবার অপ্রতুলতা ও হিমশিম অবস্থা চলছে। ঢাকার বাইরে ডেঙ্গু চিকিৎসার প্রয়োজনীয় সামর্থের অভাব পরিলক্ষিত হচ্ছে। ঢাকায় এডিস মশার বিস্তার প্রতিরোধে এখনো কার্যকর কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। বরং এ ক্ষেত্রে গাফিলতি ও ব্যর্থতা এখনো কাটিয়ে উঠেনি।

দুর্ভাগ্যজনকভাবে মানুষের বিপদকে পুজি করে কিছু বেসরকারী হাসপাতালে চিকিৎসা সেবার নামে ডাকাতি এবং মশা মারার স্প্রে, ঔষধ নিয়ে মজুতদারী ব্যবসা শুরু হয়েছে। মানুষের মধ্যে হতাশা, আতংক, উদ্বেগ বেড়েই চলেছে।


আরো সংবাদ