২১ আগস্ট ২০১৯

প্রস্তাবিত বাজেট জনবান্ধব : জাপা

জাতীয় পার্টির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের এমপি বলেছেন, ২০১৯-২০ সালের প্রস্তাবিত বাজেট জনবান্ধব হয়েছে। তবে সংশোধনীতে হতদরিদ্র, তরুণ ও বেকারদের কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে বরাদ্দ যেন কাটছাঁট না হয়।

তিনি বলেন, শেয়ার বাজারে শৃংখলা আনতে বিদ্যমান আইন যথাযথভাবে প্রয়োগ করতে হবে। বাজেটে সামাজিক নিরাপত্তা, স্বাস্থ্য সেবায় বরাদ্দ বৃদ্ধি, কৃষিতে প্রণোদনা এবং ভর্তুকি আরো বাড়াতে তিনি সরকারের প্রতি আহবান জানিয়েছেন।

শনিবার জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যানের বনানী কার্যালয়ে ২০১৯-’২০ অর্থ বছরের প্রস্তাবিত বাজেটের উপর দলের পক্ষ থেকে প্রতিক্রিয়া জানাতে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ আহ্বান জানান।

এসময় পার্টির মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গা এমপি বলেন, প্রবাসীদের প্রণোদনা দেয়ায় রেমিট্যান্স বৃদ্ধি পারে। কৃষকদের লাভবান করতে উদ্যোগ নিতে হবে। ব্যাংক সুদের হার সিঙ্গেল ডিজিটে এলে হত দরিদ্র মানুষের অর্থনৈতিক নিরাপত্তা নিশ্চিত হবে। তিনি বাজেটকে ব্যবসা বান্ধব করতে সরকারের প্রতি আহবান জানান। কর্মসংস্থান এবং দক্ষ জনশক্তি সৃষ্টিতে ড্রাইভিং শিখাতে প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলতেও তিনি সরকারের প্রতি আহবান জানান।

এসময় জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা এমপি, এ্যাড. রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া, আলমগীর সিকদার লোটন, একরাম হোসেন মিয়া, কেন্দ্রীয় নেতা আশরাফ উদ দৌলা, এ্যাড. নুরুল আজহার, অধ্যাপক ইকবাল হোসেন রাজু, জহিরুল ইসলাম জহির, জহিরুল আলম রুবেল, মোস্তাকুর রহমান মোস্তাক, শফিকুল ইসলাম শফিক, গোলাম মোঃ রাজু, শফিকুল ইসলাম মধু, হাসিবুল ইসলাম জয়, মনিরুল ইসলাম মিলন, আমির উদ্দিন আহমেদ ঢালু, সুলতান আহমেদ, খোরশেদ আলম খুশু, আহাদ চৌধুরী শাহীন, এম.এ. রাজ্জাক খান, সুজন দে, আবু তৈয়ব, মাখন সরকার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


আরো সংবাদ




bedava internet