১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯

জাতীয় নির্বাচন হয়েছে নির্যাতন কমিশনের অধীনে

জাতীয় নির্বাচন হয়েছে নির্যাতন কমিশনের অধীনে - সংগৃহীত

দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই-দিতে হবে এ শ্লোগানে সাবেক রাষ্ট্রপতি, বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান, মহান স্বাধীনতার ঘোষক, বহুদলীয় গনতন্ত্রের প্রবক্তা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান এর ৩৮ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা, দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার বিকেলে চাঁদপুর শহরের জে এম সেন গুপ্ত রোডের মুনিরা ভবনে জেলা বিএনপির আয়োজনে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির যুগ্ম মহাসচিব অ্যাড. সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল।

তিনি তার বক্তব্যে বলেন, তাকওয়ার উপর ভিত্তি করে আমরা রমজান মাসে রোজা রাখি। জন্ম হলো দূর্ঘটনা, আর মৃত্যু হলো ঘটনা। জীবন মৃত্যুর মধ্যবর্তী সময়ে আমরা সদকা জারিয়া হিসেবে বিভিন্ন কাজ করি। আল্লাহ তা’লা জনগনের আশিবার্দ হিসেবে জিয়াউর রহমানকে পাঠিয়েছিলেন। যারা মুক্তিযুদ্ধের কথা বলে মুখে ফেনা তুলে তারা আজ ভারপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা। আজকে তারা সত্যকে চাপা দিতে চায়। তিনি বলেন, আজকে কৃষক তার ন্যায্যমূল্য পাচ্ছে না। ৩ বছরের শিশু থেকে ৭০ বছরের মহিলাও ধর্ষিত হচ্ছে।

আওয়ামীলীগ এ দেশে কৃত্রিম দূর্বিক্ষের সৃষ্টি করছে। ভোট জিনিসটা আওয়ামীলীগ নষ্ট করে দিয়েছে। যে কমিশনের আদলে জাতীয় নির্বাচন হয়েছে তা নির্বাচন কমিশন ছিল না, ছিল নির্যাতন কমিশন। টেলিভিশনে এখন আর বিনোদনের অনুষ্ঠান দেখা লাগে না, আওয়ামীলীগ নেতাদের বিনোদন দেখলেই হয়। বাংলাদেশে এখন আর প্রতিবাদ হয় না। দেশটাকে বাকশালের দিকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। আওয়ামীলীগ ছিনতাইকারী রাজনীতি দল। অন্যের কৃতিত্ব নিজের নামে চালিয়ে দেয়। তারেক রহমানের নেতৃত্বে আগামী আন্দোলন সংগ্রাম ঘোষনা হলে আমরা একত্রিত হয়ে কাজ করব।

চাঁদপুর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক শেখ ফরিদ আহম্মেদ মানিক এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বিএনপি কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির ব্যাংকি ও রাজস্ব বিষয়ক সম্পাদক ও সাবেক এমপি লায়ন হারুনুর রশিদ, কুমিল্লা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাক আহাম্মেদ, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আঃ আউয়াল খান, বিএনপি কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য কাজী রফিক, বিএনপি কেন্দ্রীয় নেতা এম এ হান্নান, জেলা বিএনপির সাবেক আহ্বায়ক সফিউদ্দিন আহাম্মেদ, জেলা বিএনপির সাবেক সাধারন সম্পাদক আব্দুল হামিদ মাষ্টার।

জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাড. সলিম উল্ল্যাহ সেলিম এর পরিচালনায় জেলা বিএনপির য্গ্মু আহ্বায়ক মাহবুব আনোয়ার বাবলু, দেওয়ান শফিকুজ্জামান, মুনির চৌধুরী, আক্তার মাঝি, অ্যাড. হারুনুর রশিদ, জেলা গন ফোরাম সভাপতি অ্যাড. সেলিম আকবর, সদর উপজেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক অ্যাড. শামসুল ইসলাম মন্টুসহ ২০ দলীয় জোট ও বিএনপির অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। পর দেশ ও জাতীর শান্তি কামনায় দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করেন বেগম জামে মসজিদের খতিব মুফতি মাহবুবুর রহমান। ইফতার মাহফিল পূর্বে কোরআন তেলওয়াত করেন জেলা ওলামা দলের সাধারন সম্পাদক হাফেজ জাকির হোসেন মৃধা। সভায় বিএনপির অঙ্গ সংগঠনের শত শত নেতা কর্মী ও সমর্থক অংশ নেয়।


আরো সংবাদ