২০ আগস্ট ২০১৯

দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে সরকার ব্যর্থ : রিজভী

রুহুল কবির রিজভী - ছবি : সংগৃহীত

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, অল্প আয়ের মানুষরা রমজানের আগে আঁতকে উঠছে হু হু করে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের এই মূল্য বৃদ্ধিতে। পবিত্র রমজানের প্রাক্কালে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ সরকারকে ধিক্কার জানাই।

আজ বুধবার সকালে নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

রিজভী বলেন, দেশে অনাচার-বিচারহীনতা, নারী-শিশু নির্যাতনসহ অপরাধ ও নিয়ম বহির্ভূত আচরণ এক ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ করেছে। এতে ভেঙে পড়েছে সমাজের বন্ধন। আর এই ভেঙে পড়ার কারণেই নৈরাজ্য চরম আকার ধারণ করেছে। অপরাধপ্রণতার এই বেপরোয়া রূপের একমাত্র কারণ ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীদের দখল ও লুটের ক্ষুধার অতিমাত্রার আতিশয্য। শুধু মানুষের সহায়-সম্পত্তিই নয়, এরা নারীদের ওপরও ঝাঁপিয়ে পড়ছে আদিম বর্বরতার চেতনা ধারণ করে।

তিনি বলেন, ক্ষমতাসীনদের সত্তা যদি হয় অবৈধ, সরকারের গঠন যদি হয় জনসম্মতিহীন তাহলে সেখানে শুধু রাজনৈতিক নয়, সামাজিক অপরাধপ্রবণতাও বৃদ্ধি পাবে জ্যামিতিক হারে। বর্তমান সরকারের সেই স্বরূপের কারণেই বাংলাদেশে ধর্ষণ, হত্যা ও অপহরণ বাড়ছে। শিক্ষকের দ্বারা ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনা বাংলাদেশে এক বিভৎস চেহারায় আবির্ভূত হয়েছে। এ সামাজিক অপরাধের পেছনে যারা জড়িত তারা অধিকাংশই ক্ষমতাসীন দলের লোক। কিন্তু এরা ক্ষমতার শীর্ষে বসা লোকজনদের আনুকুল্য পাচ্ছে।

রিজভী বলেন, বর্তমানে সংঘটিত পৈশাচিক অপরাধগুলোতে ক্ষমতাসীন দলের জড়িত নেতাকর্মীদের শাস্তি দূরে থাক, এরা রেহাই পাচ্ছে এজন্য যে, রাষ্ট্রীয় বিভিন্ন আইনসম্মত প্রতিষ্ঠান-যারা অপরাধ দমন করবে তাদের দিয়েই গণতন্ত্র হত্যা, ভোট লুন্ঠন ও বিরোধী দলের নেতাকর্মীদেরকে গুম-খুন করানো হয়েছে, সুতরাং এজন্যই সরকারের নিজেরই অপরাধ দমনের কোনো নৈতিক শক্তি নেই।

নির্বাচন কমিশন, প্রশাসন, পুলিশ, আইন সবই সরকারের আজ্ঞাবাহী। এরা বেআইনী কার্যক্রম অবাধে চালাতে লাইসেন্স পেয়েছে সরকারের কাছ থেকে। যুক্তি, মানবতা ও আইনসম্মত আচরণের বদলে অনাচারে লিপ্ত দলীয় সন্তানরা সরকারের সর্বোচ্চ জায়গা থেকে সবসময় উস্কানি পেয়েছে।

খবরের কাগজ খুললেই নারী নির্যাতন, শিশু নির্যাতন, লাশ আর মৃত্যুর হাতছানি।

তিনি জানান, লক্ষীপুরের দগ্ধ তরুণীর মৃত্যু, চট্টগ্রামের লোহাগড়ায় হাত-পা বেঁধে স্কুল ছাত্রীকে নির্যাতন, নোয়াখালীর সেনবাগে স্কুল ছাত্রীকে আটকিয়ে রেখে নির্যাতন, ঝালকাঠিতে স্কুল ছাত্রীর লাশ উদ্ধারের সংবাদে গতকালের গণমাধ্যম পরিপূর্ণ। বর্তমান সময়ে সবচেয়ে বিপজ্জনক অবস্থায় বসবাস করছে কিশোরী-তরুণী-ছাত্রীরা।

রক্তঝরা ঘটনাগুলোর মধ্যে সবচেয়ে লোমহর্ষক ঘটনা গত ১৯ এপ্রিল -ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুরে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি বাশারের নেতৃত্বে একদল সশস্ত্র ব্যক্তি এলাকার দরিদ্র মানুষ কালা মিয়ার পা কেটে নেয়। শুধু এখানেই ক্ষান্ত হয়নি, কালা মিয়ার পুত্র বিপ্লবের দু’পায়ের রগও কেটে দিয়েছে। প্রথমে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার দলবল কালা মিয়া ও তার ছেলেকে ধরে নিয়ে গিয়ে তাদের পায়ে টেটা বিদ্ধ করে এরপর কালা মিয়াকে মাটিতে ফেলে দিয়ে কয়েকজন তার পা চেপে ধরে চাপাতি দিয়ে হাঁটু বরাবর কুপিয়ে পা আলগা করে দেয়।

এ ঘটনায় শিউরে উঠেছে দেশবাসী। থানার ওসি বলেছে, অনেক বড় এলাকা। কালা মিয়ার কর্তনকৃত পা খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। কালা মিয়ার স্ত্রী জানিয়েছেন-স্বেচ্ছাসেবক লীগের সেই সহ-সভাপতির ভয়ে তারা গ্রাম ছেড়ে ঢাকায় চলে গিয়েছিল। পুলিশ দুষ্কৃতিকারীদের টিকিটিও এখন পর্যন্ত ছুঁতে পারেনি। এ পৈশাচিক ঘটনা বিচারের মুখ দেখবে কি কোনোদিন?

রিজভী আরো বলেন, মধ্যরাতের ভোটের পর আওয়ামী সংগঠনগুলো এখন বেপরোয়া, মনুষ্যত্বহীন, লাগামহীন, উদ্ধত এক মূর্তিমান আতঙ্ক। এদের কারণে বাংলাদেশে এখন ঘাতক ও মৃত্যুরই সহাবস্থান। দেশের সমগ্র জনগোষ্ঠীর জীবনই এখন অন্তিমলগ্নে। নাগরিক স্বাধীনতা ভাসমান উচ্ছিষ্টে পরিণত হয়েছে। স্বাধীনতা শুধু ক্ষমতাসীন দলের ক্যাডারদের। আওয়ামী রাজনীতির যাঁতাকলে প্রতিনিয়ত নিষ্পেষিত হচ্ছে গণতন্ত্রকামী মানুষ, ভিন্নমতের মানুষ, মত প্রকাশের স্বাধীনতার পক্ষের মানুষ ও তাদের সদিচ্ছা ও সৎ প্রচেষ্টা।

বিএনপির এই শীর্ষ নেতা বলেন, এ সরকারের রাজমুকুটে শোভা পাচ্ছে-বিরোধী মতের মানুষদের রহস্যময় অন্তর্ধান, গুম ও বিচার-বহির্ভূত হত্যা। মধ্যরাতের ভোটের সরকারের প্রভাবেই সমাজে অপরাধপ্রবণতা বিশ্বের সকল দৃষ্টান্তকে অতিক্রম করেছে। বাংলাদেশ এখন দুঃশাসনের দোযখ। আওয়ামী শাসকগোষ্ঠী এখন রক্ত-উৎসব পালন করছে।

দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি প্রসঙ্গে তিনি বলেন মিডনাইট ভোটের সরকারের মন্ত্রীরা যা বলেন, সাথে সাথে তার উল্টোটা ঘটে। কদিন আগে বাণিজ্যমন্ত্রী ঘটা করে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ঘোষণা করেছিলেন, রমজানকে সামনে রেখে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের দাম বাড়বে না। তার পরদিনই হু হু করে দাম বেড়েছে প্রায় সব পণ্যের।

গত সপ্তাহের শেষ দিন বৃহস্পতিবারেও পেয়াজের দাম প্রতি কেজি বিক্রয় হয় ২৫ টাকায়। এর এক সপ্তাহ আগে বিক্রয় হয় ২০ টাকায়। গতকাল সবকটি বাজারে প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ২৬ থেকে ২৭ টাকায়। একইভাবে এক সপ্তাহ আগে প্রতি কেজি রসুন বিক্রয় হয়ছিল ৮০ টাকায়। এখন তা বেড়ে প্রতি কেজি বিক্রয় হচ্ছে ১২০ টাকায়। আলু প্রতি কেজি ১৬ টাকা থেকে বেড়ে বিক্রয় হচ্ছে ২০ টাকায়। প্রতি কেজি চিনি ৫২ টাকা থেকে বেড়ে বিক্রয় হচ্ছে ৫৬ টাকায়। প্রতি লিটার সয়াবিন তেল ৯০ টাকা থেকে বেড়ে বিক্রয় ৯৮ টাকায়। এভাবে বেড়েছে ছোলা, ডাল, আদা, ময়দা, কাঁচামরিচসহ সবরকম নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য। যা কিনতে গিয়ে হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছেন ক্রেতারা। মানুষের জীবনে নাভিশ্বাস উঠেছে।

তিনি বলেন, অবৈধভাবে যারা ক্ষমতায় থাকে তারা কখনোই জনস্বার্থ দেখে না, জনকল্যাণ করতে পারে না। সারা ঢাকা শহরে ওয়াসার দূষিত পানির সরবরাহে জনজীবন এখন ভয়ঙ্কর রকম সংকটাপন্ন হয়ে পড়েছে। ওয়াসা কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে নির্বিকার। বাড়িতে বাড়িতে টাইফয়েড, ডায়রিয়া, জ্বর মহামারী আকার ধারণ করেছে। এখন মরার ওপর খাঁড়ার ঘা’র মতো গরীব মানুষদের অবস্থা। একদিকে আনাজ-পাতির অগ্নিমূল্য, অন্যদিকে দূষিত পানি জনজীবনকে করে তুলেছে দুর্বিষহ।

ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক নিজে ওয়াসার পানি পান করেন না, অথচ তিনি বলছেন, ওয়াসার পানি ১০০ ভাগ বিশুদ্ধ। অবৈধ সরকার নিজে টিকে থাকার জন্য সারা জাতিকেই অসুস্থ বানাতে উঠে পড়ে লেগেছে। আমরা সরকারি প্রতিষ্ঠান ওয়াসার মানববিধ্বংসী নীতির তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং অবিলম্বে বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ নিশ্চিত করার আহবান জানাচ্ছি।

রিজভী আরো বলেন, পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জ ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ড বিএনপি সভাপতি আজিম নেগাবান এবং যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাসিরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আমি তাদেরকে গ্রেফতারের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং অবিলম্বে তাদের নিঃশর্ত মুক্তির জোর দাবি করছি।


আরো সংবাদ

কাশ্মির সীমান্তে পাকিস্তানি সেনাদের গুলিতে ভারতীয় সেনা নিহত জঙ্গলে আলিঙ্গনরত পরকীয়া জুটির বজ্রপাতে মৃত্যু একনেকে তথ্য ভান্ডার সুরক্ষাসহ ১২ প্রকল্পের অনুমোদন ‘সোনার বাংলা বিনির্মাণে বঙ্গবন্ধুর অসম্পূর্ণ কাজগুলো সম্পন্ন করে যাচ্ছেন কন্যা শেখ হাসিনা’ স্বদেশে ফিরতে চায় না রোহিঙ্গারা বঙ্গবন্ধু জাতিকে সোনার বাংলা উপহার দিয়ে গেছেন : ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী হামলা, মামলা, গ্রেফতারের মাধ্যমে সরকার টিকে থাকতে চায় : রিজভী ৩য় শ্রেণীর ছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা, অভিযুক্ত ধর্ষকের রহস্যজনক... দ্বিতীয় বিয়ে করেছেন দ্য রক কাশ্মির সঙ্ঘাতের মাঝেও পাকিস্তানি বর ও ভারতীয় বধুতে বিয়ে সম্পন্ন গফরগাঁওয়ে পঞ্চম শ্রেণীর শিক্ষার্থী ধর্ষিত

সকল

স্ত্রীর ছলচাতুরীতে ফতুর প্রবাসী স্বামী (৩৬৭২৪)পুলিশ হেফাজতে বাসর রাত কাটলেও ভেঙ্গে গেল বিয়ে (২৩৯০৭)ইমরানকে ‘পেছন থেকে ছুরি মেরেছেন’ মোদি (২১৩৩১)ভারতের পরমাণু অস্ত্রভাণ্ডার এখন ফ্যাসিস্ট মোদির হাতে : ইমরান খানের হুঁশিয়ারি (১৭৪৫৮)সন্ধ্যায় বাবার কিনে দেয়া মোটর সাইকেল সকালে কেড়ে নিল ছেলের প্রাণ (১৪৯৫২)নুরকে ‘খালেদা জিয়ার মতো পরিণতির’ হুমকি (১৩৯০০)স্বামীর সাথে ঘুরতে বেরিয়ে ধর্ষণের শিকার গৃহবধূ, ধর্ষক আটক (১২৫৭৯)সীমান্তে ফের পাল্টাপাল্টি গুলি, দুই ভারতীয় সেনাসহ নিহত ৪ (১১৩১৮)ব্যাগে টাকা আছে ভেবে শারমিনকে হত্যা করে রিকশা চালক রাজু উড়াও (১০৯৫০)গ্রীনল্যান্ড বিক্রির প্রস্তাব হাস্যকর : ড্যানিশ প্রধানমন্ত্রী (১০৫২৩)



bedava internet