১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯

খালেদা জিয়ার প্যারল ও সংসদ নিয়ে যা ভাবছে বিএনপি

প্যারোল ও সংসদ নিয়ে ভাবছে না বিএনপি - সংগৃহীত

প্যারোলে নয়, জামিনে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি চায় বিএনপি। ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচনের মধ্য দিয়ে গঠিত সংসদেও দলটির যাওয়ার কোনো আগ্রহ নেই। দলের নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের একাধিক নেতার সাথে কথা বলে এ তথ্য জানা গেছে। 

রাজনৈতিক অঙ্গনে গুঞ্জন রয়েছে, অসুস্থ বেগম খালেদা জিয়া প্যারোলে মুক্তি পাচ্ছেন। এ নিয়ে পর্দার অন্তরালে এক ধরনের সমঝোতাও চলছে। যে সমঝোতার অংশ হিসেবে একাদশ জাতীয় নির্বাচনে বিএনপির নির্বাচিতরা সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নেবেন। 

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বর্তমানে বঙ্গবন্ধু মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। গত ১ এপ্রিল তাকে পুরান ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে বিএসএমএমইউতে ভর্তি করা হয়। বেগম খালেদা জিয়া দীর্ঘ দিন ধরেই অসুস্থ। চিকিৎসকদের ভাষ্য অনুযায়ী- তার পুরো শরীর ব্যথায় আক্রান্ত। অন্যের সাহায্য ছাড়া তিনি নড়াচড়া করতে পারেন না। পাশাপাশি ডায়াবেটিসসহ নানা রোগে ভুগছেন ৭৭ বছর বয়স্ক সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী। 

জানা গেছে, অসুস্থতা সত্ত্বেও বেগম খালেদা জিয়া বিএসএমএমইউতে চিকিৎসা নিতে রাজি ছিলেন না। তার আগ্রহ ছিল বিশেষায়িত হাসপাতাল ইউনাইটেডে চিকিৎসা নেয়ার। তার এই অনীহার কারণে মার্চের মাঝামাঝিতে কারা কর্তৃপক্ষ একবার তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসার উদ্যোগ নিয়েও সফল হয়নি। অন্য দিকে খালেদা জিয়া অসুস্থ হয়ে পড়ায় বিএনপিতেও উদ্বেগ বাড়তে থাকে। এরিই একপর্যায়ে দলের সিনিয়র দু’জন নেতা কারাগারে গিয়ে খালেদা জিয়ার সাথে সাক্ষাৎ করেন। তারা খালেদা জিয়াকে বোঝানোর চেষ্টা করেন, যেখানেই হোক এই মুহূর্তে তার চিকিৎসা খুবই প্রয়োজন। নেতাদের এই সাক্ষাতের পরই বিএসএমএমইউতে আসতে রাজি হন তিনি। 

বিএনপির নেতারা বলেছেন, তারা খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা নিশ্চিত করতে চাইছেন। তার চিকিৎসায় মেডিক্যাল বোর্ড রয়েছে। সেই মেডিক্যাল বোর্ড যেভাবে সুপারিশ করবেন, সেভাবেই তার চিকিৎসা হবে। তারা যদি মনে করেন, বাংলাদেশে খালেদা জিয়ার চিকিৎসা সম্ভব নয়, প্যারোলে মুক্তি নিয়ে বিদেশে চিকিৎসা নিতে হবে, তাহলে সেটি বিএনপির চাওয়া অনুযায়ী হবে না, তাদের পরামর্শের ভিত্তিতেই সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। 
বিএনপির শীর্ষপর্যায়ের এক নেতা বলেছেন, খালেদা জিয়া প্যারোলে মুক্তি চান না। এমনকি কোনো নেতাও তার সামনে এ বিষয়টি উত্থাপন করেননি। খালেদা জিয়ার প্যারোলে মুক্তির বিষয় নিয়ে দলের কোনো পর্যায়ে এখনো আলোচনা হয়নি বলে নিশ্চিত করে জানান ওই নেতা। 
বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ নয়া দিগন্তকে বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসনকে প্যারোলে মুক্তি দেয়া হচ্ছে এ ধরনের কোনো তথ্য আমার কাছে নেই। তবে আমরা তার জামিনের জন্য আইনি প্রক্রিয়ায় সর্বাত্মক লড়াই চালিয়ে যাবো। আশা করি, তিনি আইনি প্রক্রিয়ায় মুক্তি পাবেন।

এ দিকে খালেদা জিয়ার মুক্তির বিনিময়ে সংসদে যাওয়ার আলোচনাকেও নিছক গুজব বলছে বিএনপি। গত ৩০ ডিসেম্বরের ভোট ডাকাতির নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করেছে বিএনপি ও তাদের নিয়ে গঠিত জোট জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। একই সাথে তারা পুনর্নির্বাচনের দাবিতেও নানামুখী কর্মসূচি পালন করে চলছে। 

ওই নির্বাচনে বিএনপি থেকে ছয়জন এবং গণফোরাম থেকে দু’জন নির্বাচিত হন। দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে গণফোরাম থেকে নির্বাচিত দু’জন সুলতান মনসুর ও মোকাব্বির খান ইতোমধ্যে শপথ নিয়েছেন। শপথ নেয়ার কারণে সুলতান মনসুরকে গণফেরাম থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। মোকাব্বির খানের বিরুদ্ধেও একই ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানা গেছে। প্রসঙ্গত, ২ এপ্রিল শপথ নেয়ার পর গত পরশু মোকাব্বির খান ড. কামালের সাথে তার মতিঝিলের চেম্বারে দেখা করতে গিয়েছিলেন। কিন্তু ড. কামাল তাকে বলতে গেলে অপমানজনকভাবে বের করে দেন। 

জানা গেছে, যে নির্বাচন বিএনপি প্রত্যাখ্যান করেছে, সেই সংসদে বিএনপির শপথ নেয়ার কোনো ইচ্ছাই নেই। বিএনপির নির্বাচিতরাও দলের সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে কিছু করবেন না বলে স্পষ্টভাবে কেন্দ্রকে জানিয়ে দিয়েছেন। 

এ প্রসঙ্গে মওদুদ আহমদ বলেন, বিএনপির সংসদে যাওয়ার প্রশ্নই উঠে না। যেসব আলোচনা হচ্ছে, এগুলো উড়ো খবর। ভোটারবিহীন এ সংসদে বিএনপি যাবে না।
স্থায়ী কমিটির আরেক সদস্য ড. মঈন খান বলেন, আমাদের অবস্থান স্পষ্ট, এই সংসদ বাংলাদেশের গণতন্ত্রের পক্ষে কোনো কাজ করতে পারে না। যারা মনে করেন, তারা জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন, সংসদে গিয়ে জনগণের পক্ষে কথা বলবেন, তারা বোকার স্বর্গে বাস করছেন। 

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর গতকাল শুক্রবার সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে বলেছেন, আমরা প্রতিদিনই মনে করব, একটা বেআইনি দখলদারি সরকার বসে আছে। তাকে মেনে নেয়ার কোনো কারণই নেই। আমরা সরকারকে বলেছি এই নির্বাচন বাতিল করে একটি নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে পুনরায় নির্বাচনের ব্যবস্থা করতে।


আরো সংবাদ

ফাঁসির রায় শুনে আসামি হাসে বাদি কাঁদে (১১৮৭৬৬)শোভন-রাব্বানীকে নিয়ে ঢাবি অধ্যাপকের ফেসবুক স্ট্যাটাস (৪৮৭৫২)নতুন ভিডিও : রক্তাক্ত রিফাতকে মিন্নি একাই হাসপাতালে নিয়ে যান (৩২২৫১)শোভনকে নিয়ে কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতা মামুনের ফেসবুক স্ট্যাটাস (২৭১৯০)খালেদা জিয়া আলেমদের কিছু দেননি, শেখ হাসিনা সম্মানিত করেছেন : আল্লামা শফী (১৮০১৫)ওমরাহর খরচ বাড়ছে, সৌদি ফি নিয়ে ধূম্রজাল (১৭১৩৭)পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি হলে দিলিপ ঘোষকে যশোহর পাঠিয়ে দেবো (১৬৮৮৩)এবার আমিরাতের জাহাজ আটক করলো ইরান (১৩৩৭২)‘মানুষকে যতটা আপন মনে হয় ততটা আপন নয়’ (১৩১৮০)নতুন ভিডিও : রক্তাক্ত রিফাতকে মিন্নি একাই হাসপাতালে নিয়ে যান (১২৮২২)