১৮ মার্চ ২০১৯

‘দেশে গণতন্ত্র চাইলে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে’

মুক্তির দাবিতে সুপ্রিম কোর্টে আইনজীবীদের মানববন্ধন
বিএনপি
মানববন্ধনে আইনজীবীরা - ছবি : নয়া দিগন্ত

কারাবন্দী বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া গণতন্ত্রের প্রতীক। তিনি কারাগারে গুরুতর অসুস্থ। তাকে মুক্ত করে দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে হবে। দেশে গণতন্ত্র চাইলে তাকে মুক্ত করতে হবে।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী (বার) সমিতির সামনে ‘গণতন্ত্র ও খালেদা জিয়া মুক্তি আইনজীবী আন্দোলন’ আয়োজিত মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশে আইনজীবীরা এসব কথা বলেন।

দুপুর ১টা থেকে ২টা পর্যন্ত ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন, বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সভায় শতাধিক আইনজীবী অংশ নিয়ে অবিলম্বে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি এবং বিচার বিভাগের দুর্নীতি বন্ধের দাবিতে শ্লোগান দেন।

বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুপ্রিম কোর্টসহ নিম্ন আদালতের সর্বস্তরের দুর্নীতি ও বিচার বিভাগের ওপর সরকারি হস্তক্ষেপ বন্ধের দাবিতে সংগঠনটি এ কর্মসূচি পালন করে। সংগঠনের সুপ্রিম কোর্ট ইউনিটের চেয়ারম্যান ও সুপ্রিম কোর্ট বারের সাবেক সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের চেয়ারম্যান তৈমূর আলম খন্দকার, কো-চেয়ারম্যান মনির হোসেন, আবেদ রাজা, মাওলানা আবদুর রকিব, মহাসচিব এবিএম রফিকুল হক তালুকদার রাজা, আইনজীবী আসিফা আশরাফী পাপিয়া, মো: শহিদুল ইসলাম, ওয়াসেল উদ্দিন বাবু, ফারুক হোসেন, যুগ্ম মহাসচিব আনিছুর রহমান খান প্রমুখ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সংগঠনের সুপ্রিম কোর্ট ইউনিটের মহাসচিব আইয়ুব আলী আশ্রাফী।

তৈমুর আলম খন্দকার বলেন, গত সাত বছর ধরে সুপ্রিম কোর্ট বার বিএনপি সমর্তকরা পরিচালনা করছেন। কিন্তু কোনো আন্দোলন হচ্ছে না। আমরা আন্দোলনমুখী নেতৃত্ব চাই। এই ঘুনে ধরারা আবার নির্বাচন করলে খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য কোনো আন্দোলন হবে না।

মনির হোসেন বলেন, ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে দেশের ১ কোটি মানুষ ভোট দিতে পারেনি। দেশে আজ গণতন্ত্র নেই। অতীতে সব আন্দোলনের সূচনা হয়েছে সুপ্রিম কোর্ট থেকে। আইনজীবীরাই আন্দোলনের নেতৃত্ব দিয়েছেন। আমরা আন্দোলন শুরু করেছি, এখান থেকে সারা দেশে আন্দোলন ছড়িয়ে দিতে হবে।

তিনি বলেন, সুপ্রিম কোর্ট বারে সিন্ডিকেট হয়েছে। এই সিন্ডিকেট ভাঙ্গতে হবে। খালেদা জিয়ার মুক্তি ও গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনার জন্য গতিশীল বার প্রয়োজন। সেই বার আমরা উপহার দিব। সেইভাবে বার সৃষ্টি হলে গণতন্ত্র ও বেগম খালেদা জিয়াসহ সব রাজবন্দী মুক্ত হবে। জনগণের অধিকার নিশ্চিত হবে।

সভাপতির বক্তব্যে গিয়াস উদ্দিন আহমেদ বলেন, সুপ্রিম কোর্টসহ দেশের সব বারে আন্দোলনের মাধ্যমে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে। দেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে এবং খালেদা জিয়াকে কারামুক্ত করতে সবাইকে আন্দোলনে যোগ দিতে হবে।

তিনি বলেন, বেগম খালেদা জিয়া অসুস্থ। যেকোনো সময় কারাগারে তার মৃত্যু হতে পারে। তাকে মুক্ত করে দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে হবে। তাকে মুক্ত করতে না পারলে দেশে অন্ধকার নেমে আসবে। দেশের যে ক্ষতি হয়েছে তার উদ্ধারে আন্দোলনে নামতে হবে।


আরো সংবাদ




iptv al Epoksi boya epoksi zemin kaplama Daftar Situs Agen Judi Bola Net Online Terpercaya Resmi

Hacklink

instagram takipçi satın al ofis taşıma Instagram Web Viewer

canli radyo dinle

Yabanci Dil Seslendirme

instagram takipçi satın al