২৩ এপ্রিল ২০১৯

বিএনপি জামায়াতকে কিংবা জামায়াত বিএনপিকে ছাড়বে না : সেতুমন্ত্রী

ওবায়দুল কাদের - ছবি : সংগৃহীত

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপি জামায়াতকে কিংবা জামায়াত বিএনপিকে ছাড়বে না। বিএনপির এবং জামায়াতের চিন্তা চেতনা অনেকটা একই।

তিনি বলেন, ‘এটা আমার কাছে মনে হয় না যে, বিএনপি জামায়াতকে অথবা জামায়াত বিএনপিকে ছাড়বে। এটা হলেও কৌশলগত হতে পারে। তাদের চিন্তা ভাবনা, তারা যেই চেতনা ধারণ করে সেক্ষেত্রে তারা অনেক কাছাকাছি। দু’টির চেতনা একই। কোনটা উদার, আবার কোনটা উগ্রপন্থী।’

তিনি আজ মঙ্গলবার সচিবালয়ে মন্ত্রণালয়ের সভা কক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন। মন্ত্রণালয়েরর বিভিন্ন উন্নয়নসহ সমসাময়িক রাজনৈতিক বিষয় নিয়ে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

তিনি বলেন, ‘এটা তাদের চিন্তা-ভাবনা, যে আদর্শ ও চেতনা ধারণ করে সেখানে তারা খুব কাছাকাছি নয়? অনেক কাছাকাছি। আমি মনে করি দুটোই সাম্প্রদায়িক দল।’
বিএনপি উপজেলা নির্বাচনে অংশ না নেওয়ার সিদ্ধান্তের বিষয়ে জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, স্থানীয় সরকার নির্বাচনে কারা আসল, আর কারা বয়কট করল এটা নিয়ে আসলে খুব একটা দুশ্চিন্তা বা মাথাব্যথার কোনো কারণ নেই। স্থানীয় সরকার নির্বাচন অনেকে দলীয় প্রতীকে না করলে স্বতন্ত্রভাবেও করতে পারে।

তিনি বলেন, আমাদের কাছে যতটা খবর তারা স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে অনেক জায়গায় ইলেকশন করবে। এর কোনো প্রভাব প্রতিক্রিয়া আছে বলে মনে করি না। আসলে ভালো, না আসলেও স্থানীয় সরকার নির্বাচনে প্রতিদন্ধিতার অভাব হবে না।

ডাকসু নির্বাচনে বিএনপির ছাত্র সংগঠর অংশ নিচ্ছে না- এ বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, অংশ নেবে না, এটা তারা এখনও ঘোষণা দেয়নি। দেখা যাক, মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার এখনও তো অনেক সময় বাকি আছে। মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার পর এ কথাটা বলা যাবে। আপাতত দাবি-দাওয়ার প্রশ্নে কিছু কিছু স্ট্যান্ড তো দলগতভাবে থাকতেই পারে।

তিনি বলেন, আমার মনে হয় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপার্সন তারেক রহমান এখনও যা বলবে ছাত্রদল সেটাই মেনে নেবে। ছাত্রদল তারেক রহমান অনুগত শুরু থেকেই। ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপার্সনের কথাই তারা শুনবে বলে আমি মনে করি।

বিএনপি বলছে ডাকসু নির্বাচনও সরকার এক তরফাভাবে করবে- এ বিষয়ে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ডাকসু নির্বাচনে একতরফা বা ইন্টারফেয়ারেন্সের সুযোগটা কোথায়? এখানে কি কেউ কেন্দ্র দখল করবে? এখানে কি সূক্ষ্ম কারচুপির কোনো সুযোগ আছে? কীভাবে হবে? ডাকসুর ইলেকশনে তো প্রকাশ্যে ভোটাভুটি হবে।

সড়ক দুর্ঘটনাকে সবচেয়ে বড় দুর্ঘটনা উল্লেখ করে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, সড়ক নিরাপত্তা কাউন্সিলের বৈঠক ডেকে কিছু পদক্ষেপ নিয়ে আলোচনা করব। দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণে আনতে যারা বিশেষজ্ঞ আছেন, তাদের নিয়ে কমিটি করে দেবো। এর লাগাম টেনে ধরতে হবে। কারণ, সড়ক দুর্ঘটনা এখন সবচেয়ে বড় দুর্ঘটনা।
ওবায়দুল কাদের বলেন, মেট্রো রেল, পাতাল রেলসহ যেসব কাজ হচ্ছে এতে অনেক সমস্যাই সমাধান হয়ে যাবে। বিভিন্ন সড়কে কাজ চলছে, সেগুলো হলে অনেক সমস্যাই কমে যাবে। এখন দুর্ঘটনার সংখ্যা কম, কিন্তু নিহতের সংখ্যা বেশি।
সূত্র : বাসস


আরো সংবাদ

সকল




iptv al Epoksi boya epoksi zemin kaplama Daftar Situs Agen Judi Bola Net Online Terpercaya Resmi

Hacklink

Bursa evden eve nakliyat
arsa fiyatları tesettür giyim
Canlı Radyo Dinle hd film izle instagram takipçi satın al ofis taşıma Instagram Web Viewer

canli radyo dinle

Yabanci Dil Seslendirme

instagram takipçi satın al
hd film izle
gebze evden eve nakliyat