১৯ নভেম্বর ২০১৮
‘ইভিএম হচ্ছে যাদুর বাক্স’

সরকারের মাস্টার প্ল্যান ডাস্টবিনে ছুঁড়ে ফেলা হবে : রিজভী

ফাইল ছবি -

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, আওয়ামী জোটের সরকার জনগণের টাকায় জালিয়াতি করার মেশিন কিনে জালিয়াতির নির্বাচন করতে চায়। সত্যিকারের গণতন্ত্রে সরকার পরিচালনায় যে জনগণের ম্যান্ডেট প্রয়োজন হয় সেটা প্রধানমন্ত্রী বিশ্বাস করেন না। তবে এবার সরকারের সব মাস্টার প্ল্যান ডাস্টবিনে ছুঁড়ে ফেলা হবে।

আজ শুক্রবার সকালে এক সংবাদ সম্মেলনে রুহুল কবির রিজভী এসব বলেন।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, বাংলাদেশের অধিকাংশ দল, পেশাজীবী সংগঠন, সুশীল সমাজের বিরোধীতা ও সারা বিশ্ব থেকে প্রত্যাখ্যাত ও নিষিদ্ধ হওয়া এই ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ডিজিটাল মেশিনটি বাংলাদেশের আগামী নির্বাচনে ১০০ আসনে ব্যবহার করার অনুমোদন করলেন প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ কয়েকজন কমিশনার। নিজের নেতৃত্বাধীন কমিশনেও ভিন্নমত থাকার পরও ইভিএম ব্যবহারে মরিয়া হয়ে এটি বাস্তবায়নে চূড়ান্ত উদ্যোগ গ্রহণ সুস্পষ্ট হলো প্রধান নির্বাচন কমিশনার আগামী ইলেকশন ইঞ্জিনিয়ারিং করতে দৃঢ় সংকল্পবদ্ধ।

তিনি বলেন, প্রধান নির্বাচন কমিশনার স্বাধীন বিবেক দ্বারা স্বায়ত্বশাসিত নন। এটা দিবালোকের মতো সত্য প্রমাণিত হলো যে, সবদিক থেকে ইভিএমের ব্যাপারে বিরোধীতা থাকার পরও সিইসিসহ কয়েকজন কমিশনারের একতরফা ইভিএম ব্যবহারের সিদ্ধান্ত আগামী নির্বাচন জালিয়াতি করারই চুড়ান্ত মাস্টার প্ল্যান। কারণ বিশেষজ্ঞরা মনে করেন একটি গোপন কোড জানা থাকলেই ইভিএম ভোটিং মেশিনের গণনাপদ্ধতি সম্পূর্ণ পাল্টিয়ে ফেলা যায়।

তিনি বলেন, ভোটাররা দূর থেকে দেখেছে ভোট ডাকাতির দৃশ্য। সত্যিকারের গণতন্ত্রে সরকার পরিচালনায় যে জনগণের ম্যান্ডেট প্রয়োজন হয় সেটা প্রধানমন্ত্রী বিশ্বাস করেন না। সেজন্য বর্তমান প্রধানমন্ত্রী বিনা ভোটের প্রধানমন্ত্রী থাকতেই ভালবাসেন। তাই অনুগত প্রধান নির্বাচন কমিশনারকে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করে ইভিএম নামক ‘যাদুর বাক্স’ আমদানি করে আগামী জাতীয় নির্বাচনে ধাপ্পাবাজির ভোটের বন্দোবস্ত করছেন। তবে এবার জনগণ সরকারের সকল মাস্টার প্ল্যান ডাস্টবিনে ফেলে দিবে। ভোট নিয়ে অনাচারের পুনরাবৃত্তি জনগণ রুখে দেবে। এবারে জনগণের শিলা-কঠিন ঐক্যে সরকারের সকল পরিকল্পনা ধুলিস্যাৎ হয়ে যাবে।

জনসভায় ব্যাপক জনসমাগমের প্রস্তুতি
রিজভী বলেন, দলের ৪০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে জনসভায় কাল শনিবার রাজধানীর নয়াপল্টনে ব্যাপক জনসমাগম ঘটানোর প্রস্তুতি নিয়েছে বিএনপি। আগামীকাল বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে শান্তিপূর্ণ, সুন্দর ও ভালো জনসভা অনুষ্ঠিত হবে।

তিনি আরো বলেন, প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী সাফল্যমন্ডিত করার জন্য আমরা সকল প্রস্তুতি গ্রহণ করেছি। আমরা প্রত্যাশা করছি, জনসভায় ব্যাপক জনসমাগম ঘটবে।

জনসভায় কোনো বাধার আশঙ্কা করছেন কী না- এ প্রশ্নের জবাবে রিজভী বলেন, আমরা কামনা করি না যে, জনসভার আগে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা বিএনপির নেতাকর্মীদের বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে তাদেরকে হয়রানি করবেন। করলে, এটা দেশের জনগণ ভালোভাবে নেবে না। কর্মসূচিতে পরোক্ষভাবে কোনো বাধা দেশে মানুষ ভালোভাবে নেবে না। কারণ এটা একটি দিবস।

দেশব্যাপী নেতাকর্মীদের গ্রেফতার প্রসঙ্গ
দেশব্যাপী নেতাকর্মীদের গ্রেফতারের অভিযোগ তুলে রিজভী বলেন, চট্টগ্রাম উত্তর জেলার বারোইহাট পৌর বিএনপির আহবায়ক দিদারুল আলম মিয়াজী, মিরেরসরাই উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক কাজী নিজাম উদ্দিন, সাবেক চেয়ারম্যান মুসা মিয়াসহ ১১ জন মিথ্যা মামলায় হাজিরা দিতে গেলে তাদের জামিন না মঞ্জুর করে আদালত তাদের জেল-হাজতে প্রেরণের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি মো: রিপনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। নারায়ণগঞ্জ জেলা ওলামাদল সভাপতি শামসুর রহমান খান বেনুকে তার নিজ বাড়ী থেকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তুলে নিয়ে যায়। মেধাবী অনলাইন এক্টিভিস্ট ও নানা সংকলনের প্রকাশক, ওয়াসিম ইফতেখারকে আইনশৃঙ্খলা পরিচয় দানকারী বিশেষ বাহিনী গতকাল ভোর রাতে উত্তরার একটি বাসা থেকে তুলে নিয়ে গেছে বলে তার বাবা জানিয়েছেন। এখন পর্যন্ত তার পরিবারের সদস্যরা জানতে পারেনি তাকে কোথায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তারা গভীর উদ্বেগ-উৎকন্ঠার মধ্যে আছে। ওয়াসিমের দুটি শিশু সন্তান রয়েছে- কিছুদিন আগেই মাত্র যারা তার মাকে হারিয়েছে। শিশু দুটি কার মুখের দিকে তাকিয়ে তার মায়ের কথা ভুলে থাকবে।

তিনি বলেন, সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার বাগবাটি ইউনিয়ন মেরামতের জন্য ভেঙ্গে ফেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে কে বা কারা ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করে। এই ঘটনায় প্রকৃত অপরাধীদের শনাক্ত করে গ্রেফতার না করে উল্টো বিএনপি নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পুলিশের এই আচরণে মনে হয় বিএনপি নেতাকর্মীদের এলাকা ছাড়া করতেই আওয়ামী লীগের ক্যাডার দিয়ে আওয়ামী লীগ কার্যালয় আক্রমণ করানো হয়েছে। এটি সুপরিকল্পিত ষড়যন্ত্র। ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দল সভাপতি আজিজুল হক মিতুকে পুলিশ গতকাল গ্রেফতার করেছে। দলের জাতীয় নির্বাহী কমিটির ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক আমিনুল হক পল্লবীতে তার নিজের বাসায় গত পরশু পল্লবী ও রুপনগর থানার কিছু মুরুব্বিদের ঈদ পুনর্মিলনী উপলক্ষে দুপুরে আহারের জন্য আমন্ত্রণ করেন। দুই থানার কয়েকজন মুরুব্বি উপস্থিত হওয়ার কিছুক্ষণ পরেই কয়েকটি পুলিশের গাড়ি এসে আমিনুলের বাড়িতে হানা দেয় এবং নয়জনকে গ্রেফতার করে। এই মুরুব্বিরা দলের কোনো নেতাকর্মী নয়, দলের সমর্থক মাত্র।

রিজভী আরো বলেন, ঝিনাইদহ জেলার গ্রামে গ্রামে গিয়ে পুলিশ তাণ্ডব চালাচ্ছে। সেখানে বিএনপি নেতাদের বাড়িতে গিয়ে জিজ্ঞেস করা হচ্ছে আগামী জাতীয় নির্বাচনে কে পোলিং এজেন্ট হবে এবং পরিবারের সদস্যদের নাম জিজ্ঞেস করা হচ্ছে-যা অশুভ উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। ঝিনাইদহ জেলা বিএনপির কার্যালয় এক বছরের অধিক আইন-শৃঙ্খলাবাহিনী বন্ধ করে দিয়েছে। সরকারি দল আওয়ামী লীগ ও সরকারী প্রশাসন সেখানে একত্রিত হয়ে কাজ করছে। সারা জেলায় কয়েক হাজার নেতাকর্মীর নামে মামলা করা হয়েছে এবং প্রতিদিনই থানা, ইউনিয়ন, গ্রাম থেকে বিএনপির নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করা হচ্ছে। পুলিশ ঝিনাইদহ জেলায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের রাজনৈতিক পরিচয় জিজ্ঞাসা করছেন। কে কোন দলের লোক সেটি তালিকা করছে পুলিশ। এটি দুরভিসন্ধিমূলক ও আগামী নির্বাচন নিয়ে সরকারি ষড়যন্ত্র নিয়ে আভাস ফুটে উঠছে। বিএনপির ৪০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে দলের পক্ষ থেকে আলোচনা সভার জন্য ডিসি, এসপি ও ওসির কাছে আবেদন করলেও তারা সরাসরি না করে দিয়েছে। সারা ঝিনাইদহ জেলা এখন সরকারি জুলুমের মুখে বন্দীশালায় পরিণত হয়েছে। অধিকাংশ নেতাকর্মীরা এলাকা ছাড়া হয়ে দিনযাপন করছে। আমি বিএনপির নেতাকর্মীদের পুলিশী হামলা, হয়রানি ও বিএনপি নেতাকর্মীদের গ্রেফতারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং গ্রেফতারকৃত নেতৃবৃন্দের মুক্তি দাবি করছি।

কর্মসূচি :
এদিকে আগামীকালশনিবার বিএনপির ৪০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সকাল ১০টায় দলের প্রতিষ্ঠাতা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের মাজারে দলের সিনিয়র নেতৃবৃন্দ ফাতেহা পাঠ ও পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করবেন। দলের সকল পর্যায়ের নেতাকর্মীকে সকাল ১০টার আগেই সেখানে উপস্থিত থাকার জন্য আহবান জানানো হচ্ছে। দিবসটি উদযাপন উপলক্ষে দলের নয়াপল্টনস্থ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে বেলা ২টায় জনসভা অনুষ্ঠিত হবে। সেইসাথে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয় ও গুলশানস্থ চেয়ারপার্সনের কার্যালয়সহ দেশব্যাপী দলীয় কার্যালয়ে সকাল ৬টায় দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা আতাউর রহমান ঢালী, শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, মীর সরফত আলী সপু, অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম আজাদ, মো: মুনির হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


আরো সংবাদ