১৩ নভেম্বর ২০১৮

পরিবেশগত সুরক্ষা ও জীববৈচিত্র রক্ষায় সবুজ বিল্পব ঘটাতে হবে : শিবির সেক্রেটারি

-

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র শিবিরের সেক্রেটারি জেনারেল মোবারক হোসাইন বলেন, পরিবেশ দূষণ, জীববৈচিত্রের ক্ষতি ও জলবায়ু পরিবর্তনের অন্যতম কারণ নির্বিচারে বৃক্ষ নিধন। এ ধারা অব্যাহত থাকলে মহা প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের মুখে পড়তে হবে তাতে সন্দেহ নেই। তাই পরিবেশগত সুরক্ষা ও জীববৈচিত্র রক্ষায় সবুজ বিপ্লব ঘটাতে হবে।

তিনি ছাত্র শিবির দিনাজপুর শহর শাখার উদ্যোগে কেন্দ্র ঘোষিত ‘বৃক্ষরোপণ অভিযান-২০১৮’ উপলক্ষে গাছের চারা বিতরণ ও বৃক্ষরোপন কালে প্রধান অতিথির বক্তব্য এসব কথা বলেন। এসময় কেন্দ্রীয় স্কুল সম্পাদক রাজিবুর রহমান পলাশ, কেন্দ্রীয় কার্যকরী পরিষদ সদস্য সোহেল রানা, দিনাজপুর শহর সভাপতি তোফায়েল প্রধান, শহর সেক্রেটারি রেজাউল করিম সহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্হিত ছিলেন।

সেক্রেটারি জেনারেল বলেন, বিপুল জনসংখ্যার এদেশে স্বাভাবিক ভাবে বেচে থাকার জন্য পরিবেশ সুরক্ষা ও জীববৈচিত্র রক্ষা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু দেশে প্রতিনিয়ত ব্যাপক হারে গাছ কাটা হচ্ছে। কিন্তু সে হারে গাছ লাগানো হচ্ছে না। প্রশাসনের সামনেই নানা চক্র বিভিন্ন ভাবে বনভূমি উজার করে দিচ্ছে। ফলে প্রতিবছর আবহাওয়ার পরিবর্তন দেখা দিচ্ছে। যা ভয়াবহ রুপ ধারণ করতে পারে। জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে সৃষ্ট ক্ষতির সম্মুখ্যিন যে দেশ গুলো হবে বাংলাদেশ তার প্রথম দিকে। কিন্তু দূর্ভাগ্য বরাবরই এমন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টিকে পাশ কাটিয়ে যাওয়া হচ্ছে। পরিবেশে দূষণমুক্ত রাখা ও ভয়াবহ প্রাকৃতিক বিপর্যয় থেকে বাচার অন্যতম উপায় বেশি করে গাছ লাগানো। এখানে সফল হলে প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষার পাশাপাশি আয়েরও একটি অন্যতম উৎসে পরিণত হবে। আর এটি তেমন কঠিন কাজও নয়। তাই বৃক্ষরোপন সপ্তাহে জন-মানুষের সম্পৃক্ততা বাড়ানোর মাধ্যমে এ অভিযানকে সামাজিক আন্দোলনে পরিণত করতে হবে।

তিনি আরো বলেন, পরিস্থিতি যাই হোক না কেন ছাত্রশিবির কখনোই জাতীয় ও সামাজিক দায়িত্বের কথা ভুলে যায়নি। শত প্রতিকূলতার মাঝেও ছাত্রশিবির প্রতিবছর বৃক্ষেরোপন অভিযান ঘোষণা করে তা বাস্তবায়নে সর্বাত্বক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। প্রতিবছরই লক্ষ লক্ষ গাছের চারা রোপন করছে সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা। এ কাজে আপামর জনসাধারনকে সম্পৃক্ত করতে সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে। এবছরও তার ব্যতিক্রম হয়নি। আমাদের এ প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে ইনশাআল্লাহ। আমরা মনে করি, সবাই যদি বিশেষ করে ছাত্রসংগঠন গুলো যদি বৃক্ষরোপনে এগিয়ে আসে তাহলে খুব দ্রুত দেশে সবুজ বিপ্লব ঘটানো সম্ভব। আমরা যার যার অবস্থানে থেকে বৃক্ষরোপন অভিযানে শামিল হওয়ার জন্য সর্বস্তরের ছাত্রজনতার প্রতি আহবান জানাচ্ছি।

উল্লেখ্য, এ বছর ১১ই জুলাই থেকে ১৭ জুলাই পর্যন্ত বৃক্ষরোপণ অভিযান কর্মসূচি ঘোষনা করেছে ছাত্রশিবির। বিশেষ করে ১৩ জুলাই সকাল ১০টায় সারাদেশে একযোগে ১ লক্ষ গাছের চারা রোপনের ঘোষণা করা হয়েছে। কর্মসূচি সফল করতে সারাদেশে সকল জনশক্তি একটি করে ফলজ, বনজ ও ঔষধী গাছের চারা রোপণ ও দুটি করে গাছের চারা বিতরণ করবে। এছাড়া বৃক্ষ নিধন রোধে জনসচেতনা তৈরী, বৃক্ষ রোপনে উদ্বুদ্ধ করণের জন্য বর্ণাঢ্য র‌্যালি, ব্যানার, ফেষ্টুন ও ষ্টিকার লাগানোর মাধ্যমে কর্মসূচি পালন করছে ছাত্র শিবির।


আরো সংবাদ

১০ বিশিষ্ট ব্যক্তিকে নির্বাচনে সম্পৃক্ত করতে চান ড. কামাল আস্থা রাখুন, হিন্দু সম্প্রদায়কে ফখরুল ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন আগের চেয়ে বেশি দমনমূলক : অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল আ’লীগের মনোনয়ন বোর্ডের সদস্য হলেন ফারুক খান ও আব্দুর রাজ্জাক সহকর্মীর আঘাতে প্লাস্টিক ফ্যাক্টরির কর্মচারী নিহত শিক্ষাক্ষেত্রে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে হবে : শিক্ষামন্ত্রী সাংবাদিক শিমুল হত্যা মামলায় মেয়র মিরুর জামিন স্থগিত শিশুশ্রম নির্মূলের ল্যমাত্রা অর্জনে দেশ যথেষ্ট পিছিয়ে নির্বাচনী তফসিল পুনর্নির্ধারণ জাপা ইতিবাচকভাবেই দেখছে : জি এম কাদের ৩২ আসনে প্রার্থী চূড়ান্ত করেছে খেলাফত আন্দোলন অভিভাবক ঐক্য ফোরাম চেয়ারম্যানের মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি

সকল