১৯ জুলাই ২০১৮

এনডিএমকে রাজনৈতিক দল হিসেবে কেন নিবন্ধন নয় : হাইকোর্ট

-

জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলনকে (এনডিএম) রাজনৈতিক দল হিসেবে নিবন্ধনের নির্দেশ কেন দেয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।

আজ রোববার বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি মো: আশরাফুল কামালের হাইকোর্ট বেঞ্চ এক আবেদনের প্রেক্ষিতে এ আদেশ দেন।

একই সঙ্গে নিবন্ধন না দিয়ে নির্বাচনের কমিশনের নেওয়া সিদ্ধান্ত কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চাওয়া হয়েছে।

আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে প্রধান নির্বাচন কমিশনার, নির্বাচন কমিশনের সচিব ও উপসচিবকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার আখতার ইমাম, তাকে সহযোগীতা করেন ব্যারিস্টার রাশনা ইমাম। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ইকরামুল হক টুটুল।

পরে ব্যারিস্টার রাশনা ইমাম জানান, নির্বাচন কমিশন যে চিঠি দিয়ে নিবন্ধন বাতিল করেছে, সেই চিঠিতে একটি মাত্র কারণ দেখিয়েছে নির্বাচন কমিশন। চিঠিতে বলা হয়েছে, যেভাবে গঠনতন্ত্র সংশোধন করার কথা সেভাবে করা হয়নি। এ কারনে নিবন্ধন বাতিল করা হয়েছে। কিন্তু কিভাবে গঠনতন্ত্র সংশোধন করা হবে সেটি চিঠিতে বলা হয়নি। এছাড়া স্পষ্ট করে কোন কারণও দেখানো হয়নি। এ বিষয়গুলো আজ আমরা আদালতে উপস্থাপন করেছি। আদালত আমাদের বক্তব্য শুনে রুল জারি করেছেন।

জাতীয়বাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন (এনডিএম) নিবন্ধন না করে গত ১১ জুন চিঠি দেয় নির্বাচন কমিশন। ওই চিঠির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট দায়ের করেন দলটির চেয়ারম্যান মুসা বিন শমসেরের ছেলে ববি হাজ্জাজ। ২০১৭ সালের ২৪ এপ্রিল রাজনৈতিক দল হিসেবে প্রতিষ্ঠা হয় জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন (এনডিএম)।


আরো সংবাদ