২৩ মার্চ ২০১৯

গাজীপুরে অস্বাভাবিক ভোট

৯০ শতাংশের বেশি ভোট পড়েছে দুইটি কেন্দ্রে - ছবি : নয়া দিগন্ত

দেশে নির্বাচনের সংস্কৃতি প্রতিনিয়তই পরিবর্তিত হচ্ছে। নিজেদের বিজয় নিশ্চিত করতে নতুন নতুন কৌশল নিচ্ছে রাজনৈতিক দলগুলো। আগে ক্ষমতালোভীরা ভোটকেন্দ্র দখল করে নিজেদের প্রতীকে সিল দিত। এ ক্ষেত্রে ভোটগ্রহণ কর্মকর্তা ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নীরব থাকত। এখন চিত্র বিপরীত।

গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীর সমর্থকেরা জালভোট দিতে এলে তাদের নিবৃত্ত না করে দোসরের ভূমিকা পালন করেন ভোটগ্রহণ কর্মকর্তা ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। এ ক্ষেত্রে উর্দি পরাদের চেয়ে সাদা পোশাকের সদস্যরাই ছিল বেশি তৎপর।
তাদের কারসাজিতে কেন্দ্র থেকে বের করে দেয়া হয়েছে ধানের শীষ প্রার্থীর এজেন্টদের। কোনো কোনো কেন্দ্রে ধানের শীষের এজেন্ট ঢুকতেই পারেনি। কেন্দ্রের গেট থেকে সাদা পোশাকধারীরা তাদের ধরে নিয়ে গেছে বলে অভিযোগ মিলেছে। অনেক কেন্দ্রে প্রকাশ্যে নৌকা প্রতীকে সিল মারা হয়েছে।

গাজীপুরের ভোট বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, ৯০ শতাংশের বেশি ভোট পড়েছে দুইটি কেন্দ্রে। আবার একটি কেন্দ্রে ভোট পড়েছে ২০ শতাংশের নিচে। ৪০ শতাংশের নিচে ভোট পড়েছে ১৮টি কেন্দ্রে। ৮০ শতাংশের বেশি ভোট পড়েছে ২৪ কেন্দ্রে। ৩২ নং ওয়ার্ডের বসুরা মক্তব মাদরাসা কেন্দ্রে ভোটার সংখ্যা ৩ হাজার ১১৯ জন। এর মধ্যে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন ২ হাজার ৯৩৪ জন। এই কেন্দ্রে শতকরা ৯৪.০৭ শতাংশ ভোট পড়েছে। একইভাবে বিপ্রবর্থা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোটার দুই হাজার ৬৯৪ জন। এই কেন্দ্রে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন ২ হাজার ৪৩০ জন। এই কেন্দ্রে ভোটের হার ৯০.২০। সর্বনিম্ন ১৪ দশমিক ১৪ শতাংশ ভোট পড়েছে গাজীপুর হলিসন কিন্ডারগার্টেন অ্যান্ড হাইস্কুল কেন্দ্রে। সেখানে ভোটার ছিল ৬০৪৬ জন।

গাজীপুর সিটি নির্বাচনে এবার গড়ে ৫৮ শতাংশ ভোট পড়েছে। ২০১৩ সালের নির্বাচনে পড়েছিল ৬৮ শতাংশ। গতবারের চেয়ে এবার প্রায় ১০ শতাংশ ভোট কম পড়েছে।
বিশ্লেষকরা বলছেন, গাজীপুর সিটিতে ভাসমান ভোটার বেশি। সেখানে ৯০ শতাংশের ওপর ভোট পড়া অস্বাভাবিক। আবার চল্লিশ শতাংশের নিচে ভোট পড়াও অস্বাভাবিক।
গাজীপুর সিটি করপোরেশনের রিটার্নিং অফিসার ঘোষিত ফলাফল বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, যেসব কেন্দ্রে ৮০ শতাংশের ওপরে ভোট পড়েছে সেগুলো হচ্ছে- কোনাবাড়ী এম এ কুদ্দুস উচ্চবিদ্যালয় অ্যান্ড কলেজ-২ (দ্বিতীয়তলা) (৮৫%), গুটিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় (৮২.৮১%), ধূমকেতু প্রিক্যাডেট অ্যান্ড হাইস্কুল-১ (৮০.১৩%), শিলমুন আব্দুল হাকিম মাস্টার উচ্চবিদ্যালয়-১ (৮৩%), গোপালপুর কিশোর বিদ্যানিকেতন (৮১.২৭%), নন্দীবাড়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় (৮০.৬৭%), বিন্দান উচ্চবিদ্যালয় (৮৯.৪৬%), বাড়ইবাড়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় (৮২.৮১%), উধুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় (৮৩.৮১%), পুবাইল উচ্চবিদ্যালয় (৮৯.৫৩%), মেঘডুবি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় (৮৬%), ইছালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় (৮৭.০৮%), শুকুন্দিবাগ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় (৮৩.৮৫%), বসুরা মক্তব মাদরাসা (৯৪.০৭%), ইছর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় (৮৬.৩৭%), খাইলপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়-১ (৮১.৫৮%), খাইলপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়-২ (৮১.৭৪%), ল্যাঙ্গুয়েজ উচ্চবিদ্যালয় (৮২.২৪%), হাতিমারা হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজ-২ (৮৩.২৮%),

মজলিসপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় (৮৪.৯৯%), মীরেরগাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় (৮৪.৪৬%), খালিসাবর্থা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় (৮৮.৫৮%), বিপ্রবর্থা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় (৯০.২০%), রোভার পল্লী উচ্চবিদ্যালয় (৮৫.৭৪%)। ৪০ শতাংশের কম ভোট যেসব কেন্দ্রে পড়েছে সেগুলো হলোÑ পাগাড় আদর্শ উচ্চবিদ্যালয় (৩২.৭৫%), টঙ্গী সানরাইজ স্কুল অ্যান্ড কলেজ (৩১.৯৬%), বিকাশ স্কুল (২৮.৩১%), সারদাগঞ্জ মেরিগোল্ড হাইস্কুল-১ (৩০.৩১%), সারদাগঞ্জ মেরিগোল্ড হাইস্কুল-২ (৩৯.৮৫%), আমানউল্লাহ একাডেমি (৩৬.৪৫%), কোনাবাড়ী এম এ কুদ্দুস উচ্চবিদ্যালয় অ্যান্ড কলেজ-৪ (৩৮.৭৪%), কোনাবাড়ী ডিগ্রি কলেজ-১ (৩৮.৮৫%), পানিশাইল উচ্চবিদ্যালয়-২ (৩৫.৫৯%), শহীদ বৃত্তি একাডেমি-২ (৩২.২৪%), ভোগড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়-২ (২৫.৮৪%), পশ্চিম জয়দেবপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়-২ (৩৬.৫১%), মদিনাতুল উলুম সিনিয়র মাদরাসা-৪ (৩৪.০১%), গাজীপুর হলিসান কিন্ডারগার্টেন অ্যান্ড হাইস্কুল (১৪.১৪%), গাজীপুর হোসাইনিয়া মাদরাসা-২ (৩১.৯৫%), আব্দুর রহমান মেমোরিয়াল স্কুল (৩৩.৭৯%), অনন্ত মডেল কিন্ডারগার্টেন (৩৮.৬০%), হাজী আহমদ আলী পাবলিক স্কুল (৩৯.৮৯%)।
রিটার্নিং অফিসারের ঘোষিত ফল অনুযায়ী, ৪২৫ কেন্দ্রের মধ্যে ৪১৬টিতে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম ৪ লাখ ১০ ভোট পেয়েছেন। বিএনপি প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকার পেয়েছেন ১ লাখ ৯৭ হাজার ৬১১ ভোট। নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ এনেছে বিএনপি। দলটির দাবি শতাধিক কেন্দ্র থেকে ধানের শীষের এজেন্টকে বের করে দিয়ে গাজীপুরে জালভোটের ‘মহোৎসব’ হয়েছে।

নির্বাচন সংশ্লিষ্টরা বলছেন, নির্বাচন কমিশন তাদের ক্ষমতা সম্পর্কে সচেতন নয়। সংবিধান তাদের যে ক্ষমতা দিয়েছে তা ব্যবহার করতে তারা ব্যর্থ হচ্ছে। তফসিল ঘোষণার পর আইনশৃঙ্খলা রাকারী বাহিনী ও প্রশাসন নির্বাচন কমিশনের অধীনে থাকলেও কমিশন সে নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করতে পারছে না। দলীয় কর্মীদের গ্রেফতার না করার নির্দেশনা দিলেও গাজীপুরে পুলিশ তাদের নির্দেশনা মানেনি। ভোটের আগের দিনেও বিএনপি কর্মীদের গ্রেফতার করা হয়েছে। পোলিং ও প্রিজাইডিং অফিসার নিয়োগ দেয়া হয়েছে দলীয় কর্মীদের। ফলে তারা নিজেরাই জালিয়াতিতে জড়িয়ে পড়ে। বিএনপির পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হলেও কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। পুলিশের হয়রানির শিকার হয়েছে গণমাধ্যম কর্মীরাও। ভোটের দিন নির্বাচনী এলাকায় মতাসীন দলের সমর্থকেরা গাড়ি ও মোটরসাইকেলে নৌকা প্রতীকের স্টিকার লাগিয়ে অবাধে চলাচল করে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) সম্পাদক ড. বদিউল আলম মজুমদার বলেন, গাজীপুরে বাস্তবে ভোটের হার অনেক কম ছিল। জালভোটের কারণে ভোটের হার বাড়তে পারে। বিজয়ী প্রার্থীর ভোটের হার বেশি হয়েছে বলেই কিছু কিছু কেন্দ্রে অস্বাভাবিক ভোট দেখা যাচ্ছে।
নির্বাচন পর্যবেক সংস্থাগুলোর মোর্চা ইলেকশন ওয়ার্কিং গ্রুপের (ইডব্লিউজি) পরিচালক আব্দুল আলীম বলেন, বাংলাদেশের নির্বাচনগুলোতে ৬০ থেকে ৭০ শতাংশ ভোট স্বাভাবিক। এর ব্যতিক্রম হতে পারে। তবে ৪০ শতাংশের কম ভোট পড়াটাও অস্বাভাবিক বলে মন্তব্য করেন তিনি।


আরো সংবাদ

ফিঞ্চ মার্শের বীরত্বে সিরিজে এগিয়ে গেল অস্ট্রেলিয়া সংযুক্ত আরব আমিরাতে জাতীয় কবিতা মঞ্চের উদ্যোগে বিশ্ব কবিতা দিবস পালিত জেসিন্ডাকে অন্যরকম সম্মান দেখালো আরব আমিরাত কাশ্মিরের আরেক স্বাধীনতাকামী সংগঠনকে নিষিদ্ধ করেছে ভারত বার্মিংহামে মসজিদে হামলাকারী আটক ২ লাগামহীনভাবে বাড়ছে দ্রব্যমূল্য : রমজানপূর্ব মজুদদারিতে কারসাজি ওমানে বাংলাদেশীসহ এক হাজার প্রবাসী গ্রেফতার কী হয়েছিল ১৯৭৩ সালের আরব-ইসরাইল যুদ্ধে? ভয়ঙ্কর টেলিফোন নম্বর, ব্যবহার করলেই মৃত্যু! ৬০ কোটি ইউজারের পাসওয়ার্ড ফাঁস! নতুন বিতর্কে ফেসবুক ফতুল্লা যুবলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে আহত ২৫

সকল




iptv al Epoksi boya epoksi zemin kaplama Daftar Situs Agen Judi Bola Net Online Terpercaya Resmi

Hacklink

instagram takipçi satın al ofis taşıma Instagram Web Viewer

canli radyo dinle

Yabanci Dil Seslendirme

instagram takipçi satın al