film izle
esans aroma Umraniye evden eve nakliyat gebze evden eve nakliyat Ezhel Şarkıları indirEzhel mp3 indir, Ezhel albüm şarkı indir mobilhttps://guncelmp3indir.com Entrumpelung wien Installateur Notdienst Wien
২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০

খেলাপী ঋণ ৯৬ হাজার ৯৮৬ কোটি ৩৮ লাখ টাকা

-

ঋণ খেলাপী ৮ হাজার ২৩৮ প্রতিষ্ঠানের নাম প্রকাশ করে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল বুধবার সংসদকে জনিয়েছেন, এদের কাছে খেলাপী ঋণের পরিমাণ ৯৬ হাজার ৯৮৬ কোটি ৩৮লাখ টাকা। বাংলাদেশে কার্যরত সকল ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠান হতে প্রাপ্ত সিআইবি ডাটাবেজে রক্ষিত ২০১৯ সালের নভেম্বর মাস ভিত্তিক হালনাগাদ তথ্য অনুযায়ী ১০৭ পৃষ্ঠা বিশিষ্ট তলিকা দেন মন্ত্রী। তিনি আরো জানান, এই সময়ে পরিশোধিত ঋণের পরিমাণ ২৫ হাজার ৮৩৬ কোটি ৪ লাখ টাকা।

সংসদে প্রশ্নোত্তরে আহসানুল ইসলাম টিটুর লিখিত প্রশ্নের জবাবে এ তথ্য তুলে ধরেন অর্থমন্ত্রী। বিকালে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের বৈঠক শুরু হলে প্রশ্নোত্তর টেবিলে উপস্থাপিত হয়।

মন্ত্রীর দেয়া তালিকার শুরুতে স্থান পাওয়া কিছু প্রতিষ্ঠান হচ্ছে-রিমেক্স ফুটওয়ার লিমিটেড, ক্রিসেন্ট লেদার প্রোডাস্টস লিমিটেড, রুপালী কম্পোজিট লেদার ওয়্যার লিমিটেড, রাইজিং স্টিল লিমিটেড, মোহাম্মদ ইলিয়াস ব্রাদাস প্রা.লি., এস এ ওয়েল রিফাইনারী লিডিটেড, সামান্নাজ সুপারওয়েল লিমিটেড, কোয়ান্টাম পাওয়ার সিস্টেমস লিমিটেড, এ্যালোয় কোট লিমিটেড, গ্ল্যাক্সি সোয়েটার এন্ড ইয়ার্ন ডায়িং লিমিটেড, বিল্ড ট্রেড ইঞ্জিনিয়ারিং লিমিটেড, বেনেটেক্স ইন্ড্রাস্টিজ লিমিটেড, কম্পিউটার সোর্স লিমিটেড, রুবাইয়া ভেজিটেবল ওয়েল ইন্ড্রাস্টিজ লিমিটেড, বাংলা লাইন কমিউনিকেশনস লিমিটেড, লেক্সকো লিমিটেড, আলপা কম্পোজিট টাওয়েলস লিমিটেড, সুপ্লোভ রোটোর স্পিনিং লিমিটেড, বেল কনস্ট্রাকশন সান বিএইসডি লিমিটেড, চৌধুরী নীটওয়ারস লিমিটেড, জেকোয়ার্ড নীটেক্স লিমিটেড, ইব্রাহীম টেক্সটাইল মিলস লিমিটেড, সুপ্রোভ কম্পোজিট নীট লিমিটেড, হলমার্ক ফ্যাশন লিমিটেড, ফেয়ার ইয়ার্ন প্রসেসিং লিমিটেড, ফেয়ার ট্রেড ফেব্রিকস লিমিটেড, বাংলাদেশ সুপার এন্ড ফুড ইন্ড্রাস্টিজ করপোরেশন, শাহরিস কস্পোজিট টাওয়েল লিমিটেড, লিটোন ফেব্রিকস লিমিটেড, সুরোজ মিয়া জুট স্পিনিং মিলস লিমিটেড, পদ্মা পলি কটন নীট ফেব্রিকস লিমিটেড, আয়মান টেক্সটাইল এন্ড হুমিয়ারি লিমিটেড, সিমরান কম্পোজিট লিমিটেড, এস কে স্টিল, হ্যালপ লাইন রিসোর্সেস লিমিটেড, নূরানী ডায়িং এন্ড স্যুয়েটার লিমিটেড, ভারগো মিডিয়া, বিসমিল্লাহ টাওয়েল লিমিটেড, আনোয়ারা মান্নান টেক্সটাইল মিলস লিমিটেড, ল্ইাট হাউজ ইনফ্রাস্টাকচার লিমিটেড,ক্রিসেন্ট ট্যানারিজ লিমিটেড, সালেহ কার্পেট মিলস লিমিটেড, ইউনাইটেড এ্যাপারেল ইন্ড্রাস্টিজ লিমিটেড, টি এন্ড ব্রাদার নীট কম্পোজিট লিমিটেড, বাংলাদেশ ইন্ড্রাস্টিয়াল ফিন্যান্স কো. লিমিটেড, করোলা কর্পোরেশন বিডি লিমিটেড, রহমান স্পিনিং মিলস লিমিটেড, ইসলাম ট্রেডিং কনসোটিয়াম লিমিটেড, দি ঢাকা ডায়িং এন্ড ম্যানুফাকচারিং কোম্পানী লিমিটেড, ড্রীম স্ট্রলি রি-রোলিং মিলসা লিমিটেড।

মাদারিপুর স্পিনিং মিলস লিমিটেড, হাবীব স্টীলস লিমিটেড, এমএইচ গোল্ডেন জুট মিলস লিমিটেড, সেমারসিটি জেনারেল ট্রেডিং লিমিটেড, ইব্রাহিম কনসোটিয়াম লিমিটেড, লামিসা স্পিনিং লিমিটেড, সোনালী জুট মিলস লিমিটেড, চৈতি কম্পোজিট লিমিটেড, এম শিপ বিল্ডার্স এন্ড স্টিল লিমিটেড, এডভান্ড ডেভেলপমেন্ট টেকনোলজিজ লিমিটেড, এমবিএ গার্মেন্টস এন্ড টেক্সাইট লিমিটেড, ইন্টারন্যাশনাল লিজিং এন্ড ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস লিমিটেড, ইউনাইটেড এয়াওয়েজ (বিডি) লিমিটেড, দি এরিস্ট্রোক্রেট এগ্রো লিমিটেড, উবার্টি ফ্যাশন ওয়্যারস লিমিটেড, এক্সপার টেক্স লিমিটেড, সাদ মূসা ফেব্রিকস লিমিটেড, ঢাকা সেন্ট্রাল ইন্টারন্যাশনাল মেডিকেল কলেজ এন্ড হসপিটাল লি., ওয়াল মার্ট ফ্যাশন লি., আমাদের বাড়ী লি., এগ্রো ইন্ড্রাটিজ (প্রা) লিমিটেড, সুপ্রোভ ম্যালেঞ্জ স্পিনিং লি., এটলাস গ্রীনপ্যাক লিমিটেড, হিমালয়া পেপার এন্ড বোর্ড মিলস লিমিটেড, এইচআরসি শিপিং লিমিটেড, পিপলস লিজিং এন্ড ফিন্যান্স সার্ভিসেস লিমিটেড।

১০ বছরে সরকারের ব্যাংক ঋণ ১১ লাখ ৪৩ হাজার কোটি টাকা

নিজাম উদ্দিন হাজারীর (ফেনী-২) এক প্রশ্নের জবাবে অর্থ মন্ত্রী জানান, সরকার জানুয়ারি ২০০৯ থেকে জুন ২০১৯ পর্যন্ত বাংলাদেশ ব্যাংক ও তফসিলি ব্যাংক হতে মোট ১১ লাখ ৪২ হাজার ৯৬৫ কোটি ৫৫ লাখ টাকা ঋণ গ্রহণ করেছে এবং ৯ লাখ ৯৮ হাজার ৪৫৫ কোটি ৭৫ লাখ টাকা ঋণ পরিশোধ করেছে। অথ্যাৎ এই সময়কালে সরকার মোট ১ লাখ ৪৪ হাজার ৫০৯ কোটি ৮০ লাখ টাকা নীট ঋণ গ্রহণ করেছে।

ব্যাংকিং খাতে পর্যাপ্ত তারল্য রয়েছে 

মো: শাহে আলমের ( বরিশাল-২) এক প্রশ্নের জববে আহম মুস্তফা কামাল বলেন, বর্তমানে ব্যাংকিং খাতে পর্যাপ্ত তারল্য রয়েছে। নগদ জমা সংরক্ষণ ও সহজ বিনিয়োগযোগ্য সম্পদ সংরক্ষনের পরও ব্যাংকগুলোর নিকট পর্যাপ্ত অতিরিক্ত তারল্য রয়েছে। এরুপ তারল্যের পরিমাণ জানুয়ারি ২০১৯ মাসের ৬৭ হাজার ৬০১ কোটি টাকা থেকে ৪৮.৬৬ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে নভেম্বর ২০১৯ মাসে ১ লাখ ৪৯২ কোটি টাকায় দাাঁড়িয়েছে।

ব্যাংক পরিচালকদের অন্য ব্যাংক থেকে ঋণ

১ লাখ ৭১ হাজার ৬১৬ কোটি টাকা : আহসানুল ইসলাম টিটুর তারকাচিহ্নিত এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী জানান, ২০১৯ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর হতে ত্রৈমাসিকের তথ্য অনুযায়ী ২৫টি ব্যাংকের পরিচালকবৃন্দ নিজ ব্যাংক হতে ঋণ গ্রহণ করেছেন। তাদের গৃহীত ঋণের বকেয়া স্থিতির পরিমাণ ১ হাজার ৬১৪ কোটি ৭৭ লাখ ১৭ হাজার টাকা যা মোট ঋণের ০.১৬৬৬ শতাংশ । এছাড়া ব্যাংকের পরিচালকবৃন্দ নিজ ব্যাংক ব্যতিত অন্য ৫৫টি ব্যাংক হতে ঋণ নিয়েছেন তাদের গৃহীত ঋণের বকেয়া স্থিতির পরিমাণ ১ লাখ ৭১ হাজার ৬১৬ কোটি ১২ লাখ ৪৭ হাজার টাকা। যা ব্যাংকসমুহের মোট প্রদেয় ঋণের ১১.২১ শতাংশ।

 


আরো সংবাদ

বাণিজ্যমন্ত্রীকে ব্যক্তিগতভাবে পছন্দ করি : রুমিন ফারহানা (৯৩৪৪)ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে আর যুদ্ধে জড়াতে চাই না : ইসরাইলি যুদ্ধমন্ত্রী (৮৬৩৫)সিরিয়া নিয়ে এরদোগানের হুমকি, যা বলছে রাশিয়া (৮১৭৫)শাজাহান খানের ভাড়াটে শ্রমিকরা এবার মাঠে নামলে খবর আছে : ভিপি নুর (৭৪২৫)খালেদা জিয়াকে নিয়ে কথা বলার এত সময় নেই : কাদের (৭১৮৩)আমি কর্নেল রশিদের সভায় হামলা চালিয়েছিলাম : নাছির (৬৫৫৩)ট্রাম্পের পছন্দের যেসব খাবার থাকবে ভারত সফরে (৫৫১১)ইদলিব নিয়ে যেকোনো সময় সিরিয়া-তুরস্ক যুদ্ধ! (৫৪৪০)ট্রাম্প-তালিবান চুক্তি আসন্ন, পাকিস্তানের ভূমিকা নিয়ে চিন্তা দিল্লির (৫৪১৯)সোলাইমানির হত্যা নিয়ে এবার যে তথ্য ফাঁস করল জাতিসংঘ (৫৩২৪)