২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

অন্তঃসত্ত্বা ইউএনওকে ওএসডির ঘটনায় সংসদে ক্ষোভ

হোসনে আরা বেগম বীণা - ছবি : সংগ্রহ

অন্তঃস্বত্ত্বা এক ইউএনওকে ওসডি করার ঘটনায় জাতীয় সংসদে সোমবার ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন এমপিরা। তারা বিষয়টি নিয়ে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের তদন্তও দাবি করেছেন। এ ধরনের সিদ্ধান্ত বর্তমান নারী ক্ষমতায়নের যুগে একটি ভুল সিদ্ধান্ত বলেও মন্তব্য করেন তারা।

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার নির্বাহী অফিসার হোসনে আরা বেগম বীণাকে অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় ওএসডি (অফিসার অন স্পেশাল ডিউটি) করা হয়। বিষয়টি নিয়ে তার এক আগেবঘন ফেসবুক স্ট্যাটাসের পর আলোচনা শুরু হয়। সোমাবার জাতীয় সংসদে অনির্ধারিত আলোচনায় অংশ নিয়ে সরকারি দলের সংসদ সদস্য এবং সাবেক মহিলা ও শিশু প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ পয়েন্ট অব অর্ডারে ফ্লোর নিয়ে ওএসডির করার প্রেক্ষাপট হিসেবে হোসনে আর বেগমের ফেসবুক স্ট্যাটাসের প্রসঙ্গটি তুলে ধরেন

তিনি বলেন, একজন ইউএনও অত্যন্ত বেদনাবিধুর স্ট্যাটাস দিয়েছেন। তিনি ৯ বছর পর মা হতে যাচ্ছিলেন। নির্বাচনের সময় তিনি সহকারী রিটার্নিং অফিসার হিসেবে যথাযথভাবে দায়িত্ব পালন করেছেন। এপ্রিল মাসে তার সন্তান জন্মগ্রহণের কথা ছিল। তিনি যখন ডাক্তারের কাছে গেলেন তখন জানতে পারলেন ওএসডি হয়েছেন। এই খবরটি শুনে মানসিকচাপে আকস্মিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়েন এবং তিনি সন্তান প্রসব করেন। সময়ের আগে সন্তানটি প্রসব করার কারণে শিশুটি আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে। ৯ বছর পর মা হওয়া এই নারীর মানসিক অবস্থা কী তা আমরা নিশ্চয়ই উপলব্ধি করতে পারছি।

মেহের আফরোজের প্রশ্ন, দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করা সত্ত্বেও সন্তান সম্ভবা অবস্থায় কেন তাকে ওএসডি করা হলো? তিনি বলেন, একজন অন্তঃসত্ত্বা নারীর সঙ্গে কেমন আচরণ করা উচিত সমাজ এখনও সেই বিষয়টি উপলব্ধি করতে পারে না। এই সময় এমন আচরণ করা উচিত নয় যা সন্তান বা মায়ের ক্ষতির কারণ হতে পারে। মেহের আফেরোজ এই ঘটনার জন্য জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে বিভাগীয় তদন্ত করার দাবি জানান।

পরে একই বিষয়ে কথা বলেন নারায়নগঞ্জের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান। তিনি ফ্লোর নিয়ে বলেন, তিনি আমার নির্বাচনী এলাকা সদর উপজেলার নির্বাহী অফিসার। তিনি সৎ কর্মঠ ও অত্যন্ত ভালো সরকারি কর্মকর্তা। কার নির্দেশে ওই কর্মকর্তাকে ওএসডি করা হয়েছে, প্রশ্ন রেখে শামীম ওসমান বলেন, এই ঘটনার প্রেক্ষাপটে খারাপ কিছু হলে আমি নিজেও নিজেকে ক্ষমা করতে পারবো না।

এ বিষয়ে জনপ্রশাসনমন্ত্রী পদক্ষেপ নেবেন বলে সংসদে সভাপতির দায়িত্বে থাকা ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়া আশা প্রকাশ করেন।


আরো সংবাদ

Hacklink

ofis taşıma Instagram Web Viewer

canli radyo dinle

Yabanci Dil Seslendirme