২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

সন্তানের অস্থির স্বভাবের কারণ জানুন

-

শিশুদের অমনোযোগিতা Attention-Deficit Hyperactivity Disorder (ADHD) একটি দীর্ঘমেয়াদি নিউরো ডেভেলপমেন্ট ডিসঅর্ডার বা মানসিক ব্যাধি। আমাদের সমাজে অনেক মা-বাবা শিশুর বিভিন্ন দুষ্টামির আচরণ নিয়ে চিকিৎসকের কাছে যান। তাদের অভিযোগ- আমার ছেলে অশান্ত দুরন্ত স্বভাব, অরাজক, অনাসৃষ্টি, উচ্ছৃঙ্খল, এলোমেলো, বিভ্রান্ত, অগোছাল, দিশেহারা, তালগোল পাকানো, বিক্ষিপ্ত চিত্ত, দিবাস্বপ্ন এবং দীর্ঘ সময় মনোযোগ না থাকায় ভুলে যাওয়া, বুদ্ধিদীপ্ততা লোপ পাওয়া ইত্যাদি।

দেখা গেছে, এই রোগে আক্রান্ত শিশুরা বয়সকালে দীর্ঘমেয়াদি রোগ বা মানসিক বিকলতায় রূপান্তরিত হয়।

কারণ : ১) জেনেটিক কারণ- ৭৬ শতাংশ জিন জিন ইন্টারঅ্যাকশন;
২) গর্ভকালীন মায়েদের ধূমপান ও অস্থিরতা, বিশৃঙ্খল জীবনযাপন;
৩) মা ডায়াবেটিক রোগী ও অধিক ওজন বা স্থূল স্বাস্থ্যের অধিকারী;
৪) কম ওজনের শিশুর জন্মগ্রহণ;
৫) অকালে জন্মগ্রহণ;
৬) পরিবেশ দূষণ (সিসা, আর্সেনিক, সালফার);

রোগ নির্ণয় : ডিএসএম-৫ মোতাবেক রোগ নির্ণয় করা হয়।
১. স্কুলে লেখাপড়ায় অমনোযোগী;
২. অসর্তকতা ভুল;
৩. ত্রুটিপূর্ণ কাজ;
৪. খেলাধুলায় আগ্রহহীনতা;
৫. স্কুলে/বাড়িতে/কর্মক্ষেত্রে বিফলতা;
৬. বিনা অনুমতিতে অন্যের জিনিস সরানো বা নাড়াচাড়া করা;
৭. প্রয়োজনীয় কাজে ব্যবহৃত বস্তু হারিয়ে ফেলা; যেমন- বই, খাতা, পেনসিল-কলম, চাবি, চশমা, মোবাইল ফোন ইত্যাদি।
৮. ভুলে যাওয়া। প্রতিদিনের কাজকর্ম সময়মতো না করা;
৯. চেয়ারে বসে বারবার হাত-পা নাড়ানো, অস্থিরতা;
১০. শ্রেণিকক্ষে বসে তার নির্দিষ্ট স্থান পরিবর্তন করা;
১১. ছোটাছুটি-দৌড়াদৌড়ি। গাছ বা পিলারে বেয়ে ওঠা;
১২. অতিরিক্ত কথা বলা;
১৩. শৃঙ্খলাবদ্ধ লাইনে দাঁড়িয়ে না থাকতে পারা এবং লাইন ভঙ্গ করে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করা;
১৪. অস্থিরতা;
১৫. অন্যের কথা বলার মধ্যে কথা বলা;
১৬. প্রশ্ন শোনার আগে বা শেষ হওয়ার আগেই উত্তর দেয়া ইত্যাদি।

চিকিৎসা :
১) সাইকোথেরাপিউটিক হস্তক্ষেপ।
২) ওষুধ- Atomexetine, Modafinil, Guanfacine, Desipramine

প্রতিকার :
১) সময়মতো সঠিক রোগ নির্ণয় করে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক দিয়ে চিকিৎসা করানো।
২) গর্ভকালীন সময় মায়েদের সতর্কতার সাথে জীবন যাপন করা।


আরো সংবাদ

Hacklink

ofis taşıma Instagram Web Viewer

canli radyo dinle

Yabanci Dil Seslendirme