২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

'সাপের পোশাক' পরার এমন পরিণতি!

এই পোশাকই কাল হলো ওই নারীর - সংগৃহীত

জেব্রা প্রিন্ট, লেপার্ড প্রিন্ট ও স্নেক প্রিন্টের পোশাক এখন বেশ জনপ্রিয়। কিন্তু এই ধরনের প্রিন্টেড পোশাক পরে মহাবিপদে পড়লেন অস্ট্রেলিয়ার এক নারী। স্নেক প্রিন্টের শৌখিন পোশাক পরে, অবশেষে পা ভেঙে হাসপাতালে ভর্তি হতে হলো তাকে।

বরাবরই ট্রেন্ডিং ফ্যাশনের পোশাক পরার শখ ছিল অস্ট্রেলিয়ার ওই নারীর। বিভিন্ন দোকান থেকে পছন্দসই পোশাক কিনে, সেগুলোকে বাড়িতে এনে ট্রায়াল দিতেন। নতুন পোশাক পরে বিভিন্ন ছবি তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করতেন। কিন্তু এই ‘ফ্যাশন সেন্স’ই চরম বিপদের দিকে ঠেলে দিলো তাকে। তার সাথে যা ঘটল, সোশ্যাল মিডিয়ায় তা জানতে পেরে মিশ্র প্রতিক্রিয়া নেটিজেনদের। কী ঘটেছিল?

জানা গিয়েছে, কয়েকদিন আগে স্নেক প্রিন্টের একটি পোশাক দোকান থেকে কিনে আনেন অস্ট্রেলিয়ার ওই নারী। পোশাকটি পরে ছবি তোলেন। এবং সেই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন। পোশাকটি তার এতোটাই পছন্দ হয়েছিল যে, সেটা পরে রাতে ঘুমিয়েও পড়েন তিনি। এরপরই ঘটে বিপত্তি। রাতে কাজ থেকে বাড়ি ফেরেন তার স্বামী এবং ঘরে ঢুকেই চমকে যান। আলো-আঁধারি ঘরে ঢুকে তিনি ভাবেন খাটের উপর সাপ! আতঙ্কে, বেসবলের ব্যাট দিয়ে সজোরে আঘাত করেন তিনি। যন্ত্রণায় চিৎকার করে ওঠেন ওই নারী।

ভুল বুঝতে পারেন তার স্বামী। বুঝতে পারেন ওটা সাপ নয়, আসলে তার স্ত্রীর পা। কিন্তু ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে গেছে। বেসবল ব্যাটের আঘাতে ভেঙে গেছে তার পা। এরপর তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

মুহূর্তের মধ্যে ছবি-সহ ঘটনার খবর ছড়িয়ে পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ায়। নেটিজেনদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা যায়। কেউ বিষয়টাকে উপভোগ করেন আর কেউ বা সমবেদনা জানান।


আরো সংবাদ

Hacklink

ofis taşıma Instagram Web Viewer

canli radyo dinle

Yabanci Dil Seslendirme