১৮ নভেম্বর ২০১৮

সেলফি তোলা নিয়ে দুই নারীর চুলাচুলি (ভিডিও)

সেলফি তোলা নিয়ে দুই নারীর চুলাচুলি - ডেইলি মেইল

সেলফি। উঠতে সেলফি, বসতে সেলফি- জীবন এখন সেলফি-ময়। যেখানেই যাওয়া হোক না কেন সেলফি না তুললে যেন সব বৃথা মনে হয় অনেকেরই। এই রোগের ভয়াবহতা এতোটাই যে, কোনো কিছুকে পরোয়া করে না তারা। চলন্ত ট্রেনের সামনে হোক, অথবা উঁচু ভবনের চূড়ায় সেলফি তুলে নিজেকে জাহির করতে গিয়ে প্রাণ হারিয়েছেন অনেকে। তবে সম্প্রতি এই রোগে আক্রান্ত দু'জনের একটি ভিডিও আলোচনায় এসেছে।

কী করেছেন তারা?

না, সেলফির জন্য জীবন ত্যাগ করেননি। তবে যা করেছেন, তা খুবই লজ্জাজনক। জনপ্রিয় একটি স্পটে সেলফি তোলার জন্য চুলাচুলি করেছেন তারা।

ঘটনাটি ঘটেছে ইতালির রোমে। বিখ্যাত ট্রেভি ঝরনার সামনে। প্রতিদিন হাজার হাজার পর্যটক এটি দর্শনের জন্য আসেন। সেলফি তোলেন। বুধবার রাতেও এর ব্যতিক্রম হয়নি। হাজার হাজার দর্শনার্থী ঝরনার সৌন্দর্য্য উপভোগ করতে আসেন। সেলফি তুলতে থাকেন।

এমসয় ১৯ বছর বয়সী ডাচ তরুণীর সাথে ইতালিয়ান-আমেরিকান ৪৪ বছর বয়সী এক নারীর কথা কাটাকাটি শুরু হয় সেলফি তোলা নিয়ে। দু'জনেই সেখানে সেলফি তুলতে চাচ্ছেন এবং কেউ কাউকে জায়গা দিতে রাজী হচ্ছেন না। এক পর্যায়ে সেটি হাতাহাতিতে রূপ নেয়। সবশেষে চুলাচুলি করতে থাকেন। তাদের কেউ থামাতেই পারছিলেন না।

পরে টহল পুলিশের দুটি দল এসে পরিস্থিতি সামলান। তবে ওই দুই নারীর বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। তাদের ছেড়ে দেয়া হয়েছে। দু'জনেইর অবস্থায়ই ছিল গুরুতর। হাতে-মুখে রক্ত ঝরছিল।

প্রতিদিন হাজার হাজার পর্যটক ট্রেভি ঝরনার সৌন্দর্য্য উপভোগ করতে আসেন

 

তাদের এই চুলাচুলি দেখে আশপাশের মানুষ হতবাক হয়ে গিয়েছিলেন। এক সেলফির জন্য এমন কাণ্ড কেউ করতে পারেন!

দেখুন সেই ঘটনার ভিডিও-

 

আরো পড়ুন : মম চিত্তে নিতি নৃত্যে কে যে নাচে...

সূচালো মুখ। চোখজোড়া বড় বড়, যেন ঠিকরে বেরিয়ে আসবে। লকলকে হাত-পা। লম্বা লেজ। দেখতে কিঞ্চিত অদ্ভুত এই প্রাণীটি। পরিচিত লেমুর নামে। মাদাগাস্কার দ্বীপেই কেবল তাদের বসবাস। নিশাচর বানর বলা হয় এদের। গাছে গাছে লাফালাফি করে। আর খায় লতা-পাতা। কিন্তু দিন কয়েক আগেই তাদের দেখা গেছে, ভিন্ন রূপে। সেটা কেমন?

পশ্চিম মাদাগাস্কারের বেরেন্টি রিসার্ভে এক দল লেমুরকে দেখা গেছে তিড়িং বিড়িং করে নাচতে। কী সেই নাচ? দুই হাত উপরে তুলে, চোখজোড়া বিস্ফোরিত করে আর দুই পা শূন্যে বাকিয়ে নৃত্য!

যেন 'মম চিত্তে নিতি নৃত্যে কে যে নাচে/ তাতা থৈথৈ, তাতা থৈথৈ, তাতা থৈথৈ' গানের তালে তালে নেচে বেড়াচ্ছে তারা।

লেজ দুলছিল শূন্যে। সে এক দেখার মতো দৃশ্য! বনের এই প্রান্ত থেকে ওই পর্যন্ত মনের সুখে নেচে নেচে পার হচ্ছিল লেমুরগুলো। 

এই চমৎকার মুহূর্তগুলো ক্যামেরাবন্দি করেছেন ৪৫ বছর বয়সী ফটোগ্রাফার ডেল মরিস। রিসার্ভে বেড়াতে এসেই লেমুরের নৃত্য দেখে অভিভূত তিনি।

বলেন, ''এই প্রজাতির প্রাণীগুলো মাটিতে নামে না। তারা গাছে গাছে ঝুলে বেড়ায়। কিন্তু এদের মাটিতে নেমে তিড়িং বিড়িং করে নাচতে দেখে তাদের নতুন নাম দিতে ইচ্ছে হলো, 'নাচুনি লেমুর'।''

 

আরো পড়ুন : সন্তানকে বাঁচাতে বন্য কুকুরদের সাথে একাই লড়াই করলো মা সিংহ

মা, সন্তানের জন্য নিজের জীবন পর্যন্ত দিতে পারেন। পাশাপাশি সন্তানকে বাঁচাতে লড়াই চালিয়ে যেতে পারেন শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত। তেমনটাই করলো এক সাহসী মা সিংহ। সন্তানদের বাঁচাতে একাই যুদ্ধ চালিয়ে গেল সে।

হ্যাঁ, যুদ্ধই বলা চলে। যেভাবে বন্য কুকুরদের দলের সাথে লড়াই করেছে সে, তাতে হতভম্ব না হয়ে পারা যায় না।

ঘটনাটি ঘটেছে আফ্রিকার বতসোয়ানার মোরেমি গেম রিজার্ভে। অন্য দিনের মতো সেখানে গাড়ি নিয়ে সবকিছু পর্যবেক্ষণ করছিরেন শালিন ফারনান্দো। হঠাৎ তিনি দেখতে পান, এক মা সিংহকে ঘিরে আছে এক দল বন্য কুকুর। তাদের চোখ সিংহীর সন্তানদের ওপর। লোলুপ দৃষ্টি সিংহ শাবকদের ছিড়ে কুড়ে খাওয়ার।

কিন্তু সেই দৃষ্টি মা সিংহীকে দুবর্ল নয়, বরঞ্চ সাহস বাড়িয়ে দেয়। সন্তানদের বাঁচাতে সর্বশক্তি সঞ্চয় করতে থাকে। ধীরে ধীরে বন্য কুকুরগুলো মা সিংহকে ঘিরে ধরে। তেড়ে যায় সিংহী। যুদ্ধের মাঠে তাণ্ডব চালায় একাই। ঘুরে ঘুরে বন্য কুকুরদের শায়েস্তা করতে থাকে। ততক্ষণে সিংহ শাবক দেয় ছুট। আর মা একাই লড়াই চালিয়ে যায়।

এক পর্যায়ে কামড় বসায় এক কুকুরের ঘাড়ে। আছড়ে পাছড়ে নিস্তেজ করে ছাড়ে। তখনো বাকি কুকুরগুলো ঘিরে আছে, একের পর আক্রমণ করছে। কিন্তু সিংহী তাতেও দমে যাচ্ছে না। যুদ্ধক্ষেত্রে লড়াই করেই যাচ্ছে।

এভাবে প্রায় আধা ঘণ্টা চলে যুদ্ধ। ফারনান্দো পুরো ঘটনার সাক্ষী ছিলেন।

তার ভাষ্য, 'আমি পুরো ঘটনা দেখে যার পর নাই আশ্চর্য হয়েছি। কিভাবে মা সিংহ একাই লড়াই করে যাচ্ছে।'

তবে দুঃখের কথা হলো, বন্য কুকুরদের হাত থেকে সব সন্তানদের বাঁচাতে পারেনি মা। তবে শেষ পর্যন্ত লড়াই করে গেছে।

ফারনান্দো জানান, এই ঘটনার পরদিন বেঁচে যাওয়া সিংহ শাবকটিকে শিকার করতে ঘুর ঘুর করছিল লড়াইয়ে আহত বন্য কুকুরের দল।


আরো সংবাদ

নির্বাচনী প্রার্থীদের নদী রার অঙ্গীকার মঙ্গলকর : তথ্যমন্ত্রী ধর্মহীন রাজনৈতিক দলের সাথে জোট করে কল্যাণরাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা সম্ভব নয় : সৈয়দ রেজাউল করীম লাঙ্গল প্রতীকে নির্বাচন করবে জাতীয় পার্টি : মহাসচিব রাষ্ট্রপতি হওয়ার স্বপ্নে বিভোর ড. কামাল : হানিফ নিরপেক্ষ নির্বাচনের পরিবেশ তৈরি হয়নি : বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি বিচারিক ক্ষমতা ছাড়া সেনাবাহিনী মোতায়েনের সফলতা নিয়ে সংশয় মহাজোটে ভিড়ছে ভুঁইফোড় দল লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নিশ্চিত করবে নির্বাচন কমিশন : ওবায়দুল কাদের আ’লীগ-বিএনপি উভয় দলেই একাধিক প্রার্থী আওয়ামী লীগ-বিএনপিতে কোন্দল জামায়াত নীরবে চালাচ্ছে তৎপরতা বিভিন্ন স্থানে বিরোধী নেতাকর্মী গ্রেফতার অব্যাহত

সকল