১৪ নভেম্বর ২০১৮

নতুন কমিটির দাবিতে ছাত্রদলের আল্টিমেটাম : শোডাউনের প্রস্তুতি

কেন্দ্রিয় কার্যালয়ে ছাত্রদলের নেতা-কর্মীরা - ছবি : সংগ্রহ

আগামী মঙ্গলবারের মধ্যে নতুন কমিটির ঘোষণা চেয়ে আল্টিমেটাম দিয়েছে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের বহু নেতাকর্মী। ছাত্রদলের নতুন কমিটিতে পদ প্রত্যাশী কেন্দ্রীয় নেতারা রোববার দুপুরে নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর কাছে মৌখিকভাবে এই সময়সীমা বেঁধে দেন।

দুপুরে ছাত্রদলের ২০/২৫ জন কেন্দ্রীয় সিনিয়র নেতা রিজভীর সাথে দেখা করেন। দ্রুত কমিটি না হলে বর্তমান নেতাদের রাজনৈতিক ভবিষ্যত হুমকির সম্মুখীন হবে বলে জানান তারা।

ছাত্রদল নেতাদের বক্তব্য শুনে রিজভী বলেন, এখন বিএনপি চেয়ারপারসনের মুক্তির আন্দোলনের সময়। এই মুহুর্তে কমিটি দিলে বিদ্রোহ হতে পারে। কেউ সুযোগ নিতে পারে। এসময় উপস্থিত ছাত্রদল নেতাদের কয়েকজন বলেন, আমরা লিখিত দেব দলের এই সময়ে আমরা কোনো বিদ্রোহ করব না। শতভাগ দায়িত্ব নিয়ে বলছি বিদ্রোহ করব না।

এরপরও বিভিন্নভাবে ছাত্রদল নেতাদের বোঝানোর চেষ্টা করেন রিজভী। তখন কয়েকজন ছাত্রদল নেতা বলে ওঠেন, কিসের ভুগোল বোঝান আমাদের? মাত্র কিছুদিনের মধ্যে সারাদেশে এতোগুলো জেলা ও ইউনিট কমিটি গঠন হয়েছে। তেমন কোনো সমস্যা হয়নি। এরপর এখন সেন্ট্রাল কমিটি করলে কি সমস্যা হবে?

তারা বলেন, আপনি ভাইয়ের (তারেক রহমান) সাথে একটু কথা বলেন। বলেন কঠোরভাবেই কথা বলে গেছে পদ প্রত্যাশীরা। আমরা দ্রুত এই কমিটির একটা সমাধান চাই।

ছাত্রদল নেতারা জানান, চার বছর ধরে বর্তমান কমিটি দিয়ে চলছে। এই কমিটি আমরা মানিনা। নতুন কমিটি না হলেও বর্তমান কমিটি ভেঙে দেয়া হোক।

ছাত্রদল নেতারা রুহুল কবির রিজভীর সঙ্গে সাক্ষাতের পর কার্যালয়ে অবস্থানরত বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সাথে দেখা করার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। এর আগেই মহাসচিব দ্রুত কার্যালয় ত্যাগ করেন। পরে ছাত্রদল নেতারা দলীয় কার্যালয়ের ৪ তলায় ছাত্রদলের অফিসে গিয়ে অবস্থান করেন। সেখানে আগামী ৪ সেপ্টেম্বর কমিটি ঘোষণার দাবিতে বড় ধরণের প্রতিক্রিয়া দেখানোর প্রস্তুতি নিয়ে আলোচনা করেন। নেতারা ৪ তারিখ কে কতজন কর্মী আনবেন সে বিষয়ে প্রতিশ্রুতি দেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন- ছাত্রদলের সহ সভাপতি নাজমুল হাসান, আব্দুল ওহাব, প্রথম যুগ্ম সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ, নুরুল হুদা বাবু, আবুল হাসান, শামছুল আলম রানা, সহ সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আজিম, আজিজুল হক পাটুয়ারী, ক্রীড়া সম্পাদক সৈয়দ মাহমুদ সহ কেন্দ্রীয় নেতারা।

এর আগে গত বছরই ছাত্রদলের বর্তমান সভাপতি, সেক্রেটারিকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেন সিনিয়র শতাধিক নেতা। ফলে ছাত্রদলের নতুন কমিটি নিয়ে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। ২০১৪ সালের ১৬ অক্টোবর রাজীব আহসানকে সভাপতি ও আকরামুল হাসানকে সাধারণ সম্পাদক করে বর্তমান কমিটি গঠন করা হয়। দুবছর পূর্বেই এই কমিটির মেয়াদোত্তীর্ণ হয়েছে।


আরো সংবাদ