১৬ জুলাই ২০১৯

শিবিরকে জড়িয়ে ভিত্তিহীন খবরের প্রতিবাদ

-

একটি জাতীয় দৈনিকে ‘নির্বাচনে নাশকতার প্রস্তুতি নিচ্ছে শিবির’ শীর্ষক প্রতিবেদনে ছাত্রশিবিরকে জড়িয়ে মিথ্যা ও ভিত্তিহীন খবর প্রকাশের তীব্র নিন্দা এবং প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির।

এক যৌথ প্রতিবাদ বার্তায় ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত ও সেক্রেটারি জেনারেল মোবারক হোসাইন বলেন, সাংবাদিকতা নয়, একটি আদর্শিক সংগঠনের বিরুদ্ধে অপপ্রচারের হাতিয়ারে পরিণত হয়েছে এই দৈনিক । নির্বাচনে নাশকতার প্রস্ততি নিচ্ছে শিবির এমন বানোয়াট গল্প জুড়ে দিয়ে ইচ্ছামত কুৎসা রটনা করা হয়েছে প্রতিবেদনে। অথচ এমন ঘৃন্য অভিযোগের পক্ষে সামান্যতম প্রমাণও দিতে পারেনি। বরং সম্প্রতি চট্টগ্রামে একটি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান থেকে অন্যায়ভাবে নিরপরাধ ছাত্রদেরকে গ্রেপ্তারের ঘৃন্য বিষয়টিকে নাশকতার পরিকল্পনা বলে উল্লেখ করা হয়েছে। পুলিশের বরাত দিয়ে অন্যায় ভাবে গ্রেপ্তার হওয়া শিবির নেতার শান্তিপূর্ণ কর্মসূচির বক্তব্যকেও ঘুরিয়ে পেচিয়ে প্রচার করা হয়েছে। ইফতার মাহফিল, সাংগঠনিক বৈঠক ও কর্মকান্ডকেও বিকৃতভাবে তুলে ধরা হয়েছে।

শত চেষ্টা করেও তথাকথিত নাশকতার সামান্য তথ্যও দিতে পারেনি পুলিশ বা গণমাধ্যম। নিয়মতান্ত্রিক সাংগঠনিক কর্মকান্ড, ইফতার মাহফিল, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানকে নাশকতার প্রস্তুতি উল্লেখ করে অপপ্রচার করা কোন সুস্থ মস্তিকের কাজ হতে পারেনা। একটি মুসলিম প্রধান দেশে ঈদ পূনর্মিলনীর মত সামাজিক অনুষ্ঠান যাদের কাছে অপরাধ হিসেবে বিবেচিত তারা জ্ঞান পাপী ছাড়া কিছু নয়। অবৈধ সরকার ও নিপীড়ক পুলিশের সহকারীর ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে গণমাধ্যমটি। এসব কল্প কাহিনীকে পুঁজি করে জামায়াত-শিবির নেতাকর্মীদের উপর জুলুম নির্যাতন করার সুযোগ তৈরীর জন্য এই সিন্ডিকেট অপপ্রচার করা হচ্ছে তাতে সচেতন দেশবাসীর কোন সন্দেহ নেই।

নেতৃবৃন্দ বলেন, আমরা আশা করি সাংবাদিকতার মহান পেশাকে প্রশ্নবিদ্ধ না করে দৈনিক পত্রিকাটি বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন করবে। দেশবাসী কোন গণমাধ্যমকে রাজনৈতিক অপপ্রচারের হাতিয়ার হিসেবে দেখতে চায়না। অপপ্রচারের কারণে কারো জান মালের ক্ষতি হলে দৈনিক পত্রিকাটি তার দায় এড়াতে পারবে না।

নেতৃবৃন্দ সত্য প্রকাশের স্বার্থে এ ধরণের মিথ্যা ও ভিত্তিহীন প্রতিবেদন প্রকাশ থেকে বিরত থাকতে সংশ্লিষ্ট প্রতিবেদক ও গণমাধ্যমের প্রতি আহ্বান জানান।


আরো সংবাদ




gebze evden eve nakliyat instagram takipçi hilesi