২০ জুলাই ২০১৯

খালেদা জিয়াকে পছন্দমতো সুচিকিৎসা দেয়ার দাবী

-

বিএনপি চেয়ারপারসন কারাবন্দী অসুস্থ বেগম খালেদা জিয়ার অবিলম্বে তার পছন্দমতো সুচিকিৎসার দাবি জানিয়েছে এসোসিয়েশন অব পোস্ট গ্রাজুয়েট ডক্টরস। বুধবার সংগঠনের সমন্বয়ক ডা. একেএম মহিউদ্দিন ভুঁইয়া মাসুম স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এ দাবি জানানো হয়। বিবৃতিতে বলা হয়, বানোয়াট মামলায় সাজানো রায়ের মাধ্যমে নির্জন কারগারে অন্তরীণ রেখে সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে তার ইচ্ছা অনুযায়ী ন্য‚নতম চিকিৎসা সেবা না দিয়ে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেয়া হচ্ছে। একজন সাধারণ নাগরিক যে নূন্যতম চিকিৎসা সুবিধা পান তাও তিনি পাচ্ছেন না। শুধু রাজনৈতিক প্রতিহিংসাপরায়ণ হয়ে সরকার তাকে কারাঅন্তরীণ করে চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত করে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিচ্ছে। বিএসএমএমইউ, ঢাকা মেডিক্যাল ও সিএমএইচ-এ তার চিকিৎসার কথা বলে জাতিকে বিভ্রান্ত করা হচ্ছে। তিনি তার ইচ্ছানুযায়ী যেকোনো হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা নেয়ার অধিকার রাখেন।
বিবৃতিতে বলা হয়- এ সরকারের অনেক নেতা ১/১১ এর সময় স্কয়ার, ল্যাব এইড এবং বারডেম হাসপাতালে নিজ ইচ্ছানুযায়ী চিকিৎসা সেবা নিয়েছেন। অথচ সাবেক প্রধানমন্ত্রীর বেলায় বিভিন্ন বিধির কথা বলা হচ্ছে। তখন এরা কোনো বিধিতে প্রাইভেট হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন। বর্তমানেও অনেক কারাবন্দি নিজ ইচ্ছা অনুযায়ী বারডেমসহ বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। খালেদা ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপসহ নানা রোগে আক্রান্ত। গত ৫ই জুন তিনি মাইল্ড স্ট্রোকে আক্রান্ত হন। যা চিকিৎসা বিজ্ঞানে টিআইএ নামে পরিচিত। ফলে যে কোনো সময় খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের মারাত্মক ক্ষতি হতে পারে। একাকী নির্জন কারাগারে ঘন ঘন লোডশেডিং করিয়ে তার স্বাস্থ্য আরো খারাপ করে দেয়া হচ্ছে। ফলে তিনি যেকোনো সময় প্রিজনার সাইকোসিসে আক্রান্ত হতে পারেন। এতে তিনি মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলতে পারেন। খালেদা জিয়াকে ন‚্যনতম চিকিৎসা সেবা না দিয়ে সরকার কি করতে চায় তা জাতির কাছে পরিষ্কার। আমরা অবিলম্বে খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করছি। সেইসাথে তার ইচ্ছা অনুযায়ী সুচিকিৎসার দাবি জানাচ্ছি। অন্যথায় সংশ্লিষ্ট সবাইকে দায় নিতে হবে। বিজ্ঞপ্তি


আরো সংবাদ




gebze evden eve nakliyat instagram takipçi hilesi