২২ নভেম্বর ২০১৯

টালমাটাল পেঁয়াজ

-

স্বস্তির বাজারে অস্থির পেঁয়াজ, সবকিছু লোকাল ও সাবএক্সপ্রেস ট্রেনে চললেও পেঁয়াজ চলেছে ননস্টপ সুবর্ণ এক্সপ্রেস ট্রেনে, যার গতি শেষ স্টেশনে না পৌঁছা পর্যন্ত থামবে না। আর এর শেষ কোথায় তা কারোরই অজানা নয়। দেশে উৎপাদিত পেঁয়াজে আমাদের চাহিদা মেটাতে না পারায় আমদানি করতে হয়। আর এই আমদানিনির্ভরতা একটা নির্দিষ্ট রাষ্ট্রের ওপর নির্ভর না করে বিভিন্ন দেশ থেকে আমদানি করেও চাহিদা পূরণ করা যেতে পারে। এতে অস্থিরতার কিছু থাকার কথা নয়। আমরা জানি কোনো কিছুর সঙ্কট স্থায়ী নয়, সাময়িক সময়ের জন্য, কিন্তু এ সাময়িক সময়ের জিনিসটাকে কিছু অতি মুনাফালোভী মজুদদার সিন্ডিকেট করে সারা দেশের সাধারণ মানুষকে জিম্মি বানিয়ে যে ফায়দা লুটে নেয় তাদের নীতি নৈতিকতার কোনো ছিটেফোঁটাও আছে কি না, এটা বর্তমানে আমাদের দায়িত্বশীল লোকেদের ভেবে দেখার বিষয়।

আমাদের পররাষ্ট্রনীতিতে আছে, একটা স্বাধীন সাবভৌম রাষ্ট্র হিসেবে কোনো রাষ্ট্রের সাথে বৈরিতা নয়, সবার সাথে বন্ধুত্বপূর্ণ সুসম্পর্ক বজায় রাখতে হবে। সুসম্পর্ক বজায় রাখতে গিয়ে নিজ রাষ্ট্রের স্বার্থ জলাঞ্জলি দেয়ার নীতি উল্লেখ আছে কি না, তা আমার জানা নেই। ভৌগোলিক অবস্থানের কারণে আমাদের দেশের দক্ষিণ দিকে বঙ্গোপসাগর, বাকি তিন দিকের একটু অংশ মিয়ানমারের নদী সংযোগ ছাড়া প্রায় পুরোটাই ভারতবেষ্টিত। ২৯টি প্রদেশের সমন্বয়ে গঠিত বিশাল ভারতের সবচেয়ে ছোট প্রদেশটির আয়তনও আমাদের সুজলা সুফলা মাতৃভূমি বাংলাদেশের চেয়ে অনেক বড় এবং তাদের জনসংখ্যাও আমাদের দেশের চেয়ে অনেক বেশি। এ কারণে সে দেশের সব ধরনের কৃষিজাত দ্রব্যের উৎপাদন মাত্রা বেশি এবং রফতানিও বেশি। বিশাল ভারতের পেটের ভেতর অবস্থানরত আমাদের ছোট দেশে জনসংখ্যার তুলনায় কৃষিজমি কম হওয়ায় আমাদের অনেক পণ্যই পুরো বছরের চাহিদা পূরণে সক্ষম নয় বলে সময় ও খরচের কথা চিন্তা করে এসব পণ্য প্রতিবেশী রাষ্ট্র ভারত থেকে আমদানি করতে হয়।

প্রতিবেশী রাষ্ট্র, বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক, সম্পর্ক অতি উচ্চ মাত্রায় এবং কথায় কথায় বর্তমানে সম্পর্ক আরো উচ্চমাত্রায় থাকলেও মাঝে মাঝে আমাদের কিছু জিনিসের সঙ্কটমুহূর্তে বন্ধু রাষ্ট্রে প্রাচুর্যতা সত্ত্বেও কৃত্রিম সঙ্কটের কথা বলে আমাদের কাছ থেকে বন্ধুত্বপূর্ণ সুযোগ আদায় করে নিতে দ্বিধাবোধ করে না। তার প্রমাণ ২০০৬ থেকে ২০০৮ সালে আমাদের তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে চাল নিয়ে যে চালাচালি, ২০১৬ সালে একবার পেঁয়াজ নিয়ে ফালাফালি এবং বর্তমানে পেঁয়াজের টালমাটাল অবস্থা; তা ছাড়াও মাঝে মাঝে আরো কিছু পণ্য নিয়েও বন্ধুরাষ্ট্র সুযোগ আদায় করতে ছাড়ে না। এতকিছু সত্ত্বেও ক’দিন আগে আমাদের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছিলেন, ‘ভারতের সাথে আমাদের সম্পর্ক স্বামী-স্ত্রীর মতো’। স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্কটা অবশ্যই ভালো। কিন্তু এখানে আমার একটা প্রশ্ন, তা হলো- কে স্বামী আর কে স্ত্রী? ফোর্ট উইলিয়াম কলেজের অধ্যাপক দক্ষিণা রঞ্জন মিত্র মজুমদার তার বাংলা সাহিত্যের ইতিবৃত্তে লিখেছিলেন ‘বিশেষণের সবিশেষ কহিবারে পারি, জাননি স্বামীর নাম নাহি লহে নারী’। মন্ত্রী মহোদয় হয়তো সে কারণেই স্বামীর নাম উল্লেখ করেননি।

বাজারে নতুন পেঁয়াজপাতা বিক্রয় দেখে বোঝা যায় ক’দিনের মধ্যেই নতুন পেঁয়াজ বাজারে আসতে তেমন একটা দেরি নেই। অবশেষে ভারতের থলের বিড়াল বেরিয়ে আসে, ৩১ অক্টোবরের বাংলাদেশ প্রতিদিনসহ বিভিন্ন নিউজে ‘ভারতে পেঁয়াজের মূল্য সর্বকালের সর্বনিম্নে, প্রতি কেজি পেঁয়াজ ৬ থেকে ১০ রুপিতে বিক্রয় হচ্ছে। পেঁয়াজ রফতানি নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের নিষেধাজ্ঞায় কৃষকের মাথায় হাত। পেঁয়াজের পচন রোধ ও নতুন পেঁয়াজের আগমনী চিন্তায় দিশেহারা হয়ে সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বেঙ্গালুরু, কর্নাটকসহ বিভিন্ন প্রদেশের কৃষকরা পেঁয়াজ রফতানি শুরু করেছেন। অবশেষে কৃষকদের চাপের মুখে ২৮ অক্টোবর সে দেশের কেন্দ্রীয় সরকার পেঁয়াজ রফতানির নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নেয়। আমাদের পেঁয়াজ সঙ্কটের সুযোগ আদায় করতে গিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার গত ২৯ সেপ্টেম্বর পেঁয়াজ রফতানিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করে। ফলে আমাদের দেশে এই পণ্যটির দামে অস্থিরতা দেখা দেয়। হু হু করে দাম বাড়তে থাকে। মজার ব্যাপার হলো, সুযোগ আদায় করতে গিয়ে কাজটা তাদের নিজের জন্যই বুমেরাং হয়ে দাঁড়িয়েছে। অর্থাৎ পেঁয়াজ নিয়ে বন্ধু রাষ্ট্র নিজের জালে নিজেই ফেঁসে গেছে।

সবশেষে বলতে হয়, বন্ধু রাষ্ট্রের সাথে কোনো সমঝোতা করতে না পারলেও অতি মুনাফালোভী ও দুর্নীতিবাজ মজুদদারদের হাত থেকে সঙ্কটের সময় দেশের বাজার ঠিক রাখার স্বার্থে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ব্যবস্থা নেয়া প্রয়োজন, যাতে করে জরিমানার ভয়ে এসব ব্যবসায়ী মুহূর্তে মুহূর্তে পণ্যের দামের ভারসাম্য ঘটাতে না পারে। তা হলেই পেঁয়াজের অস্থির বাজারে স্বস্তি ফিরে আসবে বলে জনগণের বিশ্বাস।

লেখক : মানবাধিকার কর্মী


আরো সংবাদ

আজানের মধুর আওয়াজ শুনতে ভিড় অমুসলিমদের (২৫৪৫৭)ধর্মঘট প্রত্যাহার : কী কী দাবি মেনে নিয়েছে সরকার (২০৯৩৪)মানবতাকে জয়ী করেছে পাকিস্তান : রাবিনা ট্যান্ডন (১৯৪৬৭)কম্বোডিয়ায় কাশ্মির ইস্যুতে বক্তব্য, প্রতিবাদ করায় ঘাড় ধাক্কা দিয়ে বের করা হলো বিজেপি নেতাকে (১৯১৮৮)ব্যাংকে ফোন দিয়ে তদবির করে ‘ছাত্রলীগ সভাপতি’ আটক (৯৮৭১)আবারো রুশ-চীনা অস্ত্র কিনবে ইরান, আশঙ্কা যুক্তরাষ্ট্রের (৯৭৬৩)৪ ভারতীয়কে জাতিসঙ্ঘের সন্ত্রাসী তালিকাভূক্ত করবে পাকিস্তান (৯৫৮৪)৩৫ বর্গ কিলোমিটার এলাকা নিয়ে নেপাল-ভারত তুমুল বিরোধ (৯৩৪৩)গৃহশিক্ষক বিয়েতে বাধা দেয়ায় ছাত্রীর আত্মহত্যা (৯০৫০)ইলিয়াস কাঞ্চনকে যে কারণে সহ্য করতে পারেন না বাস-ট্রাক শ্রমিকরা (৯০১৪)