esans aroma gebze evden eve nakliyat Ezhel Şarkıları indir Entrumpelung wien Installateur Notdienst Wien webtekno bodrum villa kiralama
২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০

ভারতের পামওয়েল আমদানি বন্ধ ঠেকাতে কূটনৈতিক পথে মালয়েশিয়া বাণিজ্য বিরোধের জের

-

পামওয়েল আমদানি বন্ধ ঠেকাতে ভারতের সাথে কূটনৈতিকভাবে সমস্যা সমাধানের পথে হাঁটছে মালয়েশিয়া। প্রধানমন্ত্রীর মিডিয়া উপদেষ্টা ভারতীয় পণ্যাদি আমদানি সম্পর্কে কঠোর বিধিমালা করার আহ্বান জানানোর পর বৃহস্পতিবার দুই দেশের সরকারের সূত্র জানিয়েছে, ভারতের পদক্ষেপের পাল্টা কোনো পদক্ষেপ নিয়ে পাম অয়েল নিয়ে ভারতের সাথে সঙ্কট আরো বাড়িয়ে তুলতে চায় না মালয়েশিয়া।
পাল্টা পদক্ষেপ নেয়ার পরিবর্তে কূটনৈতিকভাবে সমস্যার সমাধানের ওপর জোর দিয়ে ভারতের ক্রোধ প্রশমন করতে চাইছে মালয়েশিয়া। ভারত কাশ্মির ও নাগরিকত্ব সংশোধন আইনকে (সিএএ) অভ্যন্তরীণ বিষয় বলে মনে করে, সে বিষয়ে মন্তব্য করেছেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ড. মাহাথির মোহাম্মদ। তার এমন ভূমিকায় মোদি সরকার মালয়েশিয়া থেকে আমদানি করা পরিশোধিত পামওয়েলের ক্ষেত্রে কড়াকড়ি আরোপ করেছে এবং প্রযুক্তিগত মানদণ্ড আরোপে মাইক্রোপ্রসেসরের ওপর বিধিনিষেধ আরোপের পরিকল্পনা করছে। তা ছাড়া টেলিকম বিষয়ক সরঞ্জামের বিষয়ে একটি মান নিয়ন্ত্রণ নির্দেশনা দেয়ার বিষয়ে কাজ করছে। পামওয়েলের পর এবার তেল ও গ্যাসসহ অন্যান্য পণ্য মালয়েশিয়া থেকে আমদানির ক্ষেত্রেও নিষেধাজ্ঞা আরোপের পরিকল্পনা করছে ভারত। অধিকৃত কাশ্মিরের স্বায়ত্তশাসন এবং নাগরিকত্ব আইনের বিষয়ে ভারত সম্পর্কে মাহাথির সমালোচনা করার প্রতিশোধ হিসেবেই এসব পদক্ষেপ নিচ্ছে ভারত।
ইতোমধ্যে মালয়েশিয়া থেকে পামওয়েল আমদানি বন্ধ করেছে বিশ্বের বৃহত্তম ভোজ্যতেলের ক্রেতা ভারত। মালয়েশিয়ার পরিবর্তে অন্য কোনো দেশ থেকে পামওয়েল আমদানি করতে স্থানীয় ব্যবসায়ীদের নির্দেশনাও দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ভারতের দু’জন সরকারি কর্মকর্তা রয়টার্সকে জানিয়েছেন, পামওয়েলের পর মালয়েশিয়া থেকে পেট্রোলিয়াম, অ্যালুমিনিয়াম, তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস (এলপিজি), কম্পিউটার যন্ত্রাংশ ও মাইক্রোপ্রসেসর আমদানিতেও নিষেধাজ্ঞা আরোপের পরিকল্পনা করছে নয়া দিল্লি। মালয়েশিয়া থেকে পামসহ সব ধরনের পণ্য আমদানি বন্ধ করেছেন ভারতের ব্যবসায়ীরা। কূটনৈতিক সম্পর্কে ফাটল ধরায় সরকার নিজ দেশের আমদানিকারকদের মালয়েশিয়া থেকে পামওয়েল না কিনতে আহ্বান জানানোর পরপরই ব্যবসায়ীরা কুয়ালালামপুর থেকে পাম কেনা বন্ধ করেন। গত সপ্তাহে মালয়েশিয়া থেকে পামওয়েল আমদানির বিষয়ে ফের ব্যবসায়ীদের সতর্ক করে দেয় দিল্লি। ফলে ভারতীয় আমদানিকারকরা কুয়ালামপুর থেকে কোনো অপরিশোধিত বা পরিশোধিত পামওয়েল কিনছেন না। কমপক্ষে পাঁচটি প্রতিষ্ঠান বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। তবে শীর্ষস্থানীয় একজন রিফাইনার বলেছেন, সরকারিভাবে মালয়েশিয়া থেকে অপরিশোধিত পামওয়েল আমদানিতে নিষেধাজ্ঞা নেই। ক্রেতারা এখন ইন্দোনেশিয়া থেকে আমদানি করছেন।
সম্প্রতি মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ড. মাহাথির মোহাম্মদ বলেছেন, ভারত জম্মু-কাশ্মিরে সামরিক আগ্রাসন চালিয়ে ওই এলাকা দখল করে নিচ্ছে। এরপর ভারতের বাণিজ্যিক বিধিনিষেধের বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে কুয়ালালামপুরে তিনি সাংবাদিকদের বলেন যে, আমরা ভারতের কাছে প্রচুর পামওয়েল বিক্রি করি। মাহাথির একটি সমাধান বের করার জন্য দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। কারণ ভারত হলো ভোজ্য তেলের সবচেয়ে বড় ক্রেতা। এ ক্ষেত্রে যদি ভারত পামওয়েল কেনার ক্ষেত্রে বিধিনিষেধ দেয় তাহলে এর মূল্যের ওপর বড় আঘাতে পড়বে। তবে বৃহস্পতিবার ভারতের বাণিজ্যমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল বলেন, নয়া দিল্লি মালয়েশিয়া থেকে আমদানিতে কোনো নিয়ন্ত্রণ আরোপ করেনি এবং সরকার কোনো বিধিনিষেধ নিয়ে ভাবছে না। তবে তিনি বিশদ বিবরণ ছাড়াই বলেছেন, ভারত যদি বিধিনিষেধ আরোপ করে তবে তারা সব দেশের ক্ষেত্রেই একইভাবে প্রয়োগ করবে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একটি সূত্র জানায়, মালয়েশিয়ার পাম তেলমন্ত্রী বুধবার দেশটির মন্ত্রিসভাকে বলেন, পাম তেল নিয়ে সঙ্কট সমাধানের জন্য তার প্রচেষ্টা ভারতীয় শিল্প ও সরকারি কর্মকর্তাদের সাথে সম্পর্ক জোরদার হয়েছে।

 


আরো সংবাদ




short haircuts for black women short haircuts for women Ümraniye evden eve nakliyat