২২ নভেম্বর ২০১৯

চীন-রাশিয়ার বিরুদ্ধে পম্পেওর হুঁশিয়ারি

-

বার্লিন দেয়াল পতনের ৩০তম বার্ষিকী উপলক্ষে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও চীন ও রাশিয়ার বিরুদ্ধে এক কঠোর সতর্কতা জারি করেছেন। তিনি পশ্চিমা মিত্রদের কষ্টার্জিত স্বাধীনতার বিরুদ্ধে হুমকি মোকাবেলা করার আহ্বান জানিয়েছেন। পম্পেও বলেন, চীন, রাশিয়া ও ইরানের মতো দেশগুলোর কাছ থেকে আমাদের জনগণের জন্য হুমকি রোধ করার দায়িত্ব পশ্চিমা বিশ্বের উদার দেশগুলোর সরকারগুলোরও রয়েছে। জার্মানির রাজধানীর বিশ্বেবিখ্যাত ব্র্যান্ডেনবার্গ গেট পেরিয়ে দেয়াল যেখান থেকে চলে এসেছিল তার কয়েক মিটার দূরে পম্পেও এসব কথা বলেন।
পম্পেও বলেন, ১৯৮৯ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও দেশটির মিত্রদের বিজয় অর্জন অনেকটা কঠিন ছিল। আমরা পরাধীন দেশের মূল্যবোধকে রক্ষা করতে ও স্বীকৃতি দিতে প্রতিযোগিতা করেছিলাম। ১৯৮৯ সালের ৯ নভেম্বর বার্লিন দেয়াল পতনের তিন দশক উদযাপন করার প্রস্তুতি চলাকালে জার্মানিতে পম্পেওর এই সফরটি অনুষ্ঠিত হচ্ছে। বার্লিন প্রাচীর পতনের মধ্য দিয়েই শেষ পর্যন্ত কমিউনিস্ট শাসনের পতনের চূড়ান্ত পরিণতি হয়। বার্লিনের সাথে ওয়াশিংটনের সম্পর্কের কথা তুলে ধরে পম্পেও বলেছেন, উদার গণতন্ত্রকে রক্ষা করার অর্থ ‘রাশিয়া থেকে জার্মানিতে নর্ড স্ট্রিম২ গ্যাস পাইপলাইনের মাধ্যমে ‘ইউরোপের জ্বালানি সরবরাহ রক্ষা করা।
চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মারকেল বারবার বলেছেন, পাইপলাইন সম্পূর্ণভাবে বেসরকারি ব্যবসায়িক উদ্যোগে হচ্ছে। জার্মান সরকার পরবর্তী প্রজন্মের মোবাইল নেটওয়ার্ক অবকাঠামো থেকে প্রযুক্তি জায়ান্ট হুয়াওয়েকে বাদ দিতে ব্যর্থ হওয়ায় চীনা সংস্থাগুলোর ফাইভ-জি নেটওয়ার্ক তৈরির উদ্দেশ্য সম্পর্কে সতর্ক করেন পম্পেও।


আরো সংবাদ

আজানের মধুর আওয়াজ শুনতে ভিড় অমুসলিমদের (২৫৪৫৭)ধর্মঘট প্রত্যাহার : কী কী দাবি মেনে নিয়েছে সরকার (২০৯৩৪)মানবতাকে জয়ী করেছে পাকিস্তান : রাবিনা ট্যান্ডন (১৯৪৬৭)কম্বোডিয়ায় কাশ্মির ইস্যুতে বক্তব্য, প্রতিবাদ করায় ঘাড় ধাক্কা দিয়ে বের করা হলো বিজেপি নেতাকে (১৯১৮৮)ব্যাংকে ফোন দিয়ে তদবির করে ‘ছাত্রলীগ সভাপতি’ আটক (৯৮৭১)আবারো রুশ-চীনা অস্ত্র কিনবে ইরান, আশঙ্কা যুক্তরাষ্ট্রের (৯৭৬৩)৪ ভারতীয়কে জাতিসঙ্ঘের সন্ত্রাসী তালিকাভূক্ত করবে পাকিস্তান (৯৫৮৪)৩৫ বর্গ কিলোমিটার এলাকা নিয়ে নেপাল-ভারত তুমুল বিরোধ (৯৩৪৩)গৃহশিক্ষক বিয়েতে বাধা দেয়ায় ছাত্রীর আত্মহত্যা (৯০৫০)ইলিয়াস কাঞ্চনকে যে কারণে সহ্য করতে পারেন না বাস-ট্রাক শ্রমিকরা (৯০১৪)