১৩ ডিসেম্বর ২০১৯

চুক্তি সই করতে যাচ্ছে ইয়েমেন সরকার ও বিচ্ছিন্নতাবাদীরা

-

ইয়েমেন সরকারের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় এডেন বন্দরে ক্ষমতার লড়াই সমাপ্তির জন্য বৃহস্পতিবার একটি চুক্তি ঘোষণা করার ব্যাপারে আশাবাদী দেশটিতে সৌদি সমর্থিত সরকার এবং দক্ষিণাঞ্চলের বিচ্ছিন্নতাবাদীরা। এর ফলে ইরান সমর্থিত হাউছি গ্রুপের সাথে আরব জোটের লড়াই নতুন দিকে মোড় নিতে পারে।
সংযুক্ত আরব আমিরাত-সমর্থিত বিচ্ছিন্নতাবাদী দক্ষিণী অন্তর্বর্তীকালীন পরিষদ (এসটিসি) প্রেসিডেন্ট আবদু রাব্বিহ মনসুর হাদির সৌদি সমর্থিত সরকারের সাথে জোটবদ্ধ হয়েছিল। তবে আগস্টে দু’পক্ষের মধ্যে সম্পর্কের চরম অবনতি ঘটে এবং বিচ্ছিন্নতাবাদীরা এডেনের নিয়ন্ত্রণ দখল করে নিয়েছিল।
পাঁচ বছর আগে রাজধানী সানা থেকে হাদির সরকারকে উৎখাতকারী ইরান সমর্থিত হাউছি আন্দোলনের বিরুদ্ধে লড়াইকারী জোটকে পুনর্গঠনের জন্য সৌদি আরব তাদের মধ্যে পরোক্ষ আলোচনার আয়োজন করেছে। হাদিপন্থী বাহিনী ও বিচ্ছিন্নতাবাদীদের মধ্যকার লড়াই বহুমুখী যুদ্ধে রূপ নিয়েছে এবং এক নতুন ফ্রন্ট তৈরি হওয়ায় জাতিসঙ্ঘের শান্তির প্রচেষ্টাকে আরো জটিল করে তুলেছে।
রিয়াদ তার সীমান্তে হাউছিদের বিরুদ্ধে লড়াইরত জোটটিকে পুনরায় গুরুত্বপূর্ণ করে তোলার চেষ্টা করছে। লড়াইয়ের সময় সৌদি শহরগুলোতে বারবার ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন হামলা চালিয়েছে হাউছিরা, যা সৌদি আরব ও ইরানের মধ্যে প্রক্সি যুদ্ধ হিসাবে ব্যাপকভাবে দেখা হয়ে থাকে।
হাদির সরকারের দুই কর্মকর্তা রয়টার্সকে বলেছেন, বৃহস্পতিবার রিয়াদে এডেন বন্দরে ক্ষমতার লড়াই সমাপ্তির চুক্তি স্বাক্ষর হবে। এই চুক্তিতে দক্ষিণে স্ব-শাসনপ্রত্যাশী এসটিসি এবং সৌদি তত্ত্বাবধানে সশস্ত্রবাহিনীর পুনর্গঠনকে অন্তর্ভুক্ত করার জন্য সরকারকে রদবদল করার আহ্বান জানানো হয়েছে।
লোহিত সাগরের তীরবর্তী শহর জেদ্দায় এক মাসব্যাপী আলোচনায় জড়িত এসটিসি নেতা আইদারোস আল জুবাইদি বুধবার রিয়াদে পৌঁছেছেন বলে নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে একটি পোস্টে জানিয়েছেন।
গত সপ্তাহে সংযুক্ত আরব আমিরাত সেনা প্রত্যাহার করার পর সৌদি বাহিনী এডেনের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে। এই পদক্ষেপটি রিয়াদ ও আবুধাবির মধ্যে সঙ্কট তৈরি করে। বছরের পর বছর ধরে চলা বৃহত্তর যুদ্ধে কিভাবে এগিয়ে যেতে হবে সে সম্পর্কে মতপার্থক্য স্পষ্ট করেছে। এই দ্বন্দ্বের মধ্য দিয়ে সামরিক অচলাবস্থা তৈরির মতো পরিস্থিতির অবসান ঘটানোর জন্য চুক্তিটিকে সম্ভাবনাময় মনে করা হচ্ছে।


আরো সংবাদ




hacklink Paykwik Paykasa
Paykwik