Naya Diganta

মেডিকেলের ভর্তি পরীক্ষা না দেয়ার স্বার্থকতা খুজলেন পদকে

এ বছরেই মেডিকেল কলেজে ভর্তি পরীক্ষা ছিল হুমায়রা আক্তার অন্তরার। কিন্তু সাউথ এশিয়ান (এসএ) গেমসের ক্যাম্প থাকায় পরীক্ষায় অংশ নিতে পারেননি। তাতে কোন দুঃখবোধ নেই। দেশের জন্য পদক জেতায় অনেক বেশি খুশী। মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষা না দেযার স্বার্থকতা খুজে পেলেন ব্রোঞ্জ পদকে।

সাতদোবাদোতে মহিলাদের একক কাতায় ব্রোঞ্জপদক জেতার পর অন্তরা বলেন, ‘আমার খুবই ভালো লাগছে। এই আনন্দ বলে বুঝানো যাবে না। কারণ এই গেমসে দেশকে আমিই প্রথম পদক এনে দিলাম। তবে আশানুরুপা ফল করতে পারিনি। তবে একটু নার্ভাস ছিলাম। পা পিছলে যাওয়ায় স্বর্ণের জন্য লড়াই করতে পারিনি।’ 

উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুলে পড়ার সময়েই এনএসসিতে কারাতে দেখতে আসতেন হুমায়রা। দেখতে দেখতেই খেলার আগ্রহ জন্মে। তাই ছোটবোন জান্নাতুল ফেরদৌস সুমিকে নিয়ে শিখতে আসেন কারাতে। হুমায়রা বলেন, ‘অন্যদের খেলা দেখে আমি সাফের (এসএ গেমস) গল্প শুনেছি। দেশের পতাকা ধরার সুযোগ হয়। মার্শাল আর্ট মেয়েদের জন্য অনেক প্রয়োজন। এই দুই কারণেই আমার কারাতেতে আসা।’

পরিবার নিয়ে অন্তরা বলেন, ‘আমরা চার বোন। ছোট বোনকে নিয়ে আমি কারাতে খেলতে আসি। পড়াশোনার কারণে সুমি খেলা ছেড়ে চলে গেছে। এ বছর আমার মেডিকেল কলেজে ভর্তি পরীক্ষা ছিল। কিন্তু এসএ গেমসের ক্যাম্পে থাকায় পরীক্ষা দিতে পারিনি। চিকিৎসক হওয়ার ইচ্ছাকে আপাতত বাদ দিতে হয়েছে। আমি এই পদকটি আমার পরিবার ও কোচদের উৎসর্গ করছি।’