Naya Diganta

গোয়ালন্দে ভয়ংকর ড্রাগসহ যুবক আটক

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে প্রাণঘাতী ভয়ংকর মরফিন নামক নেশাদ্রব্যসহ আসাদ হোসেন নাবিল (২৫) নামের এক যুবককে হাইওয়ে পুলিশ আটক করেছে। তিনি রবিশাল সিটি করপোরেশনের জড়ন রোড জেলা স্কুল এলাকার মৃত আক্তার হোসেনের ছেলে।

গোয়ালন্দ মোড় আহলাদীপুর হাইওয়ে পুলিশ জানায়, ঢাকা থেকে বরিশালগামী সাকুরা পরিবহনের একটি বাসে উঠে বুধবার দিনগত রাতে ওই বাসের অন্যান্য যাত্রীদের সাথে খারাপ আচরণ করতে থাকেন মাদকাসক্ত নাবিল। এক পর্যায়ে তিনি তার হাতে ইনজেকশনের সিরিঞ্জ নিয়ে কয়েকজন যাত্রীর শরীরে পুশ করার হুমকি দেয়। বৃহস্পতিবার ভোর ৩টার দিকে বাসটি গোয়ালন্দ উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন বিআইডিব্লিউটিসি’র ওয়েস্কেলের কাছে আসলে বাসের যাত্রী ও সুপারভাইজার সেখানে কর্তব্যরত হাইওয়ে পুলিশকে বিষয়টি অবগত করেন।

এসময় পুলিশ নাবিলকে আটক করে তার ব্যাগ তল্লাশী করে ১৫টি কাঁচের শিশিতে ইনজেকশন ১০৫ গ্রাম মরফিনসহ বিভিন্ন নামের নিষিদ্ধ ড্রাগ উদ্ধার করে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে উদ্ধারকৃত ড্রাগসহ নাবিলকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল মামুনের ভ্রাম্যমান আদালতে হাজির করা হয়। তবে এত বেশী পরিমাণ নিষিদ্ধ ড্রাগের বিচার ভ্রম্যমান আদালতের এখতিয়ারবহির্ভূত হওয়ায় তিনি নাবিলের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা দায়েরের পরামর্শ দিয়ে গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশের হাতে সোপর্দ করেন।

আটককৃত আসাদ হোসেন নাবিল জানান, যে ব্যাগটি থেকে ড্রাগ উদ্ধার করা হয়েছে, সে ব্যাগটি তার নিজের নয়। তাকে ওই ব্যাগটি অন্য এক ব্যক্তি দিয়েছে। তাতে কি ছিলো তার জানা ছিল না।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, ড্রাগের পরিমাণ বেশি হওয়ায় আটককৃত ব্যক্তিকে থানা পুলিশের হাতে তুলে দিয়ে নিয়মিত মাদক মামলা দায়েরের পরামর্শ দেয়া হয়েছে।