Naya Diganta

ইউএনও’র সিম ক্লোন করে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চাঁদা দাবি

নীলফামারী জেলার কিশোরগঞ্জের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) সিম ক্লোন করে দুটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানের কাছ থেকে রোববার সকালে চাঁদা দাবি করার ঘটনা ঘটেছে।

জানা যায়, নীলফামারী জেলার কিশোরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবুল কালাম আজাদের সরকারি মোবাইল নম্বর ০১৭৩৩৩৯০৬৬৫ থেকে রোববার সকাল ৯টা ৩০ মিনিটের সময় রাঁধারানী মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ নুরে আলম সিদ্দিকী সাজুকে ফোন করে বলা হয়- আপনার প্রতিষ্ঠানের জন্য একটি উন্নতমানের ল্যাপটপ বরাদ্দ আছে। এর খরচ বাবদ এখনই আপনাকে ০১৮৮৩১১৪৫৬৬ নম্বরে ৮ হাজার টাকা বিকাশ করে পাঠিয়ে দিতে হবে। দেরী করলে সুযোগটি হাতছাড়া হয়ে যেতে পারে।

এদিকে কিশোরগঞ্জ বিএম কলেজের অধ্যক্ষ মোতাহার হোসেনকে সকাল ১০টা ৪ মিনিটের সময় ওই একই নম্বর থেকে ফোন করে ল্যাপটপের খরচ বাবদ ৮ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করা হয়। এ ব্যাপারে সন্দেহ হলে দুই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবুল কালাম আজাদকে জানালে তিনি এ বিষয়ে কিছু জানেন না বলে জানান।

এ বিষয়ে কিশোরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবুল কালাম আজাদ জানান,‘এ ব্যাপারে নীলফামারী জেলা প্রশাসক হাফিজুর রহমান চৌধুরীকে অবগত করেছি ও কিশোরগঞ্জ থানার ওসি হারুন অর রশীদকে মৌখিকভাবে জানিয়েছি।’

বিষয়টি সর্বসাধারণকে সজাগ করার জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার তার ফেসবুক পেজে সিম ক্লোন বিষয়ে একটি ষ্ট্যাটাস দেন এবং সাংবাদিকদের তাৎক্ষণিকভাবে মোবাইলে ম্যাসেজ দিয়ে জানিয়ে দেন।

এ ব্যাপারে কিশোরগঞ্জ থানার ওসি হারুন অর রশীদ বলেন,‘বিষয়টি আমি শুনেছি।’