Naya Diganta

দেশের উন্নয়ন এখন বিয়ে বাড়ির এক দিনের আলো জ্বলার মতো : ড. শাহদীন মালিক

বিশিষ্ট আইনজীবী ও সংবিধান বিশেষজ্ঞ ড. শাহদীন মালিক বলেছেন, জনগণকে তাদের অধিকার থেকে বঞ্চিত করে কোনো দেশই উন্নতি করতে পারে না। উন্নতি করলেও সেই উন্নয়ন টেকসই হয় না। তিনি বলেন, সরকার মুখে উন্নয়ণের কথা বললেও দেশে এখন যে উন্নতি হচ্ছে তা হলো বিয়ে বাড়িতে একদিনের আলো জ্বালানোর মতো। বিয়ে শেষ তো সব শেষ।

তিনি বলেন, গত এক বছরের কিছু বেশি সময়ের মধ্যে দেশে ৩৭৮ জনকে ক্রসফায়ারের নামে আইনশৃংখলা বাহিনীর লোকজন বিনা বিচারে খুন করেছে। দেশের মানুষকে অধিকারহীন করে রাখা হয়েছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

আজ বুধবার সকালে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি (ডিআরইউ) মিলনায়তনে মৌলিক অধিকার সুরক্ষা কমিটি আয়োজিত ‘নির্যাতন রোধের দায় দায়িত্ব’ শীর্ষক আলোচনায় তিনি একথা বলেন।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনের অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল, ব্যারিস্টার সারা হোসেন, মানবাধিকার কর্মী নূর খান লিটন, শিরিন হক, অ্যাডভোকেট হাসনাত কাইয়ুম, র‌্যাবের গুলিতে পা হারানো ঝালকাঠির ছাত্র লিমন হোসেন, ঢাবির কোটা বিরোধী আন্দোলনের নেতা আতাউল্লাহ প্রমুখ। বিভিন্ন সময়ে গুম হওয়া ব্যক্তিদের পরিবারের সদস্যরাও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

শাহদীন মালিক আরো বলেন, সরকার যদি জনগণকে কথা বলার মতো অধিকার থেকেই বঞ্চিত করে তাহলে ২০৪১ কেন ২০৬১ সালেও কোনো কিছুই হবে না। তাই প্রথমে জনগণকে তার নিরাপত্তাসহ সব ধরনের অধিকার ফিরিয়ে দিতে হবে। তারপরেই কেবল উন্নয়নের স্বপ্ন দেখতে হবে।

তিনি বলেন, উন্নয়নের মহাসড়কের লম্বা লম্বা কথা মুখে হয়তো সহজে বলা যায়, কিন্তু বাস্তবায়ন করা কঠিন।

সরকার নিজেই প্রতিনিয়ত সংবিধান লংঘন করছে বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, রিমান্ডের নামে আদালত থেকেই আদেশ দেয়া হচ্ছে, আবার রিমান্ডে নিয়ে অন্যায় আচরণ করা হচ্ছে। সংবিধানেই যেখানে একজন ব্যক্তিকে সুরক্ষা দেয়া হয়েছে নিজের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য না দিতে সেখানে টর্চার করে জবানবন্দি নেয়া হচ্ছে।