Naya Diganta

সরকারদলীয়দের সুবিধা দিতেই কার্যকর পদক্ষেপ নিচ্ছে না : গণতান্ত্রিক বাম ঐক্য

সরকার ১০৫০ টাকা মণ দরে ধান ক্রয়ের ঘোষণা দিলেও বাস্তবে তার প্রতিফলন নেই বলে অভিমত ব্যক্ত করেছেন গণতান্ত্রিক বাম ঐক্য’র নেতারা। তারা অভিযোগ করেন, সরকারদলীয়দের সুবিধা দিতেই সরকার কার্যকর কোন পদক্ষেপ নিচ্ছে না।
কৃষকদের কাছ থেকে সরাসরি ১২শ’ টাকা মণ দরে ধান ক্রয় করতে হবে।
জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে গণতান্ত্রিক বাম ঐক্য’র উদ্যোগে এক সমাবেশে নেতারা একথা বলেন। ২০ রমজানের মধ্যে শ্রমিকদের বেতন-বোনাস পরিশোধ করা এবং কৃষকদের কাছ থেকে সরাসরি ১২শ’ টাকা মণ দরে ধান ক্রয় করার দাবিতে এক সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। এতে কমিউনিস্ট পার্টি (মার্কসবাদী)- সিপিবি (এম)’র সাধারণ সম্পাদক ও গণতান্ত্রিক বাম ঐক্য’র সমন্বয়ক কমরেড ডা. এম.এ সামাদ সভাপতিত্ব করেন। বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক হারুন চৌধুরী, জাতীয় বিপ্লবী পার্টির আহ্বায়ক আবুল কালাম আজাদ, সমাজতান্ত্রিক মজদুর পার্টির সাধারণ সম্পাদক ডা. সামছুল আলম, বাংলাদেশে কমিউনিস্ট পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা সাহিদুর রহমান, গরীব মুক্তি আন্দোলনের সভাপতি শামসুজ্জামান মিলন, সাম্যবাদী দলের কেন্দ্রীয় সদস্য মাসুম, দুর্নীতি প্রতিরোধ আন্দোলনের আহ্বায়ক হারুন, জাতীয় বিপ্লবী পার্টির কেন্দ্রীয় সদস্য অরবিন্দু বেপারী সহ গণতান্ত্রিক বাম ঐক্যের কেন্দ্রীয় ও ঢাকা মহানগর নেতারা।
বক্তারা কৃষিমন্ত্রীর বক্তব্যের সমালোচনা করে বলেন, কৃষিমন্ত্রী রীতিমত কৃষকদের নিয়ে তামাশ করছে। নেতৃবৃন্দ কৃষিমন্ত্রীর খামখেয়ালী বক্তব্যের জন্যে তার পদত্যাগ দাবি করেন। এর পাশাপাশি তারা বলেন, সামনে ঈদ উপলক্ষে যেন শ্রমিকদের কষ্ট না হয় সেদিকে খেয়াল রেখে পাটকল শ্রমিক, গার্মেন্টস শ্রমিক, পরিবহন শ্রমিকসহ সকল শ্রমিকদের ২০ রোজার মধ্যে বেতন বোনাস পরিশোধ করতে হবে।
তারা আরো বলেন, সরকার এখন লুটপাটে ব্যস্ত। যেহেতু এই সরকার জনগণের ভোটে নির্বাচিত সরকার নয় তাই জনগণের নিদারুণ পরিণতি নিয়েও তারা চিন্তিত নয়। কৃষকরা যে পরিমাণ ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন তাতে সরকারের কাছে কিছু যায় আসে না। সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল জাতীয় প্রেসক্লাব, পল্টন মোড় প্রদক্ষিণ করে তোপখানা রোডে গিয়ে শেষ হয়।