Naya Diganta

মৎস্যভবনের সামনে গাড়ির ধাক্কায় দু’জনের মৃত্যু

রাজধানীর মৎস্যভবন এলাকায় বাস-মিনিবাস ও প্রাইভেট কারের প্রতিযোগিতায় পড়ে একজন রিকশাচালকসহ দুজনের মৃত্যু হয়েছে। এতে আহত হয়েছেন আরো তিনজন। নিহত রিকশা চালক মো: সুমনের (৪০) নাম পরিচয় পাওয়া গেলেও অপরজনের (২০) পরিচয় পাওয়া যায়নি। ঘটনার পর পুলিশ ৬টি গাড়ি আটক করেছে।
এদিকে সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা ও তাহিরপুর এবং জয়পুরহাটের পাঁচবিবি, নাটোরের বড়াইগ্রামে সড়ক দুর্ঘটনায় ছাত্রী ও বৃদ্ধসহ চারজন নিহত এবং অপর পাঁচজন আহত হয়েছেন।
ঢাকা মহানগর পুলিশ, হাসপাতাল ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র জানায়, গতকাল সকাল ৭টার দিকে শাহবাগের দিক থেকে ছেড়ে আসা ৬টি গাড়ি প্রতিযোগিতা শুরু করে। যার মধ্যে মিরপুর-মাওয়াগামী স্বাধীন পরিবহন ও একটি প্রাইভেট কারও রয়েছে। গাড়িগুলো তীব্র গতিতে মৎস্যভবনের কাছে পৌঁছালে স্বাধীন পরিবহনের বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পরমাণু শক্তি বিভাগের একটি স্টাফ বাসকে ধাক্কা দেয়। এতে ৬টি গাড়ি এলোমেলো অবস্থায় ছিটকে রাস্তার পাশে থাকা পথচারীদের চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই দুজনের মৃত্যু হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় শরীফ (২০), বাস হেলপার নুর আলম (৩০) ও স্কুলছাত্র আয়াতকে (১২) ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
বাসযাত্রী মনির হোসেন জানান, শাহবাগ পার হওয়ার পর থেকে স্বাধীন পরিবহনের বাসটি রাস্তা ফাঁকা পেয়ে তীব্র গতিতে চালাতে শুরু করে। এ সময় আরো কয়েকটি গাড়িকে অতিক্রম করতে চাইলে তারাও সাইড না দিয়ে দ্রুতগতিতে চালাতে শুরু হয়। শুরু হয় এক ভয়াবহ প্রতিযোগিতা। একপর্যায়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে স্বাধীন পরিবহনের বাসটি।
হাসপাতাল সূত্র জানায়, নিহত দুজনকেই অজ্ঞাত অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। এর মধ্যে সন্ধ্যার পর একজন মো: সুমন নামে শনাক্ত করেন তার স্ত্রী ফাহিমা আক্তার লাইজু। তিনি বলেন, নিহত সুমন একজন রিকশাচালক। সকালে শাহজাহানপুর থেকে রিকশা নিয়ে বের হয়েছিলেন। আর বাসায় ফেরেননি। পরে হাসপাতালে খোঁজ নিয়ে এলে মর্গে তার লাশ পড়ে থাকতে দেখা যায়। নিহতের বাবার নাম আব্দুর রহমান। তার গ্রামের বাড়ি টাঙ্গাইল সদরে।
রমনা থানার ইন্সপেক্টর (ইনভেস্টিকেশন) জহিরুল ইসলাম জানান, সকাল ৭টা সময় মৎস্যভবন সামনে রাস্তা খালি পেয়ে প্রতিযোগিতা শুরু করে ৬টি গাড়ি। এ সময় গাড়িচাপায় দুজনের মৃত্যু হয়। আহত হন তিনজন। তিনি আরো জানান, গাড়িগুলো জব্ধ করে থানায় আনা হয়েছে।
সুনামগঞ্জ ও তাহিরপুর সংবাদদাতা জানান, সুনামগঞ্জের ধর্মপাশায় হ্যান্ডট্রলি উল্টে আকাশ মিয়া (২০) নামে এক চালক নিহত হয়েছেন। গতকাল বেলা সাড়ে ৯টায় সেলবরষ ইউনিয়নের উত্তর বীর ব্রিজে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত আকাশ মিয়া উপজেলার সেলবরষ ইউনিয়নের ভাটাপাড়া গ্রামের বাবুল মিয়ার ছেলে।
জানা যায়, মোহনগঞ্জ বাজার থেকে হ্যান্ডট্রলিতে সিমেন্ট বোঝাই করে উত্তর বীর ব্রিজের ওপর ওঠার সময় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সেটি উল্টে রাস্তার পাশে গিয়ে পড়ে। এতে আকাশ মিয়া গুরুতর আহত হন। স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে ধর্মপাশা উপজেলা স্ব্যাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে ওই দিন তার মৃত্যু হয়।
পাঁচবিবি (জয়পুরহাট) সংবাদদাতা জানান, গতকাল দুপুরে পাঁচবিবি-হিলি রোডের পাঁচবিবির কামারপট্টি এলাকায় ট্রাক্টরের ধাক্কায় ইজাবুল ইসলাম (৬৫) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। সে জয়পুরহাট সদরের বিষ্ণপুর গ্রামের মৃত কাদের আলী মণ্ডলের ছেলে।
এলাকাবাসী জানান, বেলা ১টায় ইজাবুল ভ্যানে বাড়ি যাওয়ার সময় পাঁচবিবির কামারপট্টি এলাকায় বালুভর্তি একটি ট্রাক্টরের ধাক্কা খেয়ে ট্রাক্টরের নিচে পড়ে মারাত্মক আহত হন। হাসপাতালে নেয়ার পথে তিনি মারা যান।
বড়াইগ্রাম (নাটোর) সংবাদদাতা জানান, নাটোরের বড়াইগ্রামে দ্রুতগামী বাস একটি অটোভ্যানকে চাপা দিলে শ্রীপদ সরকার (৬০) নামে এক ভ্যানযাত্রী বৃদ্ধ নিহত হয়েছেন। এ সময় ভ্যানের চালকসহ আরো তিনজন আহত হয়েছেন। গতকাল সকাল ১০টায় নাটোর-পাবনা মহাসড়কের বনপাড়া জাহেদা হাসপাতালের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত শ্রীপদ সরকার উপজেলার হারোয়া গ্রামের মৃত ধীরেন সরকারের ছেলে।