Naya Diganta

শ্রমিকলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যাচেষ্টা, ধানক্ষেত থেকে উদ্ধার

আহত শ্রমিকলীগ নেতা লুৎফে ওয়ালী রব্বানী ওরফে অলি

ময়মনসিংহের ভালুকা আঞ্চলিক শ্রমিকলীগের কার্যকরী সভাপতি লুৎফে ওয়ালী রব্বানী ওরফে অলিকে (৪০) রড দিয়ে পিটিয়ে আহত করেছে দুর্বত্তরা। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় পুলিশ তাকে ধানক্ষেত থেকে উদ্ধার করে আশঙ্কাজনক অবস্থায় প্রথমে ভালুকা ৫০ শয্যা সরকারি হাসপাতাল ও পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। সেখানে তার অবস্থার আরো অবনিত হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় প্রেরণ করা হয়। ঘটনাটি ঘটেছে রোববার রাতে উপজেলার গোয়ারী গ্রামের নিলেরটেক এলাকায়। এ ঘটনায় দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রোববার রাতে প্রতিদিনের মতো লুৎফে ওয়ালী রব্বানী গোয়ারী নিলেরটেক আমিরা বিলে তার মাছের খামারের একটি ঘরে রাত্রিযাপন করছিলেন। রাত একটার সময় একদল দুর্বৃত্ত তার ঘরে হামলা চালায় এবং টিনের বেড়ার কুপিয়ে তছনছ করে। এ সময় তিনি আত্মরক্ষার্থে পাশের আবুল কালামের বাড়িতে আশ্রয় নেন। কিন্তু সন্ত্রাসীরা ওই বাড়িতেও হামলা করে ভাঙচুর চালায় এবং রব্বানীকে ধরে নিয়ে আসে।

পরে তাকে রড দিয়ে পিটিয়ে হাত পাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে মারাত্মক আহত করে হত্যার চেষ্টা চালায়। এ সময় স্থানীয় মেম্বার রফিকুল ইসলাম খবর পেয়ে লোকজন নিয়ে ঘটনাস্থলে গেলে ওই গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের বাড়ির পশ্চিম পাশে আজাদ ঢালীর ধানক্ষেতে অলিকে আহত অবস্থায় ফেলে রেখে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়।

স্থানীয় মেম্বার রফিকুল ইসলাম জানান, রাত দু’টার সময় তিনি খবর পেয়ে থানা পুলিশকে জানিয়ে তিনি লোকজন নিয়ে ঘটনাস্থলে যান। অনেক খোজাখুজির পর আব্দুর রাজ্জাকের বাড়ির পাশের ধানক্ষেত থেকে রব্বানীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়।

তিনি আরো জানান, স্থানীয় বুলবুল ঢালীর সাথে অলির মাছের খামার নিয়ে কিছুদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। এরই জের হিসেবে ঘটনাটি ঘটতে পারে।

স্থানীয় চেয়ারম্যান রিদওয়ান সারোয়ার রব্বানী জানান, লুৎফে ওয়ালী রব্বানী ওরফে অলি তার সহোদর ছোট ভাই। বুলবুল ঢালীর সাথে মাছের খামার নিয়ে বিরোধের জের হিসেবে এই ঘটনা ঘটেছে। চারদিন আগেও তার মাছের খামারের একটি ঘর কুপিয়ে ভাঙচুর ও তাকে ব্যাপক মারধর করে খামারে ফেলে রেখে যায়। বুলবুল পূর্বপরিকল্পিত ভাবে তার ভাইকে হত্যা করে মাছের খামারটি দখল করতে চাইছে। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্ততি চলছে।

আহত শ্রমিকলীগ নেতা অলিকে উদ্ধারকারী ভালুকা মডেল থানার এসআই বলেন, আহত অলিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে দুটি দা ও ছোরা জব্দ করা হয়েছে। এ ঘটনায় আবুল কালাম ও রউফ নামে দুইজনকে আটক করা হয়েছে।

পঁচা মাংস বিক্রির অভিযোগে দুই কসাইয়ের জেল

এদিকে ময়মনসিংহের ভালুকা পৌর এলাকায় পঁচা মাংস বিক্রির অভিযোগে দুই কসাইকে জেল দিয়েছেন ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। ঘটনাটি ঘটেছে নববর্ষের দিন মডেল থানার সামনে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, পঁচা মাংস বিক্রির অভিযোগে উপজেলার ধামশুর গ্রামের সোহরাব মন্ডলের ছেলে জালাল উদ্দিনকে তিন মাসের জেল ও জয়দেবপুর থানার হাতিয়াবের গ্রামের বরকত মিয়ার ছেলে সানোয়ারকে এক মাসের জেলা দেয়া হয়। ঘটনার সময় ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) রোমেন শর্মা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনের ২০০৯ এর ৭(২) ধারায় এই সাজা দেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ভালুকা উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা চিকিৎসক হেলাল আহম্মেদ। ভালুকা মডেল থানার সামনে পচাঁ মাংস বিক্রির সময় পুলিশ তাদেরকে আটক করে। তাদের কাছ থেকে ২০ কেজি পচাঁ মাংস উদ্ধার করা হয়।

ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রোমেন শর্মা জানান, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনের ২০০৯ এর ৭(২) ধারায় এ সাজা দেয়া হয়। পঁচা মাংস বিক্রির অভিযোগে ওই দুইজনকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।