Naya Diganta

‘ব্যালট বাক্স ভরার বক্তব্য ইসি বিলম্বিত স্বীকৃতি’

‘ব্যালট বাক্স ভরার বক্তব্য ইসি বিলম্বিত স্বীকৃতি’

বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক প্রধান নির্বাচন কমিশনার কর্তৃক গতকাল প্রদত্ত ‘নির্বাচনের আগের রাতে ব্যালট বাক্স ভরার’ ব্যাপারে তার বক্তব্যকে ‘বিলম্বিত স্বীকৃতি’ হিসেবে অভিহিত করে ৩০ ডিসেম্বরের অভূতপূর্ব জালিয়াতির নির্বাচন সম্পর্কে নির্বাচন কমিশনের পূর্ণাঙ্গ বক্তব্য দাবি করেছেন। এই ব্যাপারে নির্বাচন কমিশন কর্তৃক নিরপেক্ষ তদন্ত কমিশন গঠনের উদ্যোগ নেবারও আহ্বান জানান।

রোববার বিকালে পার্টির ঢাকা মহানগরী কমিটির সভায় তিনি একথা বলেন। সাইফুল হক ৩০ ডিসেম্বরের কাঙ্খিত নির্বাচন ব্যর্থ হবার দায়-দায়িত্ব নিয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ সমগ্র নির্বাচন কমিশনের পদত্যাগ দাবি করেন। তিনি বলেন, সরকার ও সরকারি দলের অপতৎপরতায় সামিল হয়ে নির্বাচন কমিশন যেভাবে গোটা নির্বাচনী ব্যবস্থাকে ধ্বংস ও নির্বাচনী ব্যবস্থার উপর মানুষের ন্যূনতম আস্থা-বিশ^াসকে নষ্ট করে দিয়েছে তার প্রধান দায়-দায়িত্ব নির্বাচন কমিশনকেই বহন করতে হবে। তিনি বলেন, এই গণঅনাস্থার কারণেই এখন জাতীয় নির্বাচনের মত ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের পর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনও অর্থহীন হয়ে পড়েছে।

পার্টির ঢাকা মহানগর কমিটির সভাপতি আকবর খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সভায় আরো বক্তব্য রাখেন পার্টির মহানগর কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জল হোসেন মোশতাক, কমিটির সদস্য শাহাদাৎ হোসেন খোকন, ইমরান হোসেন, মোজাম্মেল হক, জোনায়েদ হোসেন, মো. রিয়েল প্রমুখ। সভায় গৃহীত এক প্রস্তাবে আরো একদফা গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির স্বেচ্ছাচারী তৎপরতা বন্ধ করতে বিইআরসি-সহ সরকারের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে। প্রস্তাবে বলা হয়, গণশুনানীর নাটক মঞ্চস্থ করে গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধিকে জায়েজ করা যাবে না।