Naya Diganta

১০ বছরে ২০ ঈদ গেলো বিএনপির মরা গাঙে জোয়ার এলো না : ওবায়দুল কাদের

ওবায়দুল কাদের

সড়ক যোগাযোগ ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি বলেছেন, ‘১০ বছরে ২০ ঈদ গেলো কিন্তু বিএনপি আন্দোলন করতে পারলো না। বিএনপির মরা গাঙে আর জোয়ার এলো না, আসবে না। ১০ বছরে আসেনি, আর দুই মাসে কী আন্দোলন হবে’?

তিনি বলেন, ফখরুল সাহেব বড় বড় কথা বলেন, আওয়ামী লীগের নাকি ভোট কমে গেছে। এই নাটোরের কি অবস্থা আজ চেয়েছিলাম পথসভা হয়ে গেছে বিশাল জনসভা।  তিনি আজ শনিবার রেলপথে ঢাকা থেকে নীলফামারী যাওয়ার পথে দুপুর সোয়া দুইটার দিকে নাটোর রেলওয়ে স্টেশনের ২নং প্লাটফর্মে আয়োজিত জনসভায় এসব কথা বলেন।

কাদের বলেন, বিএনপির কোন জনপ্রিয়তা নেই, জনগনের কাছে ভোট চাওয়ার মতো তাদের উল্লেখ্যযোগ্য কাজ নেই। জনপ্রিয়তা আছে আওয়ামী লীগের। তিনি বলেন ঈদের পর ঈদ তারপর পরীক্ষা তারপর ঈদ এভাবে ১০ বছরে ২০টা ঈদ গেলো কিন্তু বিএনপি আন্দোলন করতে পারেনি।

কাদের জানান, জনপ্রিয়তা যাচাই করেই মনোনয়ন দেয়া হবে শ্লোগান দিয়ে নমিনেশন আদায় করা যাবে না। যাকে নাটোরের জনগন ভালবাসেন তাকেই মনোনয়ন দেয়া হবে। প্রত্যেকের আমল নামা শেখ হাসিনার কাছে আছে, সবার ৫টি করে রিপোর্ট নেয়া হয়েছে, ৬ মাস পর পর রিপোর্ট জমা হচ্ছে, যাদের জনপ্রিয়তা আছে তাদের প্রতি অবিচার করা হবে না।

নাটোর জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও নাটোর-৪ (বড়াইগ্রাম-গুরুদাসপুর) আসনের এমপি অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস এমপির সভাপতিত্বে আয়োজিত এ জনসভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন নাটোর-২ আসনের সংসদ সদস্য শফিকুল ইসলাম শিমুল, নাটোর-১ আসনের সংসদ সদস্য আবুল কালাম আজাদ, নাটোর-৩ আসনের সংসদ সদস্য তথ্য যোগাযোগ ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক সহ জেলা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ। এসময় তার সফরসঙ্গী হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী ও মোজাম্মেল হক এমপি, বিপ্লব বড়ুয়া ও ওয়াসিম উকিলসহ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ।

ওবায়দুল কাদের বলেন, কোটা আন্দোলননে ব্যর্থ হয়ে নিরাপদ সড়কের আন্দোলনে বিএনপি নিরাপদে ক্ষমতায় যেতে চেয়েছিল সেটাতেও ব্যর্থ হয়েছে। বিএনপি নেতৃত্ব দিতে ব্যর্থ হয়েছে তাই সরকারের না বিএনপির পদত্যাগ করা উচিত।

বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম জিয়ার আটক প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এটা আদালতের ব্যাপার। এখানে শেখ হাসিনার কিছু করার নেই। পরে তিনি নৌকা মার্কায় ভোট দেয়ার আহবান জানিয়ে বলেন তিনি এসেছেন শেখ হাসিনার সালাম সবাইকে পৌছে দিতে। জনসভায় জেলার চারজন এমপি ছাড়া অন্য মনোনয়ন প্রত্যাশীদের কোন ব্যানার ফেস্টুন বিলবোর্ড জনসভা এলাকায় দেখা যায়নি। অন্য মনোনয়ন প্রত্যাশীদের জনসমাবেশে কথা বলতে না দেয়ারও অভিযোগ করেছেন একাধিক মনোনয়ন প্রত্যাশী।

জনগণ নৌকায় ভোট দিতে ভুল করবে না
আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নাটোরের জনগণকে নৌকা মার্কায় ভোট দিতে ভুল না করার আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। শনিবার দুপুরে রেলযোগে নাটোর পৌঁছে পথসভায় নাটোর রেলস্টেশনে এ আহ্বান জানান তিনি।
সেতুমন্ত্রী বলেন, বিএনপিকে ভোট দেয়ার মতো কোনো কারণ কি তারা দেখাতে পারবেন? দেশে উন্নয়ন অগ্রগতির এমন কি আছে যা দেখে বিএনপিকে মানুষ ভোট দেবে। তাদের (বিএনপির) নেতিবাচক রাজনীতিতে তাদের জনপ্রিয়তা তিলে তিলে কমে গিয়েছে।
‘আমাদের উন্নয়ন আর অগ্রগতির দিকে আপনারা তাকান। আমি আপনাদের বলতে চাই, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আপনাদের পাশে আছে, থাকবে। আমি আশা করি, নাটোরের বনলতাসেন নৌকা মার্কায় ভোট দিতে ভুল করবে না।’
বিএনপি মহাসচিবের সমালোচনা করে কাদের বলেন, মির্জা ফখরুল সাহেব বলেছেন আমাদের নাকি ভোট কমেছে। আপনাদের নেতিবাচক রাজনীতিতে ভোট আপনাদের কমেছে।
‘এই নাটোরে আজকে দেখেন কী অবস্থা, আসছি পথসভা করতে হয়ে গেছে জনসভা,’ যোগ করেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক।
দলীয় মনোনয়নপ্রত্যাসীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘যার পক্ষে নাটোরের জনগণ আছে, যাকে নাটোরের জনগণ ভালোবাসে, যাকে পছন্দ করে মনোনয়ন সেই পাবেন। ছয় মাস অন্তর অন্তর পাঁচটি করে রিপোর্ট জমা পড়েছে। জনমত যার পক্ষে আমরা তাকেই মনোনয়ন দেব।
বিএনপির আন্দোলনের হুমকির কথা তুলে ধরে সেতুমন্ত্রী বলেন, ১০ বছরে ১০ মিনিটের জন্যও রাস্তায় নামতে পারেনি। ভেবেছিল খালেদা জিয়া জেলে যাওয়ার পর সাগরের উত্তাল নামবে, কিন্তু কি দেখলাম নদীর রিপলও (ঢেউ) হলো না। বিএনপির আন্দোলনের মরা গাঙ্গে জোয়ার আর আসে না, আসবে না।
এ সময় আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আহম্মদ হোসেন, বিএম মোজাম্মেল হক, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, উপদফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া উপস্থিত ছিলেন।
প্রসঙ্গত, সরকারের উন্নয়নকাজ তৃণমূলে পৌঁছে দিতে এবং দলকে শক্তিশালী করতে উত্তরাঞ্চলে ট্রেন সফর করছে আওয়ামী লীগ।
এ ট্রেনযাত্রার মধ্য দিয়ে উত্তরবঙ্গের জেলাগুলোতে নির্বাচনী সফর করবে দলটি। আগামীতে ক্ষমতাসীন এ দলটি নৌ ও সড়কপথেও নির্বাচনী সফর করবে বলে জানা গেছে।