Naya Diganta

কোহলি না থাকায় হতাশ হাসান আলী

আগামী দুই সপ্তাহ পর আরেকটি ভারত-পাকিস্তান লড়াই। আবার ক্রিকেট বিশ্ব অপেক্ষায় দুই দলের জমজমাট এটি লড়াইয়ের। গত বছর চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে ভারতকে ১৮০ রানে হারানোর পর এই প্রথম ভারতের বিরুদ্ধে মাঠে নামবে পাকিস্তান। এই দ্বৈরথ নিয়ে সাধারণ দর্শকদের মতো ক্রিকেটাররাও যে আবেগতাড়িত সেটি লুকাতে পারেননি পাকিস্তানের তারকা ফাস্ট বোলার হাসান আলী।

ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলির উইকেট নেয়ার আগ্রহের বিষয়টি অকপটেই স্বীকার করেছেন হাসান আলী। সর্বশেষ দেখায় কোহলিকে বল করার সুযোগই পাননি তিনি, হাসান বোলিংয়ে আসার আগেই কোহলিকে সাজঘরে পাঠিয়েছেন আরেক পেসার মোহাম্মাদ আমির। আশা ছিলো এশিয়া কাপে কোহলির উইকেট নেয়ার স্বাদ পাবেন, কিন্তু হাসান আল হতাশা হয়েছে বিরাট কোহলি এশিয়া কাপে না থাকায়।

লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে পাকিস্তানের দলে প্র্যাকটিসের ফাঁকে হাসান আলী সাংবাদিকদের বলেন, ‘বিরাট কোহলি সেরা খেলোয়াড়দের একজন। সবাই জানে যে তিনি একজন ম্যাচ উইনার। তার অনুপুস্থিতি সত্ত্বেও ভারত খুব ভালো দল হিসেবেই এশিয়া কাপের মাঠে নামবে। তবে আমাদরে জন্য সুবিধা এই যে, কোহলি যেভাবে চাপের মুখেও ম্যাচ বের করতে নিতে পারতেন, তার জায়গায় খেলতে আসা অন্য কেউ সেটা পারবে না।’।

এই পাকিস্তানি পেসার বলেন, ‘তরুণ তারকা হিসেবে সবাই চাইবে বিরাট কোহলির উইকেট নিতে, কিন্তু দুর্ভাগ্য যে তিনি এশিয়া কাপে নেই। পরে আবার যখন তার মুখোমুখি হবো অবশ্যই চেষ্টা করবো তার উইকেট নিতে।’

সাম্প্রতিক সময়ে পাকিস্তানের সবচেয়ে ধারাবাহিক পারফরমারদের একজন হাসান আলী। পারফরম্যান্সের কারণেই তার নামের সাথে যুক্ত হয়ে গেছে ‘উইকেট টেকার বোলার’ তকমা। বিরাট কোহিলর মতোই ক্যারিয়ারের শুরু থেকে ফিটনেস ধরে রাখার সুনাম রয়েছে তারও। সম্প্রতি পাকিস্তান দলের ফিটনেস পরীক্ষায় ১৯ দশমিক ৮ মার্ক পেয়েছেন হাসান, যেখানে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড খেলোয়াড়দের জন্য মানদণ্ড দিয়েছিলো ১৭ দশমিক চার।

হাসান জানান, তিন ফরম্যাটের ক্রিকেটে ধারবাহিক খেলে যাওয়া তার উদ্দেশ্য, যে কারণে ফিটনেস ধরে রাখতে প্রচুর পরিশ্রম করেন।
আগামী ১৯ সেপ্টেম্বর এশিয়া কাপের গ্রুপ পর্বে মুখোমুখি হবে ভারত পাকিস্তান। সুপার ফোর নামে দ্বিতীয় পর্বে আরো একবার মুখোমুখি হবার প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে। আর উভয় দেশ যদি ফাইনালে যায় তাহলে এক আসরেই মোট তিন বার দেখা হবে দুই দেশের।

আরো পড়ুন :

এশিয়া কাপে বাংলাদেশ দলে মুমিনুল
বাসস 
আসন্ন এশিয়া কাপে ব্যাটসম্যান মুমিনুল হককে বাংলাদেশ দলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। বেশ কয়েকজন খেলোয়াড়ের ইনজুরি সমস্যা থাকায় তাকে এশিয়া কাপের দলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে বলে আজ নির্বাচকরা জানিয়েছেন।

নির্বাচক প্যানেলের সদস্য হাবিবুল বাশার সুমন জানান, ‘মুমিনুল একজন টপ-অর্ডার ব্যাটসম্যান, যে কিনা ওপেনার কিংবা ওয়ান ডাউনে খেলতে পারেন। সুতরাং তাকে দলে অন্তর্ভুক্ত করাটা এ টুর্নামেন্টে ভালো হবে বলে আমরা মনে করছি।’


ওপেনার তামিম ইকবালের হাতের আঙ্গুলে সমস্যা আছে। এ ছাড়া দলে জায়গা পাওয়া নতুন মুখ বাঁ-হাতি নাজমুল হক সম্প্রতি অনুশীলনে বাঁ-হাতের বুড়ো আঙ্গুলে আঘাত পেয়েছেন। সুমন আরো বলেন, ‘আমরা আশা করছি তারা দু’জনেই খেলবে। তবে আমরা মনে করছি তারা কোন সমস্যা বোধ করলে মুমিনুলকে খেলানো যাবে।’

সংযুক্ত আরব আমিরাতে আগামী ১৫-২৮ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিতব্য ছয়-জাতির এশিয়া কাপে বি’-গ্রুপে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ শ্রীলংকা এবং আফগানিস্তান।

বাংলাদেশ দলের বড় চিন্তা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের ইনজুরি সমস্যা। তার হাতের আঙ্গুলে অস্ত্রোপচার করতে হবে। যে কারণে তিনি এশিয়া কাপ খেলতে কিছুটা অনাগ্রহী। কিন্তু বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) তাকে এ টুর্নামেন্টে খেলাতে চায়। আগামী অক্টোবরে নিজ মাঠে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজ পর্যন্ত তার আঙ্গুলে অস্ত্রোপচার স্থগিত রাখতে চায় ক্রিকেট বোর্ড।

সম্প্রতি একটি দৈনিকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে সাকিব বলেছেন, তিনি ২০-৩০ শতাংশ ফিট। তবে তারপরই দলের কোচ স্টিভ রোডস সাকিবের এমন দাবি অস্বীকার করেছেন।

রোডস গতকাল সাংবাদিকদের বলেন, ‘সে (সাকিব) ২০-৩০ শতাংশ ফিট আমি তা বিশ্বাস করি না। আমি মনে করছি সে তারচেয়ে অনেক বেশি ফিট।’ রোডস বলেন, ‘সে পুরোপুরি ফিট নয়। তবে তবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে যেভাবে খেলেছে সেভাবে খেললেও সেটা বাংলাদেশ দলের জন্য অনেক বড় কিছু হবে।’

গত জুলাইয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে তিন ম্যাচে ১৯০ রান করে ২-১ ব্যবধানে বাংলাদেশ দলের ওয়ানডে সিরিজ জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন সাকিব।

এদিকে মুমনিুল হকও স্পিন বোলিং করতে পারেন। বাঁ-হাতি এ স্পিনার ২০১৫ বিশ্বকাপে তার সর্বশেষ ২৬তম ওয়ানডে খেলেছেন।

সম্প্রতি বাংলাদেশ এ’ দলের হয়ে আয়ারল্যান্ড সফরে রেকর্ড এক ইনিংসে ১৩২ বলে ১৮২ রান করে নির্বাচকদের নজরে আসেন টেস্ট দলের নিয়মিত সদস্য মোমিনুল।